এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার নিজের ভাইয়ের স্ত্রীকেই শ্লীলতাহানী ও রড দিয়ে পেটানোর অভিযোগ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে

এবার নিজের ভাইয়ের স্ত্রীকেই শ্লীলতাহানী ও রড দিয়ে পেটানোর অভিযোগ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে

রাজনীতি কি সত্যিই বিষাক্ত! যার কারণে নিজের পরিবারের প্রতি আঘাত নামিয়ে আনতেও সঙ্কোচ বোধ করেন না এই রাজনীতির কারবারিরা! মুম্বইয়ে পারিবারিক বিবাদের জেরে ঘরে ঢুকে ভাইয়ের স্ত্রীকে শ্লীলতাহানী করার পাশাপাশি লোহার রড দিয়ে মারধরের ঘটনায় এক তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠায় এই প্রশ্নই উঠতে শুরু করল।

জানা যায়, গত 13 বছর আগে সেই অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মীর ভাই কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় বাড়ির অমতে গিয়ে প্রেম করে ছন্দা গঙ্গোপাধ্যায়কে বিয়ে করেন। আর তারপর থেকেই সেই ছন্দাদেবীর উপর তার শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা শারীরিক ও মানসিক ভাবে অত্যাচার চালায় বলে অভিযোগ ওঠে।

বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে না গেলে তাকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে বলে ছন্দাদেবীকে হুমকি দেওয়া হলে তিনি পাশেই পৃথক বাড়ি তৈরি করে সেখানে থাকতে শুরু করেন। কিন্তু গত 3 আগস্ট সেই কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের মেজদা তৃণমূল নেতা উৎপল গঙ্গোপাধ্যায় কৌশিকবাবু এবং তার স্ত্রীকে মারতে আসে। প্রাণ ভয়ে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় পালিয়ে গেলেও তার স্ত্রীকে লোহার রড দিয়ে আঘাত করার পাশাপাশি শাড়ি ছিড়ে গলা টিপে ধরা হয়।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

আর এরপরই কৌশিকবাবুর স্ত্রী ছন্দা গঙ্গোপাধ্যায়ের চিৎকারে এলাকাবাসী জড়ো হয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে মুরারই হাসপাতালে নিয়ে যান। তবে আঘাত গুরুতর হওয়ায় বর্তমানে তাকে রামপুরহাট হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। জানা গেছে, রবিবার অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মী উৎপল গঙ্গোপাধ্যায়ের নামে তার ভাই কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় থানায় একটি এফআইআর দায়ের করেছেন। ইতিমধ্যেই সেই ঘটনার তদন্তও শুরু করা হয়েছে।

কিন্তু কেন তিনি এইভাবে ভাইয়ের স্ত্রীর ওপর আঘাত করলেন! এদিন এই প্রসঙ্গে উৎপল গঙ্গোপাধ্যায়কে ফোন করা হলে তিনি বলেন, “আমি এই ব্যাপারে কিছু জানি না। সম্পূর্ণ মিথ্যা অভিযোগ।” অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে মুরারই 1 ব্লক তৃণমূল সভাপতি বিনয় ঘোষ বলেন, “উৎপল ওই ধরনেরই ছেলে। এর আগেও বেশ কয়েকবার তার পারিবারিক বিবাদ মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরেও অশান্তি চলেছে। আইন আইনের পথে চলবে।” সব মিলিয়ে এবার ভাই বউকে আঘাত করায় তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হওয়ায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!