এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > নাম না করে তোলাবাজির অভিযোগ তুলে তীব্র কটাক্ষ অনুব্রত মন্ডলকে

নাম না করে তোলাবাজির অভিযোগ তুলে তীব্র কটাক্ষ অনুব্রত মন্ডলকে

তৃণমূলের বিরুদ্ধে বলতে গিয়ে এবার নাম না করে বীরভূমের তৃণমূল অধিপতি অনুব্রত মণ্ডলকে টাকা খাওয়ার জন্য আক্রমণ করলেন বিজেপির বীরভূম জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মন্ডল। দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় অভিযোগ উঠেছে তোলাবাজি নিয়ে। বিভিন্ন রাজনৈতিক গোষ্ঠী একে অপরের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে এ ব্যাপারে। এদিন তৃণমূলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে রীতিমতো নাম করে বিজেপি জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল কে আক্রমণ করলেন শ্যামাপদ মণ্ডল।

শনিবার সকালে বীরভূমের নলহাটি দু’নম্বর ব্লক একটি সংবর্ধনা সভার আয়োজন করেছিল এলাকার বিজেপি গোষ্ঠী। সেই সম্বর্ধনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বীরভূম জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মন্ডল সহ দলের জেলা নেতা শুভাশিস চৌধুরী, শুভ্রাংশু চৌধুরী প্রমুখরা। সেখানেই বীরভূম জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মন্ডল এলাকার মহিলাদের মা কালীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে বললেন। তিনি উল্লেখ করলেন, যদি তৃণমূলের কেউ টাকা চাইতে আসে তাহলে যেন মা কালীর  মত হাতে বঁটি তুলে নেওয়া হয়।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন অনুব্রত মণ্ডলকে কটাক্ষ করে শ্যামাপদ মন্ডল সংবর্ধনা সভা থেকে বললেন, “উনি এখন বালি, পাথর, কয়লার তোলাবাজি। তার অপকর্মের জন্য মার খেতে হচ্ছে সরকারি আধিকারিকদের। এখন টাকা না দেওয়ায় রেশন ডিলারদের পিছনে হাত ধুয়ে লেগেছে। সামনে নির্বাচন। তাই নির্বাচনী খরচ তুলতে এইসব পরিকল্পনা নিয়েছে। তার জন্য লরি থেকে ৪০০-৬০০ টাকা করে তোলা তোলা হচ্ছে।”

শ্যামাপদ মন্ডল এর অভিযোগের ভিত্তিতে এখনো পর্যন্ত অনুব্রত মন্ডলের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে, রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে দোষারোপ করতে গেলে কোন প্রমাণ ছাড়া করলে সেই দোষারোপ এর কোন ভিত্তি থাকে না। রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে, এই মুহূর্তে রাজ্যে বিজেপি যথেষ্ট কোণঠাসা, আর বীরভূমের তৃণমূল গড়ে অনুব্রত মণ্ডল যথেষ্ট নজর দিয়েছেন তৃণমূল সংগঠনের দিকে। সে দিক দিয়ে রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে স্পটলাইট পেতে এ ধরনের অভিযোগ নিয়ে আসছে তাঁরা। আপাতত পরিস্থিতির ওপর নজর রাখবে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!