এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > উপনির্বাচন জিততে উড়ছে টাকা, দেদার বিলোচ্ছে বিরিয়ানী!

উপনির্বাচন জিততে উড়ছে টাকা, দেদার বিলোচ্ছে বিরিয়ানী!

আগামীকাল বাংলায় সবং বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন। সেই সঙ্গে উপনির্বাচন হতে চলেছে তামিলনাড়ুর রাধাকৃষ্ণন নগর বা আর কে নগর বিধানসভা কেন্দ্রে। তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার মৃত্যুর ফলে ওই কেন্দ্রে উপনির্বাচন হতে চলেছে। আর তাই তামিল রাজনীতিতে এই আসন ঘিরে ‘প্রেস্টিজের’ লড়াই জমে উঠেছে। এই উপনির্বাচন জিততে ওই কেন্দ্রে ৫৯ জন প্রার্থী হয়েছেন। তামিল রাজনীতির কোনো হেভিওয়েটই বোধহয় এখানে প্রচারে আসতে বাকি রাখেননি। পালানিস্বামী, পন্নিরসেলভাম, টি টি ভি দিনকরণ, স্ট্যালিন, ভাইকোর মত রাজ্যের প্রথমশ্রেণীর নেতারা এখানে এসে ঝড় তুলে গেছেন প্রচারে।
তবে ৫৯ জন প্রার্থী বা হেভিওয়েটদের প্রচার নয়, এই কেন্দ্রের উপনির্বাচনে শোরগোল পরে গেছে কোন রাজনৈতিক দল ভোটারদের কীভাবে প্রভাবিত করেছে তা নিয়ে। এই উপনির্বাচন আদতে হওয়ার কথা ছিল গত এপ্রিলে। কিন্তু সেসময় অভিযোগ ওঠে, রাজনৈতিক দলগুলি ভোটারদের কাছে টানতে নগদ টাকা বিলি করছে। ফলে তদন্তে নামে নির্বাচন কমিশন, উঠে আসে বিস্ফোরক সব তথ্য। বিভিন্ন নেতার কাছে উদ্ধার হয় প্রচুর নগদ টাকা, এমনকি তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বাড়িতে হানা দেয় আয়কর দপ্তর। আর তারফলে স্থগিত করে দেওয়া হয় উপনির্বাচন।
কিন্তু এবারেও ছবিটা বদলায়নি একফোঁটাও। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শাসকদলের এক নেতা স্বীকার করেছেন, প্রার্থীর জিত নিশ্চিত করতে প্রত্যেক ভোটারকে ৬,০০০ টাকা বিলি করেছেন তাঁরা। অন্যদিকে অভিযোগ বিরোধী দল ডিএমকে প্রতি ভোটারকে ২,০০০ করে টাকা দিয়েছে। এমনকি দিনকরণ শিবির নাকি প্রত্যেক ভোটারকে ৭,০০০ টাকা করে দিয়েছে বলেও অভিযোগ, শুধু তাই নয় – তাঁদের মিছিলে যোগ দিলে প্রতিদিন ৩০০ টাকা করে অতিরিক্ত দেওয়া হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে। অনেকে আবার ভোটারদের প্রভাবিত করতে প্রেশার কুকার বা বিরিয়ানির প্যাকেট বিলি করছেন বলেও অভিযোগ জমা পড়ছে। নির্বাচন কমিশনের কড়া নজরদারি এড়িয়ে শহরের বিভিন্ন জায়গায় লুকিয়ে এই টাকা বা যৌতুক বিলি হচ্ছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে। এখন দেখার তামিলনাড়ুর আম্মার আসনে শেষ পর্যন্ত ভোটারদের প্রভাবিত করে কে জয়ী হতে চলেছেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!