এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > শাসকদলকে বড়সড় ধাক্কা দিয়ে বিজেপিতে যোগ হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার , জেনে নিন

শাসকদলকে বড়সড় ধাক্কা দিয়ে বিজেপিতে যোগ হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার , জেনে নিন

Priyo Bandhu Media

তৃণমূলকে বড়সড় ধাক্কা দিয়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা গঙ্গারামপুরের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রশান্ত মিত্র।তিনি বিপ্লব মিত্রের ভাই।

গত পরশু দাদা বিপ্লব মিত্রের অনুগামী হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে নাম লেখান গঙ্গারামপুরের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রশান্ত মিত্র।এনআরসি সহ একাধিক বিষয়ে রাজ্যের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নেতৃত্বাধীন তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলেন সর্বভারতীয় বিজেপি সভাপতি তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। আর এই মঞ্চ থেকেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার কথা ছিল হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্তের।

তবে গঙ্গারামপুর পৌরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রশান্ত মিত্রও এই সভা থেকেই গেরুয়া শিবিরে যোগদান করবেন বলে জানা যায়। সেই মোতাবেক মঞ্চ থেকে তার নাম ডাকা হলেও মঞ্চে উঠতে দেখা যায়নি প্রশান্তবাবুকে। পরবর্তীতে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের হাত থেকে দলীয় পতাকা নিজের হাতে তুলে নেন প্রশান্ত মিত্র।

এদিন এই বিষয়ে প্রাক্তন গঙ্গারামপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান প্রশান্ত মিত্র জানিয়েছেন, কলকাতায় যানজটের মধ্যে পড়ে গিয়েছিলাম। তাই কর্মসূচিতে ঢুকতে দেরি হয়ে গেছে। তারপরে ব্যাপক ভিড় থাকার কারণে স্টেজে উঠতে পারিনি। নিজের মধ্যে আক্ষেপ রয়ে গেল।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত লোকসভা নির্বাচনে অর্পিতা ঘোষকে প্রার্থী করার প্রবল বিরোধিতা নেত্রীর কাছে জানান তৃণমূলের এই প্রাক্তন জেলা সভাপতি। তবে অর্পিতাদেবীকে প্রার্থী করার ব্যাপারে অনড় ছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই পরবর্তীতে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদারের কাছে অর্পিতা ঘোষের পরাজয় ঘটলে বিপ্লব মিত্রের বিরুদ্ধে দল বিরোধীতার অভিযোগ জানিয়ে সরব হয়েছিল দক্ষিণ দিনাজপুরের একাধিক তৃণমূল নেতা।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এর পরেই দেরি না করে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জেলা সভাপতি পদ থেকে বিপ্লব মিত্রের বদলে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা সভাপতি হিসেবে অর্পিতা ঘোষের নাম ঘোষণা করেন। রাজনীতির আঙিনায় অভিজ্ঞ বলে পরিচিত বিপ্লব মিত্র সময় অতিবাহিত না করে জেলা পরিষদের 10 জন সদস্যকে নিয়ে দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়ে যোগদান করে ভারতীয় জনতা পার্টিতে।

আর এই যোগদানের পরেই গঙ্গারামপুর পৌরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান তথা বিপ্লব মিত্রের ভাই প্রশান্ত মিত্রকে দল থেকে বহিষ্কার করেন তৃণমূল কংগ্রেসের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ। শুধু বহিষ্কার করাতেই ক্ষান্ত থাকেননি, দক্ষিণ দিনাজপুর তৃণমূল সভানেত্রী অর্পিতা দেবী আস্থা ভোট করিয়ে গঙ্গারামপুর পৌরসভা চেয়ারম্যান পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছেন প্রশান্ত মিত্রকে।

আর এর পরেই গত পরশু দাদা বিপ্লব মিত্রের অনুগামী হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে নাম লেখান গঙ্গারামপুরের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রশান্ত মিত্র।যদিও এই নিয়ে তৃণমূলের দাবি ও তো কবেই চলে গেছে। আমাদের সঙ্গে থেকে আমাদের ক্ষতি করছিলো।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!