এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > এক পেত্নীতেই আমাদের দফারফা আর সারাদেশ থেকে আবার ভুত-প্রেত এসছে দাবি রাহুল সিনহার

এক পেত্নীতেই আমাদের দফারফা আর সারাদেশ থেকে আবার ভুত-প্রেত এসছে দাবি রাহুল সিনহার

Priyo Bandhu Media

মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে ফের একবার অশ্লীল একমন করলেন রাহুল সিনহা ,এদিন অমিত শায়ের শাহের সভা থেকে ব্রিগেডে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে জানানলেন যে, সাধারণ মানুষ বলছে যে ,এক পেত্নীতেই আমাদের দফারফা আর সারাদেশ থেকে আবার ভুত-প্রেত এসছে .

এদিন তৃণমূলকে অখ্যাত নেনে তিনি। জানান যে সাংবাদিকরা জিজ্ঞাসা করছেন যে, রাহুল বাবু প্রথম সভা কেন মালদা থেকে শুরু করছেন ?

আমি বলেছি এখন থেকে গঙ্গার শুরু তাই তৃণমূলকে বঙ্গোপসাগরে ভাসিয়ে দিয়ে মালদা থেকে সভা করতে এসেছি আমরা। অমিত শাহ জি আয়া তৃণমূল গায়া। এরপর বলেন যে, যাতে অমিত শাহজী না সভা করতে পারেন তার জন্য সভার অনুমতি না দেওয়া থেকে শুরু করে হেলিপ্যাডের অনুমতি না দোয়া অনেক কান্ড করেছেনকিন্তু আটকাতে পারেন নি। সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হবার পরও অমিত জি আসছেন।

এর পরেই তৃণমূলের ব্রিগেড নিয়ে বেলন যে, আমাদের মোদিজীর অমিত শাহজির ভয়ে সারাদেশ থেকে লোক এখানে নিয়ে এলো বড় বড় নেতাদের আনা হলো নিজের সামর্থ্য নেই। নিজের ডাকে একটা বড় ব্রিগেড করা সেই কারণে সারা দেশ থেকে নেতা ধার করে আনা হলো .

এর পরেই বলেন যে, বাংলার মানুষ বলছে এক পেত্নীতেই আমাদের দফারফা আর সারাদেশ থেকে আবার ভুত-প্রেত এসছে। তবে যায় করুক রক্ষা করতে পারবে না। যারা ব্রিগেড ডেকেছে তারা পশ্চিমবাংলা থেকে একটা ভোটও পাবে না। এবার লড়াই তৃণমূল বনাম বিজেপির।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এর পর বলেন যে, মেরে আঙ্গনে মে ঘাসফুল কা কেয়া কাম হে। বিদায় করুন ঘাসফুল কে সারা বাংলা থেকে। আজকের তিনটে রাজ্যে আর পাঁচটা রাজ্যে নির্বাচন হলো এক জন লোক মারা যায়নি। কিন্তু পশ্চিম বাংলার স্থানীয় নির্বাচন পঞ্চায়েত নির্বাচনে দেড়শ লোক মারা গেছে। লজ্জায় মমতার মাথা নিচু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বড় বড় কথা বলছে। বাংলায় একটা প্রবাদ আছে – ‘চোরের মায়ের বড় গলা।’ আমি বলছি ধোনির মায়ের বড় গলা। পরেই আবার বলেন মা নোই দিদি ধোনির দিদির বড় গলা।

এরপর দাবি করেন যে আজকে মমতা ঠেলায় পড়ে আর আল্লাহর নাম নিচ্ছে না। এখন ঠেলায় পড়ে এখন দেবদেবীর নাম নিচ্ছে। যে ঠেলায় পড়ে আল্লাহর নাম ছেড়ে দিতে পারে তাকে ছেড়ে দিয়ে নরেন্দ্র মোদির কাছে আসুন। নরেন্দ্র মোদি বেলন 25 কোটি মানুষ আমাদের মানুষ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!