এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > ফের তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে সভাপতির বিরুদ্ধে মন্ত্রীর দ্বারস্থ

ফের তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে সভাপতির বিরুদ্ধে মন্ত্রীর দ্বারস্থ

জলপাইগুড়িতে শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব যত দিন যাচ্ছে, ততই বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। এবার জলপাইগুড়িতে তৃণমূলের অন্দরে অন্তর্দ্বন্দ্ব চরম আকার ধারণ করেছে। সূত্রের খবর, তৃণমূলের নতুন জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে মন্ত্রীর কাছে ক্ষোভ দেখিয়ে গেলেন ময়নাগুড়ি তৃণমূল বিধায়ক সহ ব্লক-সভাপতিরা। সূত্রের খবর, এদিন এই বিষয়ে জলপাইগুড়ি সার্কিট হাউসে পর্যটন মন্ত্রীর সাথে বৈঠক করলেন তৃণমূলের নতুন ব্লক কমিটি থেকে বাদ পড়া ব্লক সভাপতিরা। আর সেই বৈঠক শেষেই ক্যামেরার সামনে জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে রীতিমতো ক্ষোভ উগড়ে দিতে দেখা গেল তাদের।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বস্তুত,
তৃণমূলে বাদ পড়া ১৫ জন সাংগঠনিক ব্লক-সভাপতিদের সাথে সার্কিট হাউসে বৈঠক করেন দলের কোর-কমিটির চেয়ারম্যান তথা মন্ত্রী গৌতম দেব। আর সেখানেই ব্লক সভাপতিরা প্রশ্ন তোলেন, কেন তাদের সাথে আলোচনা না করে নতুন সভাপতি বাদ দেওয়া হয়েছে! কেন তাদের অস্বচ্ছ বলা হচ্ছে! এদিন এই প্রসঙ্গে গৌতম দেব তাদের আশ্বস্ত করে দ্রুত প্রদেশের সাথে কথা বলার আশ্বাস দিয়েছেন। এদিন এই প্রসঙ্গে
তৃণমূলের জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি কৃষ্ণ কুমার কল্যানী বলেন, “যাদের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ নয়, যাদের বিরুদ্ধে কাটমানি বা বিভিন্ন সিন্ডিকেট চালানোর অভিযোগ আছে। তাদের জন্য দল লোকসভা ভোটে হেরেছে। তাই তাদের বাদ রাখা হয়েছে।” সব মিলিয়ে এবার প্রকাশ্যে জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে মন্ত্রীর কাছে অভিযোগ জানালেন দলেরই একাংশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!