এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূলের সোশ্যাল সেলকে ‘আতান্তরে’ ফেলে দল ছাড়লেন হেভিওয়েট নেতা

তৃণমূলের সোশ্যাল সেলকে ‘আতান্তরে’ ফেলে দল ছাড়লেন হেভিওয়েট নেতা

Priyo Bandhu Media

বর্তমানে রাজনৈতিক যুদ্ধ জিততে গেলে রাস্তায় নেমে প্রচারের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ার যুদ্ধে জেতাটাও জরুরি, তা একবাক্যে মেনে নিচ্ছে তাবড় তাবড় রাজনৈতিক দলগুলি। গেরুয়া শিবিরের এই সোশ্যাল সেল গোটা দেশেই অত্যন্ত সক্রিয় বলে মানেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। তবে সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের যুদ্ধে এই সোশ্যাল মিডিয়ার গুরুত্ব অনুধাবন করে – সেই যুদ্ধে জিততে বড়সড় পরিকল্পনা নিয়েছিল রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসও।

লোকসভা নির্বাচনের আগে দলের হয়ে কলকাতায় বড়সড় এক সেমিনারের ব্যবস্থা করেন দলের অঘোষিত দুনম্বর নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপর ব্লকে ব্লকে সোশ্যাল মিডিয়া সেল গড়ে তুলে বিজেপির সঙ্গে যুদ্ধে নামার চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু, লোকসভার ফলাফল বেরোলে দেখা যায় – সোশ্যাল মিডিয়ার যুদ্ধে গুনে গুনে বেশ কয়েক গোল খেয়ে গেছে রাজ্যের শাসকদল।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এসবের মাঝেই তৃণমূলের সোশ্যাল সেলকে আরও বড় ধাক্কা দিয়ে পদ ছাড়তে চলেছেন দলের হেভিওয়েট নেতা। সূত্রের খবর, তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে ‘ব্যক্তিগত’ কারণ দেখিয়ে দলের সমস্ত রকম পদ থেকে সরে যেতে চেয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়া সেলের যুগ্ম আহ্বায়ক পদে থাকা সুপর্ণ মৈত্র। সুপর্ণবাবু ন্যাসকমের প্রাক্তন পূর্বাঞ্চলীয় অধিকর্তা ছিলেন। সূত্রের খবর, সুপর্ণবাবু এই দল ছাড়ার কথা নাকি স্বয়ং দলীয় শীর্ষনেত্রী মমতা বান্দ্যোপাধ্যাকেও জানিয়েছেন।

তৃণমূলের দলীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, শাসকদলের সোশ্যাল মিডিয়া সেলের অন্যতম স্তম্ভ ছিলেন এই সুপর্ণবাবু। এমনিতেই ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনিতে ভর করে রাজ্যে তৃণমূলকে ক্রমশ কোনঠাসা করে ফেলছে গেরুয়া সমর্থকরা। তার উপর মুকুল রায়ের মত বিজেপি নেতা হুঙ্কার দিয়ে রেখেছেন যে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে নাকি তৃণমূল দলটাকেই তুলে দেবেন! দলের এই কঠিন সময়ে সুপর্ণবাবুর মত সোশ্যাল মিডিয়া সেলের স্তম্ভ দল ছাড়াই হতাশা আরও বাড়ল ঘাসফুল শিবিরের বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!