এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > তৃণমূলকে চাপে ফেলতে এবার আসামের ছায়া পশ্চিমবঙ্গে চায় বিজেপি

তৃণমূলকে চাপে ফেলতে এবার আসামের ছায়া পশ্চিমবঙ্গে চায় বিজেপি

তৃণমূলকে চাপে ফেলতেই কি এবার আসামের ছায়া পশ্চিমবঙ্গে ফেলতে চলেছে বিজেপি এমন জল্পনাই কিন্তু ঘুরছে এখন রাজ্য রাজনীতিতে। তবে কি আগামীদিনে পশ্চিমবঙ্গে নাগরিকপঞ্জি তৈরি হবে তও আবার অসমের ধাঁচেই এই সম্ভাবনাই উসকে দিলেন বিজেপি নেতা। এদিন দলীয় কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে বিজেপি নেতা মোহিত রায় মুখ্যমন্ত্রীকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে বলেন যে পশ্চিমবঙ্গে বিদেশিদের সংখ্যা বাড়ছে।মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তিনি বলেন, বাংলাদেশি মুসলমানদের এদেশে রাখতে চাইছেন। যার ফলে সাবিক উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে বলেই তিনি দাবি করেছেন । সেই সমস্যার সমাধান হিসেবে সম্প্রতি অসমে চালু হওয়া কেন্দ্রের প্রকল্প নাগরিকপঞ্জি-র কথা বলেন। স্বভাবতই বিদেশে চিহ্নিত করতে এই সমীক্ষা বাংলাতেও করা হতে পারে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

এদিন অসমের উদাহরণ তুলে ধরে তিনি বলেন ,অসমেও গত কয়েক দশকে কয়েকগুন বেড়েছে বিদেশিদের সংখ্যা। তাঁর মধ্যে বেশিরভাগই বাংলাদেশ থেকে আসা মুসলিম সম্প্রদায়। তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগকে সামনে রেখে বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত হিন্দুদের এদেশের নাগরিকত্ব দিতে সচেষ্ট হওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও দাবি করেন বিজেপির এই নেতা। কিন্তু তিনি সরাসরি বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে পরামর্শ দিয়েছেন ,কোনও ভাবেই বাংলাদেশি অনুপ্রবেশ কারীদের প্রশ্রয় না দিয়ে বরং বিতাড়িত করার করার উদ্যোগ নিতে। ঠিক যেভাবে অসমে কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে কাজ শুরু হয়েছে।

এদিন তিনি আরও বলেন ,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে অভিযোগ করেছিলে অসম থেকে মুসলমানদের বিতাড়িত করা হচ্ছে । তা সত্যি নয়। সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। মোহিতবাবুর দাবি, অসমে কয়েক দশকে মুসলিম জনসংখ্যা একলাফে অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০০১ সালে যেখানে ওই রাজ্যে মুসলিম অধ্যুষিত জেলার সংখ্যা ছিল ৭টি ,তা ২০১১তে বেড়ে হয়েছে ৯টি।তিনি অভিযোগ করেন এই বৃদ্ধির জন্য দায়ী বাংলাদেশ থেকে আসা মুসলমানরাই।

Top
error: Content is protected !!