এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > আরেক হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়কের উপর প্রাণঘাতী হামলার প্রচেষ্টা, গ্রেপ্তার ৬ মহিলা

আরেক হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়কের উপর প্রাণঘাতী হামলার প্রচেষ্টা, গ্রেপ্তার ৬ মহিলা

লোকসভা ভোটের মুখে চাঞ্চল্য বাড়িয়ে আরেক প্রভাবশালী তৃণমূল বিধায়কের উপর প্রাণঘাতী হামলার অভিযোগে সরগরম হল রাজ্যরাজনীতি। সাহায্য চাওয়ার সুযোগে ছ’জন মহিলা পাঁচবারের বিধায়ক তথা পুরসভার চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়ের উপর চড়াও হন,এমন অভিযোগের ভিত্তিতেই ওই মহিলাদের আটক করে জেরা শুরু করেছে পুলিশ।

প্রত্যেকের বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটির গৌরীপুর এলাকায় বলেই জানা গিয়েছে। ধৃত মহিলারা নিজেদেরকে বানজারা বলে দাবী করেছে। তাছাড়া এরা প্রত্যেকেই হিন্দিভাষী। কেন কী উদ্দেশ্যে তারা এদিন বিধায়কের অফিসে ঢুকেছিলেন। তাদের কেউ নিয়োগ করেছে কিনা এই সংক্রান্ত একাধিক বিষয় অন্তত্য গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখছে পুলিশ। পুলিস সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় বলেন, এই ঘটনায় ছ’জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পুলিশি তদন্তের সূত্র থেকে জাবা গিয়েছে,বুধবার দুপুরে কাটোয়া পুরসভায় নিজস্ব অফিসেই বসেছিলেন বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ বাবু। সেসময় বিধায়কের চোখে ধুলো দিয়ে মধ্যবয়স্ক ওই ছ’জন মহিলা ঘরে ঢুকেই বিধায়কের উপর চড়াও হয়। তাঁকে চেয়ার থেকে টানাহেঁচড়া করেন। এমনটাই অভিযোগ। মুহূর্তেই উত্তপ্ত হয়ে যায় অফিস চত্বর। এরপর চিৎকার চ্যাঁচামেচি শুনে তড়িঘড়ি করে পুরসভার কর্মীরা এসে উদ্ধার করেন রবীন্দ্রনাথ বাবুকে।

তারপর বিধায়কের দেহরক্ষীরা পুরসভার কর্মীদের সাহায্যে ওই মহিলাদের পুলিশের হাতে তুলে দেন। এই ঘটনায় পুরো হকচকিয়ে যান বর্ষীয়ান তৃণমূল বিধায়ক। তিনি জানান,তাঁর উপর হামলা হতে পারে এটা নাকি মাসখানেক আগে পুলিশ তাকে জানিয়েছিল। তবে এদিনের এই হামলা তাকে প্রাণে মারার জন্যে কিনা তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বললেন,ওই সংশ্লিষ্ট মহিলার নিজেদের পরিচয় গোপন করেই এদিন সাহায্য চাইতে অফিসে এসে তাঁর উপর হামলা করেছে। তবে পুলিশি তদন্তে ভরসা রেখেছেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র হয়ে থাকলেও তা প্রকাশ্যে অবশ্যই আসবে।

এ প্রসঙ্গে জেলা পুলিশের এক পদস্থ কর্তা জানালেন, গোয়েন্দারা আগেই সচেতন করেছিলেন যে কাটোয়ার বিধায়কের উপর শিলিগুড়ি থেকে যেকোনো এক দল হামলা করতে পারে। হামলাকারীদের দলে মহিলা থাকতে পারে বলেও জানিয়েছিলেন তাঁরা। আর সেজন্যেই কাটোয়া থানায় দুজন মহিলা পুলিশ কর্মীও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু মাধ্যমিক পরীক্ষা চলায় ওই দুই পুলিশ কর্মী তুলে নেওয়ার পরের দিনই এই অবাঞ্ছিত ঘটনাটি ঘটল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত,পুলিশ সূত্রের খবর থেকে আরো জানা গিয়েছে,পুরসভার তৃণমূল কংগ্রেসের বিতর্কিত কাউন্সিলার এই মুহূর্তে সংশোধনাগারে রয়েছে। জঙ্গল শেখ জেলে থাকার জেরে বিধায়কের উপর এই গোষ্ঠীর লোকেরা আক্রমণ করতে পারে বলেও খবর রয়েছে। তাই জঙ্গল শেখ নিয়েও সতর্ক রয়েছে পুলিশ। গত পুরসভার ভোটে জঙ্গল শেখের বাহিনীর দাপটে সন্ত্রস্ত ছিল কাটোয়াবাসী। তাই বিধায়কের উপর জঙ্গল শেখের দলবলের হামলা হতে পারে বলেই সম্ভাবনা করছিল পুলিশ।

আর সেজন্যেই তাঁর দেহরক্ষীও বাড়ানো হয়েছিল। কিন্তু তবুও হামলা আটকাতে না পারায় ঘটনায় বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে জেলা পুলিশ। তাছাড়া,সম্প্রতি কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসের খুনের ঘটনার পর বিধায়কদের দেহরক্ষী বাড়ানোর ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেজন্যে কাটোয়া পুরসভা অফিসে বিধায়কের নিরাপত্তার জন্য আরো ছ’জন দেহরক্ষী বাড়ানো হয়। এই ছ’জনের মধ্যে আবার দুজন মহিলা পুলিশ কর্মী। কিন্তু মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য ১৫ দিন আগে পুরসভা থেকে ওই দুই মহিলা পুলিশ কর্মীকে তুলে নেওয়ার পর এই ঘটনা হওয়ায় রীতিমতো উদ্বেগ প্রকাশ করেছে পুলিশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!