এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিধবাকে ধর্ষণ করে পালাল তৃণমূল নেতা, সব জেনেও নিশ্চুপ পুলিশ

বিধবাকে ধর্ষণ করে পালাল তৃণমূল নেতা, সব জেনেও নিশ্চুপ পুলিশ

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ভূপতিনগর থানার দক্ষিণ পূর্বচক গ্রামে স্থানীয় তৃণমূল নেতা দয়াল বাড়ুই’র বিরুদ্ধে এক বিধবা মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠলো। নিগৃহীত মহিলার বয়ান অনুয়ারী গত  ২১ শে মে গভীর রাতে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা তাঁর বাড়িতে ঢুকে তাঁর মুখে কাপড় বেঁধে ধর্ষণ করে। তারপরে ঐ মহিলার চিৎকার শুরু করলে অভিযুক্ত ব্যাক্তি ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। আওয়াজ শুনে পাড়া প্রতিবেশীরা উপস্থিত হলে ঐ মহিলা তাদের গোটা ঘটনাটা জানায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

পরদিন সকালে নির্যাতিতা মহিলা পার্শ্ববর্তী  ভূপতিনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এরপরে ঐ মহিলার দাবি অভিযোগ পাওয়ার পরে থানা থেকে পুলিশ তাঁর বাড়ি গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও এখনও অবধি তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এমনকি তাঁর শারীরিক পরীক্ষার নিয়েও যথেষ্ট গাফিলতি করা হচ্ছে। এতে করে প্রশ্রয় পেয়ে যাচ্ছে অভিযুক্ত। এই পরিস্থিতিতে তাঁকে খুনের হুমকি দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে কাঁথির মহকুমাশাসক ও কাঁথির অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের কাছে তিনি ডাকযোগে অভিযোগ জানিয়েছেন। কিন্তু তারপরেও প্রশাসন নিস্পৃহ। উল্লেখ্য ওই মহিলার স্বামী কয়েক বছর আগে মারা গিয়েছেন। বর্তমানে তিনি তাঁর একমাত্র  কন্যাসন্তানকে নিয়ে একা থাকেন। এই ঘটনা প্রসঙ্গে কাঁথি মহকুমা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইন্দ্রজিত্‍ বসু (গ্রামীণ) বললেন, ”বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কেন ভূপতিনগর থানা অভিযোগকারীর অভিযোগ খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি সেই বিষয়টাও আমরা খতিয়ে দেখছি।” অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস দলের স্থানীয় নেতৃত্বের তরফ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে । উলটে তারা দাবি করেছেন দলের বদনাম করার জন্যে বিরোধীরা এই ধরণের খবর তৈরী করে তা ছড়াচ্ছে। এই ঘটনার সাথে দলের কেউ কোনো ভাবেই জড়িত নয়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!