এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > শুভেন্দু গড়ে বিজেপির হানা, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ কর্মীদের

শুভেন্দু গড়ে বিজেপির হানা, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ কর্মীদের

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষমতায় আসা পর্যন্ত পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরি ছিল সিপিআইএম এর গড়। কিন্তু রাজ্যে পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে বদলাতে থেকে সবকিছু। এককালের সিপিআইএমের গড় আসতে আসতে হয়ে ওঠে তৃণমূলের গড়। কিন্তু রাজ্যে তৃণমূলের প্রভাব এড়িয়ে ক্রমশ ফুলে ফেঁপে উঠছে বিজেপি। রাজ্যে বিধায়ক নেতা ছাড়াও কর্মী সমর্থকরা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে।

এদিকে সেই ধারা অব্যাহত রেখে এদিন আসতে তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি খেজুরিতে থাবা বসলো বিজেপি। এদিন প্রায় ৩০০ তৃণমূলকর্মী যোগ দিলেন বিজেপিতে। খেজুরির পূর্বচড়ার বিজেপি পার্টি অফিসে যোগদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। তবে শুধু তৃণমূল ছেড়েও নয় এদিন সিপিআইএম ছেড়েও প্রায় ১৫ জন কর্মী বিজেপিতে যোগদান করেন। এদিন যোগদানকারীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন জেলার সাংগঠনিক সভাপতি তপন মাইতি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

বিজেপিতে যোগ দিয়ে এদিন তৃণমূল থেকে আসা নেতা কর্মীরা জানান যে, তৃণমূলে সর্বদা গোষ্ঠীকোন্দল লেগে আছে। পুরনো নেতাকর্মীদের গুরুত্ব নেই। নেতা কর্মীরা সব দুর্নীতিগ্রস্থ। দলে গণতন্ত্র নেই। ফলে একপ্রকার বীতশ্রদ্ধ হয়েই দলত্যাগ করেছি।পাশাপাশি এও জানান যে, রাজ্য ও দেশের জন্য কাজ করার লক্ষেই বিজেপিতে যোগদান করেছেন। আর এদিন সিপিআইএম থেকে আসা কর্মীরা জানান যে, তাঁরা মোদির উপর আস্থা রেখেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

এদিকে এই নিয়ে বিজেপি নেতা তপন মাইতি জানান যে, মানুষ বিজেপিকে চাইছেন। তৃণমূলের অপশাসনে তাঁরা বিরক্ত। তাই বিজেপির হাত ধরছেন। আমরা তাঁদের প্রত্যাশা পূরণ করব। শুভেন্দু গড়ে এহেন বিজেপির হানা সিধুরে মেঘ দেখছে রাজনৈতিক মহল। যদিও এই নিয়ে এখনো পর্যন্ত তৃণমূলের তরফ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!