এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে মনোমালিন্যের জেরে তৃণমূল নেতার বাড়ি ঘিরে ব্যাপক বোমাবাজি! বাড়ছে উত্তেজনা

ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে মনোমালিন্যের জেরে তৃণমূল নেতার বাড়ি ঘিরে ব্যাপক বোমাবাজি! বাড়ছে উত্তেজনা

ফের তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল। এবার মালদহের রতুয়া ব্লকের চাঁদমনি গ্রামে তৃণমূল নেতার বাড়িতে ব্যাপক বোমাবাজির জেরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল। জানা গেছে, তৃণমূল পরিচালিত চাঁদমনি ওয়ান গ্রাম পঞ্চায়েতের কাজকর্ম এবং সেই কাজকর্মের ভাগবাটোয়ারা নিয়েই এলাকায় তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।

অনেকে বলছেন, বিগত লোকসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল নেতা তাজিবুর রহমানের সঙ্গে 100 দিনের কাজের চার লক্ষ টাকা নিয়ে তৃণমূলেরই অপর একটি গোষ্ঠীর চরম বচসা বাধে। মূলত লেবার পেমেন্ট নিয়ে স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যের সঙ্গে তৃণমূল নেতার বিবাদ বাধলে সেই সময়কার মত সেই গন্ডগোল স্তিমিত হয়ে গেলেও বৃহস্পতিবার এই নিয়ে ফের সংঘর্ষ তৈরি হয় দুই নেতার মধ্যে। আর যাকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

এদিন এই প্রসঙ্গে গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের বিরুদ্ধে সরব হয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতা তথা চাঁদমণি হাইমাদ্রাসার পরিচালন সমিতির সেক্রেটারি তাজিবুর রহমান বলেন, “গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের মধ্যে স্থানীয় এক পঞ্চায়েত সদস্য তার দলবল নিয়ে পরিকল্পিতভাবে বোমা গুলি নিয়ে আমার বাড়িতে হামলা করেছে। সেই সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না। সেই কারণে প্রাণে বেঁচে গিয়েছি। আমার বাড়ির দেওয়ালে বোমা মারা হয়েছে। পরিবারের সকলে আতঙ্কিত। থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। কি কারনে হামলা বলতে পারছি না। তবে যতটুকু জানি, মাদ্রাসার সেক্রেটারি হওয়ার পর থেকেই আমার প্রতি আক্রোশ বেড়েছে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে তাজিবুল সাহেব গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেও তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছেন এই চাঁদমণি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রবিউল ইসলাম। তিনি বলেন, “100 দিনের কাজের টাকা পেমেন্ট নিয়ে একটা গন্ডগোল হয়েছে। কিছু লোক তৃণমূলের আড়ালে অন্য দলের হয়ে কাজ করছে। দলকে এই বিষয়ে জানানো হয়েছে।” কিন্তু এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল যেভাবে প্রকাশ্যে এল, তাতে কি দল চাপে পড়ল না!

এদিন এই প্রসঙ্গে রতুয়া 1 ব্লক তৃণমূলের কনভেনার মহম্মদ হেসামুদ্দিন বলেন, “পঞ্চায়েতের কাজ নিয়ে একটা গন্ডগোল হয়েছে, সেখানে গিয়ে বিস্তারিত খোঁজ নেব। দলের ভাবমূর্তি যাতে নষ্ট না হয়, সেই বিষয়টি দেখা হবে।” তবে রাজনৈতিক মহলের একাংশ এই ব্যাপারে গোষ্ঠী কোন্দলের কথা তুললেও তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছেন মালদহ জেলা তৃণমূলের সভানেত্রী মৌসম বেনজির নূর।

এদিন তিনি বলেন, “চাঁদমণিতে তৃণমূলের কোনো গোষ্ঠী কোন্দল নেই। বোমাবাজি নিয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। যদিও কিছু হয়ে থাকে, তাহলে এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল জড়িত নয়।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!