এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > দলীয় সহকর্মী খুনে আতঙ্কিত তৃণমূল নেতাদের ভয় কাটাতে সশস্ত্র পুলিশ পাহারার ব্যবস্থা!

দলীয় সহকর্মী খুনে আতঙ্কিত তৃণমূল নেতাদের ভয় কাটাতে সশস্ত্র পুলিশ পাহারার ব্যবস্থা!


 

কিছুদিন আগেই খুন হয়েছেন তৃণমূলের কুরবান শা। আর তারপর থেকেই রীতিমত সন্ত্রস্ত হয়ে রয়েছে গোটা এলাকা। তৃণমূল নেতার এই খুনে যেমন এলাকাবাসীরা ভীত, ঠিক তেমনই ভীত হয়ে রয়েছেন তৃণমূল নেতৃত্বরাও। আর এই পরিস্থিতিতে এবার কুরবান শার খুনের ঘটনার পর পাঁশকুড়ার 5 তৃণমূল নেতাকে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে সশস্ত্র দেহরক্ষী দেওয়া হল।

জানা গেছে, পাঁশকুড়া পৌরসভার চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান, তৃণমূলের রাজ্য কমিটির সদস্য, জেলা পরিষদের কর্মাধক্ষ এই নিরাপত্তা পাওয়ার তালিকায় রয়েছেন। একাংশের দাবি, কুরবান শার খুনের পর তৃণমূল নেতারা অনেকেই ভয়ে রয়েছেন। তাদের নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে তারা আতঙ্কিত। আর তাইতো এবার তাদের আবেদনের ভিত্তিতে তাদেরকে সশস্ত্র নিরাপত্তা রক্ষী দেওয়া হল।

বস্তুত, গত 7 অক্টোবর পাঁশকুড়ার মাইশোরায় খুন হন তৃণমূলের কুরবান শা। যার পরেই পাঁশকুড়া, শহীদ মাতঙ্গিনী, কোলাঘাট সহ বিভিন্ন এলাকার বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতা দেহরক্ষী পাওয়ার জন্য জেলা পুলিশের কাছে আবেদন করেন। আর সেই আবেদনের ভিত্তিতেই এদিন 5 তৃণমূল নেতাকে নিরাপত্তারক্ষী দেওয়া হলো বলে খবর। আর এই নিরাপত্তারক্ষী পাওয়ার তালিকায় রয়েছেন নিহত নেতা কুরবান শার দাদা আফজাল আলি শাও।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

বিশ্লেষকরা বলছেন, কুরবান শার মত তৃণমূল নেতা খুনের ঘটনায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বই দায়ী। ইতিমধ্যেই এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় যারা যারা গ্রেপ্তার হয়েছেন, তাদের মধ্যে একজন পাঁশকুড়া ব্লক তৃণমূলের সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি। ফলে এই পরিস্থিতিতে তৃণমূল গোষ্ঠীদ্বন্দ্বর জন্যই কুরবান শা খুন হয়েছে, তানা মানতে চাইলেও, তৃণমূল নেতার নিরাপত্তারক্ষী দেওয়ার ঘটনাতেই যে এলাকার তৃণমূল নেতারা অত্যন্ত আতঙ্কিত, তা একপ্রকার স্পষ্ট হয়ে গেল বলে দাবি একাংশের।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, একদিকে বিজেপির বাড়বাড়ন্ত, অন্যদিকে নিজেদের গোষ্ঠী কোন্দল – দুই দিক থেকেই তৃণমূল এখন মহা সমস্যায় রয়েছে। তাই কুরবান শার খুনের পর এই এলাকার তৃণমূল নেতারা প্রবল আতঙ্কিত হওয়াতেই এবার তাদের নিরাপত্তারক্ষী দেওয়া হল। কিন্তু এতসব করেও সমস্যা মিটবে কি, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!