এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > জল্পনা বাড়িয়ে তৃণমূলের “লোভী” নেতাদের ব্যবসা বন্ধ করে দেওয়ার চরম হুমকি দলেরই দাপুটে সাংসদের

জল্পনা বাড়িয়ে তৃণমূলের “লোভী” নেতাদের ব্যবসা বন্ধ করে দেওয়ার চরম হুমকি দলেরই দাপুটে সাংসদের

 

2011 সালে সুশাসনের স্বপ্ন দেখিয়ে ক্ষমতায় বসে ছিল তৃণমূল সরকার। তারপর অনেক জল গড়িয়ে গিয়েছে। কিন্তু মা-মাটি-মানুষের সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীদের তরফ থেকে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগ কিন্তু কমেনি। পঞ্চায়েত প্রধান থেকে জেলা পরিষদের কর্মাধক্ষ, পৌরসভার চেয়ারম্যান থেকে ওয়ার্ডের কাউন্সিলর, প্রায় তৃণমূলের সব স্তরেই দুর্নীতি বাসা বেধেছে বলে দাবি করতে দেখা গেছে একাংশকে।

এমনকি দুর্নীতির কারণেই সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ফলাফল খারাপ হয়েছে বলে দাবি রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। আর এই পরিস্থিতিতে দলকে স্বচ্ছ ভাবমূর্তির করতে যখন তৃণমূলের তরফে নানা কর্মসূচি দেওয়া হচ্ছে, ঠিক তখনই দলের একাংশ “ব্যবসা ফেঁদে বসেছেন” বলে শাসকদলের অস্বস্তি বাড়িয়ে দিলেন তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী।

সূত্রের খবর, শুক্রবার সন্ধ্যায় মারিশদা এলাকায় কাঁথি 3 ব্লকের পাট্টা বিলির অনুষ্ঠান উপলক্ষে সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা কাথির তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী। আর এই সভা থেকেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে রীতিমতো বিস্ফোরক ও দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে দেওয়ার মত মন্তব্য করেন শিশিরবাবু।

তিনি বলেন, “বাঙালি বরাবর সত্যনিষ্ঠ। কিন্তু এখন সকলেই প্রতিযোগিতায় নেমেছে। তাই ন্যায় এবং সত্য প্রতিষ্ঠার জন্য সকলের সহযোগিতা চাই। সরকারি কর্মচারী এবং জনপ্রতিনিধিদের স্বচ্ছভাবে কাজ করতে হবে। আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন, যারা সাংসদ, বিধায়ক, পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলাপরিষদছর শংসাপত্র নিয়ে ব্যবসা করে খাচ্ছেন। তাদের ব্যবসা বন্ধ করে দেব। তার জন্য যত দূর যেতে হয় যাব।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অবশেষে অপ্রিয় সত্যটখ নিজের মুখ থেকে বের করে দিলেন শিশিরবাবু। দলের এই প্রবীণ নেতা ভালোই উপলব্ধি করতে পেরেছেন যে, তৃণমূল স্তরে অনেক নেতাকর্মীর উদ্ভব ঘটেছে, যারা শুধুমাত্র ব্যবসা করে দলের ক্ষতি করছেন। আর তাইতো তিনি তাদের ডানা ছাটতেই এই ধরনের মন্তব্য করে পরোক্ষে সেই সমস্ত ব্যক্তিদের সতর্ক করে দিলেন বলে দাবি সমালোচক মহলের।

তবে নিজের দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে দেওয়ার মত শিশিরবাবুর এই মন্তব্যকে হাতিয়ার করে তৃণমূলকে খোঁচা দিতে ছাড়ছে না বিরোধীরা। এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপির সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী বলেন, “ওনার বক্তব্য, বিড়াল বলে মাছ ছুইনা প্রবাদের মত। তৃণমূলের আমলে যা কিছু হয়েছে, সবই দুর্নীতি। এখন এসব বলে লাভ হবে না।”

এদিকে এই প্রসঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সিপিএমের সম্পাদক নিরঞ্জন সিহি বলেন, “আগে গোটা জেলার কাটমানি একটা পরিবারের হাতে যেত। কিন্তু এখন শাসকদলের জনপ্রতিনিধিরা নিজেদের যোগ্যতা অনুযায়ী পকেটে পুরে নিচ্ছেন। তাই এসব কথা বলা হচ্ছে।” তবে বিরোধীরা যাই বলুন না কেন, তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী একশ্রেণীর বাড়বাড়ন্তের জন্য যেভাবে মুখ খুলেছেন, তা অত্যন্ত সাহসিকতার ব্যাপার বলে দাবি করছেন একাংশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!