এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল, সাংবাদিক বৈঠক করে দলের নেতাদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার

প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল, সাংবাদিক বৈঠক করে দলের নেতাদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি হওয়ার পরই বিভিন্ন জেলার সংগঠনে রদবদল করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার মধ্যে অন্যতম পশ্চিম বর্ধমান জেলা। এখানে এতদিন জেলা তৃণমূলের সভাপতি হিসেবে ভি শিবদাসন দাশু তার দায়িত্ব সামনে আসলেও এই জেলার আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রটিতে জয়লাভ করতে না পারায় তাকে দলের সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

আর সেই জায়গায় দায়িত্ব দেওয়া হয় আসানসোলের মেয়র তথা তৃণমূল নেতা জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে। আর তারপর থেকে গোটা জেলা জুড়ে জেলা সভাপতি পদ থেকে‌ ভি শিবদাসন দাশুকে সরিয়ে দেওয়ায় তার অনুগামীরা কিছুটা হলেও ক্ষুব্ধ হন। তবে এতদিন এই ব্যাপারে কোনোরূপ মন্তব্য করেননি সেই শিবদাসন দাশু।তবে এবার সাংবাদিক বৈঠকে প্রথম মুখ খুলে জেলা তৃণমূলের একাধিক নেতার বিরুদ্ধেই তোপ দাগতে দেখা গেল তাকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান ভি শিবদাসন দাশু বলেন, “আমার কাছে বারবার ফোন আসছে। ফোন করে বলছে জামুড়িয়ায় আমার সভায় নাকি ঝামেলা হয়েছে। আমার মনে হচ্ছে, আমার দলের কোনো নেতা মিডিয়ার সঙ্গে হাত মিলিয়ে আমার 34 বছরের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারকে শেষ করতে চাইছে।”

শুধু তাই নয়, এদিন জেলার এক শীর্ষ নেতাকে আক্রমন করে ভি শিবদাসন দাশু আরও বলেন, “আমার কারো কোনোও সার্টিফিকেটের দরকার নেই। আমি দলকে মজবুত করতে এসেছি। আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লোক। আমার কাজ প্রত্যেককে একসাথে নিয়ে চলা। আর আমি সেটাই করছি।” আর পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সদ্য প্রাক্তন সভাপতির এই মন্তব্যেই এবার রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে জোর চাঞ্চল্য।

অনেকে বলছেন, ভোটের ফলাফল খারাপ হওয়ার পর সভাপতি পদ থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ায় ও জিতেন্দ্র তিওয়ারির হাতে দায়িত্ব দেওয়ায় জেলা তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আরও বেড়েছে। আর তাই কি এবার জেলার শীর্ষ নেতাদের উদ্দেশ্যে তার বিরুদ্ধে চক্রান্তের অভিযোগ তুললেন ভি শিবদাসন দাশু! প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!