এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে দল ছেড়ে বিজেপিতে মমতার চার সৈনিক, জোর জল্পনা

তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে দল ছেড়ে বিজেপিতে মমতার চার সৈনিক, জোর জল্পনা

Priyo Bandhu Media


লোকসভা ভোটে নিজেদের লক্ষ্য পূরণ করেছে গেরুয়া শিবির। শাসক দল তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে বাংলা থেকে 18 টি আসন নিজেদের দখলে রেখেছে তারা। আর বাংলায় বিজেপির এই শক্তি বৃদ্ধিতে এখন নাভিশ্বাস উঠতে শুরু করেছে তৃণমূলের তোপসিয়া ভবনের ম্যানেজারদের। শুধু ভোটব্যাঙ্ক বাড়লে ঠিক ছিল, কিন্তু এবার ফলাফল প্রকাশের পর সেই ভোটব্যাঙ্ক বৃদ্ধির সাথে সাথে দলীয় জনপ্রতিনিধিরাও যেভাবে পদ্ম শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেছেন, তাতে প্রবল অস্বস্তিতে ঘাসফুল শিবির।

ইতিমধ্যেই প্রায় একাধিক বিধায়ক এবং বিভিন্ন পৌরসভার কাউন্সিলররা বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন। এমনকি বাংলায় যেভাবে সাত দফায় নির্বাচন হয়েছে, সেই সাত দফাতেই তৃণমূলকে ভেঙে চুরমার করে দেওয়া হবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। আর এরই মাঝে এবার তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গ ত্যাগ করে বিজেপিতে নাম লেখালেন শাসকদলের চার হেভিওয়েট নেতা।

সূত্রের খবর, সম্প্রতি কালনার সহজপুর বাজারের কাছে এক অনুষ্ঠানে কালনা 1 ব্লকের তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক ও পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সদস্য মিলন ঘোষ, সম্পাদক এবং কাকুরিয়া পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান আয়ুব শেখ, বেগপুর পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান মারফত আলী শেখ এবং কাকুরিয়া পঞ্চায়েতের প্রাক্তন সদস্য সুব্রত মাজিলা গেরুয়া শিবিরে যোগদান করেছেন। কিন্তু কেন তারা হঠাৎ তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন!


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে দলবদলকারী নেতাদের দাবি, তৃণমূলের রন্ধ্রে রন্ধ্রে দুর্নীতি ভরে গিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী যেভাবে সারা দেশজুড়ে উন্নয়ন চালাচ্ছেন, তাতে অনুপ্রাণিত হয়েই তারা বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। এদিকে তৃণমূলের পুরনো সৈনিকের বিজেপিতে যোগদানে এখন অনেকটাই উজ্জীবিত গেরুয়া শিবির।

অপরদিকে প্রবল হতাশায় ভুগতে শুরু করেছেন শাসক দল। তবে বিজেপির অবশ্য দাবি, এখানেই শেষ নয়। চমক আরও বাকি রয়েছে। ধাপে ধাপে শাসক দল ছেড়ে বিজেপিতে আরও অনেক হেভিওয়েট নেতারা যোগদান করবেন। অন্যদিকে তৃণমূলের বক্তব্য, দলে সর্বময় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার সততা এবং উন্নয়ন নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। যারা লোভী এবং রাজনৈতিক চরিত্রহীন তারাই এখন প্রলোভিত হয়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছে।

কিন্তু এতে তৃণমূলের কিছু যায় আসে না। তবে মুখে তৃণমূল নেতারা ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে যে কথা বলারই চেষ্টা করুন না কেন, বাস্তবে যেভাবে একের পর এক পুরনো সৈনিক এবং দলীয় জনপ্রতিনিধিরা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে চলেছেন, তাতে যে তাদের অস্বস্তি বাড়ছে বই কমছে না, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!