এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > তৃণমূল নেত্রী উদার বলেই ‘পার’ পেয়ে যাচ্ছেন দিলীপ ঘোষরা – দাবি যুবরাজের

তৃণমূল নেত্রী উদার বলেই ‘পার’ পেয়ে যাচ্ছেন দিলীপ ঘোষরা – দাবি যুবরাজের

অসমে জঙ্গিদের গুলিতে তিনসুকিয়ায় গনহত্যার প্রতিবাদে তোলপাড় গোটা রাজ্য। এই ঘটনাকেই ইস্যু করে তৃণমূল-বিজেপি একে অপরকে বাক্যবানে বিদ্ধ করতে তৎপর। লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি পর্বে পরস্পরের দিকে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি করেই যেন যুদ্ধের ক্ষেত্র প্রস্তুত করছে তাঁরা। এদিন পুরুলিয়ার জনসভা থেকেই বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণে গর্জে উঠতে দেখা গেল তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

বললেন,দিলীপবাবুরা যে ভাষায় কথা বলেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সে ভাষায় জবাব দিতে জানে। দলনেত্রী উদার। তাই পার পেয়ে যাচ্ছেন।’ সঙ্গে জুড়ে হুঁসিয়ারীতে দিয়ে জানালেন,’দলনেত্রী অনুমতি দিলে বিজেপির বি-ও থাকবে না, দিলীপের ডি-ও থাকবে না।’

একদিকে যখন তৃণমূলের প্রতিনিধিদল অসমে পৌছে গিয়েছেন গনহত্যায় নিহতদের পরিবারের পাশে দাঁড়াতে,তখন পুরুলিয়ার জনপথে ধিক্কার মিছিল করল তৃণমূল বিজেপি-রাজ্যে বাঙালি নিধনের প্রতিবাদে। মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন সাংসদ তথা যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মিছিল শেষ হওয়ার পর মঞ্চে দাঁড়িয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন বিজেপির প্রতি।

নিশানা করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে। তবে যাঁর বিরুদ্ধে এতো কড়া কথা বললেন তিনি,সেই দিলীপ ঘোষের তরফ থেকে এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে চুপ করে থাকার মানুষ তিনি নন,বিরোধীদের চাঁচাছোলা ভাষা কীভাবে যোগ্য জবাব দিতে হয় তা তাঁর ভালোই জানা আছে। সঠিক সময়েই তীর ছুঁড়বেন তিনি,এমনটাই মনে করছেন অভিজ্ঞমহল।

প্রসঙ্গত,এদিন সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়ান-এর নেতৃত্বে তৃণমূলের একটি প্রতিনিধিদল তিনসুকিয়ায় পাড়ি দেন নিহতদের পরিজনদের সঙ্গে দেখা করতে। প্রতিনিধি দলে মমতাবালা ঠাকুর,নাদিমুল হক এবং বিধায়ক মহুয়া মৈত্রও ছিলেন। শুধু নিহতদের পরিবারই নয়,আশেপাশের বেশ কয়েকজন বাঙালি পরিবারের সঙ্গেও দেখা করেন রাজ্যের শাসকদলের জনপ্রতিনিধিরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর এদিকে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদকে আরো জোরদার করতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ধিক্কার মিছিল বের করে দলীয় কর্মী-সমর্থকরা। ঘটনায় আদালতের হস্তক্ষেপও দাবী করেছেন যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি এদিন মিছিল শেষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাজ্যের পদ্ম নেতৃত্বকে হুমকিও দিয়ে দিলেন তিনি। তিনসুকিয়া কান্ডকে ইস্যু করে দুই প্রতিপক্ষের মধ্যে রাজনৈতিক তরজা বহুদূর গড়াবে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহালমহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!