এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > অজয় নায়েকের পর এবার বিবেক দুবে- রাজ্যের শাসকদলের উপর চাপ বাড়িয়ে বড়সড় দাবি

অজয় নায়েকের পর এবার বিবেক দুবে- রাজ্যের শাসকদলের উপর চাপ বাড়িয়ে বড়সড় দাবি

Priyo Bandhu Media

অজয় নায়েকের পর এবার বিবেক দুবে। রাজ্যের শাসকদলের উপর চাপ বাড়িয়ে এদিন তিনি দাবি করেন যে, প্রথম দফায় কিছু কিছু জায়গায় গাফিলতি ছিল। আর তাই প্রথম ও দ্বিতীয় দফা থেকে শিক্ষা নিয়ে তৃতীয় দফায় ভোট করানো হবে। এর এই নিয়ে কমিশণেও কথা বলবেন তিনি।

এদিন তিনি দাবি করেন যে, কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারের নির্বাচন নিয়ে খুব একটা খুশি নন নির্বাচন কমিশন। রাজ্যের বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবের দাবি প্রথম দফায় কিছু কিছু জায়গায় গাফিলতি ছিল। আর তাই প্রথম ও দ্বিতীয় দফা থেকে শিক্ষা নিয়ে তৃতীয় দফায় ভোট করানো হবে। আর সেই কারণেই রাজ্যের বাকি থাকা নির্বাচনে আর বাহিনীর সংস্থান করা হবে আর এই নিয়ে দিল্লিতে শীর্ষ আধিকারিকদের সাথে কথা বলবেন। সোমবার বালুরঘাট সার্টিক হাউসে জেলাশাসক, পর্যবেক্ষক এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে বিবেক দুবের। বুথের বাইরে কুইক রেসপন্স টিম রাখারও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে সূত্রের খবর অনুযায়ী রাজ্যে মঙ্গলবার তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। মঙ্গলবার চার জেলায় ভোট আর সেখানে সব মিলিয়ে আরো বেশি কোম্পানি আধা সামরিক বাহিনী থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। রাজ্যে সেই পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে শাসকদলের বিরুদ্ধে ভোটে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা। সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থও হয়েছে তারা। অন্যদিকে এক ভোট কর্মীও প্রাণ হারিয়েছেন। আর তার পরেই এবারের লোকসভা ভোটে আর কোনো প্রকার সংশয় না রেখে ভোট কর্মী এবং বিরোধীরা কেন্দ্রীয় বাহিনী চেয়ে বার বার বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। আর এবার সেই বিরোধী ও ভোট কর্মীদের সুখবর দিয়ে রাজ্যের তৃতীয় দফার ভোটে আরো বেশি আধা সামরিক বাহিনী থাকতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিকমহল।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ এর লোকসভা ভোটের জন্য বিশেষ নির্বাচনী পর্যবেক্ষক হিসাবে অজয় নায়েককে দ্বায়িত্ব দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তিনি এইদিন রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করে বলেন যে , “দশ বছর আগে নির্বাচনের সময় বিহারে যে পরিস্থিতি ছিল, এখন এরাজ্যে সেই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সেসময় বিহারের ভোটেও এত সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাজে লাগাতে হত। এখন এরাজ্যেও তাই করতে হচ্ছে। বিহারে এখন খুব কম এলাকায় কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহার করতে হচ্ছে।” যা নিয়ে তাঁর অপসারণ চেয়ে দলের শীর্ষ নেতা সুব্রত বক্সী কমিশণে অভিযোগ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন। তাদের অভিযোগ এই মন্তব্য করে আদতে রাজ্যকেই অপমান করেছেন অজয় নায়েক। উল্লেখ এই মন্তব্যের পরেই শনিবার কমিশনের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, তৃতীয় দফার ভোটে ৯২ শতাংশ বুথেই থাকছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

আর এর পর আবার বিবেক দুবের এই মন্তব্য কার্যত চিন্তার চাপ ফেললো শাসকদলের উপর এমনটাই মত সংশ্লিষ্ট মহলের। কেননা অজয় নায়েকের মন্তব্যের পর বড়সড় সিদ্ধান্ত জানিয়েছিল কমিশণ আর এবার বিবেক দুবের এই মন্তব্যের পর কমিশণ আরো বড়সড় সিদ্ধান্ত নিতে পারে তা নিয়ে একপ্রকার নিশ্চিত রাজনৈতিকমহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!