এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > তৃণমূল বিধায়ককের হেনস্থা, অভিযোগের তীর বিজেপির বিরুদ্ধে-দেখে নিন ভিডিওতে

তৃণমূল বিধায়ককের হেনস্থা, অভিযোগের তীর বিজেপির বিরুদ্ধে-দেখে নিন ভিডিওতে

ফের তৃণমূল বিধায়ককের হেনস্থার খবর প্রকাশ্যে আসলো। অভিযোগের আঙুল উঠেছে বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাস্থল পুরুলিয়া। ১ মিনিট ১৭ সেকেন্ডের সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিওতে সাফ দেখা যাচ্ছে, পুরুলিয়ার তৃণমূল বিধায়ক উমাপতি বাউড়িকে একদল যুবক আঙুল দেখিয়ে শাসাচ্ছে। শুধু এটুকু করেই ক্ষান্ত হয়নি,রীতিমতো ঘাড় ধাক্কা দিয়ে রঘুনাথপুর এক নম্বর ব্লকের মৌতোড়- মঙলদা গ্রাম পঞ্চায়েতের খাটরা কালিমন্দিরে ঢোকানো হয়। এই অবস্থার সম্মুখীন হয়ে খানিক হকচকিয়ে যান তৃণমূল বিধায়ক।এক যুবককে তো এটাও বলতে শোনা যায়,’আপনার পুলিশকে ডাকুন। আমাদের লোককে কিনতে এসেছেন?’

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

জেলা সূত্রের খবর থেকে জানা গেছে,নিজের গাড়ি করেই  দলীয় কাজে মৌতোড়-মঙ্গলদা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় গিয়েছিলেন তিনি। তাই সঙ্গে দেহরক্ষী ছিল না তাঁর। ফলত সুযোগ বুঝে সেইসময়ই গাড়ি থেকে নামিয়ে হেনস্থা করা হয় তাকে। রবিবার রাতেই রঘুনাথপুর থানায় স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

তবে অভিযোগের দায় একেবারেই স্বীকার করতে নারাজ পুরুলিয়া জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। এমনকি পাল্টা দোষের বোঝাও চাপালেন আক্রান্ত তৃণমূল বিধায়কের উপর।   রঘুনাথপুর দু’নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির দলের জয়ী সদস্য কালীচরণ বাউড়িকে ‘টাকা’ দিয়ে কিনতে এসেছিলেন শাসকদলের বিধায়ক। দলীয় কর্মীরা প্রতিবাদ করেছেন কেবল। হেনস্থার কোনো ঘটনাই ঘটেনি বলে দাবী জেলা বিজেপির। ওদিকে বিরোধীদের অভি্যোগও তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিলেন তৃণমূল বিধায়ক উমাপতি বাউড়ি।

বিজেপির জয়ী সদস্যকে জোর করে যোগদান করানোর অভিযোগ তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে

প্রসঙ্গত, পুরুলিয়ার পাড়ার বিধানসভাকেন্দ্রেরই অন্তর্গত রঘুনাথপুর দু’নম্বর ব্লক। এই পঞ্চায়েত সমিতি ছিল তৃণমূলের দখলে। কিন্তু এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে ১৩ টি আসন পেয়ে হার হয়েছে শাসকদলের। অন্যদিকে ১৬ টি আসন পেয়ে বিজেপি এলাকায় জয়ের ঝান্ডা উড়িয়েছে । বিজেপির অভি্যোগ, হার সহ্য করতে না পেরে পঞ্চায়েতের জয়ী সদস্যদের টাকা দিয়ে কিনতে গিয়েছিলেন তৃণমূল বিধায়ক উমাপতি বাউড়ি। বিজেপির জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর বক্তব্য, পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফলের পর থেকেই  হীন কাজ করে যাচ্ছে তৃণমূল। কখনো ভয় আবার কখনো প্রলোভন দেখিয়ে বিরোধীদের জয়ী প্রার্থীদের হাত করার চেষ্টা করেই চলেছে। যদিও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তারা সফল হচ্ছে না। যেমন এদিন হলেন না। এর পাশাপাশি এটাও জানালেন,সাধারণ মানুষ এসবের সাক্ষী থাকছে। পঞ্চায়েত নির্বাচনের মতো লোকসভা ভোটেও তৃণমূল কংগ্রেস যোগ্য জবাব পাবে। কিন্তু পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের গলায় অাবার ভিন্ন সুর। তাঁর দাবী,পরিকল্পিত ছক করেই বিজেপির কর্মী সমর্থকরা হামলা করেছিল। এবং তৃণমূলের তরফ থেকে এই হেনস্থার জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে বলেই জানালেন  পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!