এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা বিজেপিতে যোগ দিতেই দলবদল বিজেপি কর্মীদের, সরগরম রাজ্য রাজনীতি

তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা বিজেপিতে যোগ দিতেই দলবদল বিজেপি কর্মীদের, সরগরম রাজ্য রাজনীতি

রাজ্যে যখন দলবদলের ব্যাপক হিড়িক চলছে, যখন একের পর এক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করছেন এবং তাকে ঘিরে উৎসাহী হচ্ছে গেরুয়া শিবিরের কর্মী সমর্থকরা, ঠিক তখনই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় যেন বিপরীত চিত্র লক্ষ্য করা গেল। বস্তুত, কিছুদিন আগেই এই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি বিপ্লব মিত্র দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়ে গেরুয়া শিবিরে যোগ দেন।

আর এরপরই বিপ্লব মিত্র জেলায় তৃণমূল এখানে ভেঙে চুরমার হয়ে যাবে বলে দাবি করেন তার অনুগামীরা। অবশেষে গত শনিবার দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় ফেরেন বিজেপি নেতা বিপ্লব মিত্র। কিন্তু বিপ্লববাবু জেলায় ফেরার সাথে সাথেই এই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুরে যেন উল্টো চিত্র দেখা গেল।

প্রসঙ্গত, সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে সন্ত্রাসের হাত থেকে নিজেদের বাঁচাতে গঙ্গারামপুরের সুকদেবপুর এলাকার প্রচুর বাম কর্মী-সমর্থক বিজেপিতে যোগদান করেন। ফলে এখানে বামেদের সংগঠনে অনেকটাই ধ্বস নামে। কিন্তু এবার বিপ্লব মিত্র বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় সেই বামপন্থী সমর্থকরা তাদের পুরনো দলে ফিরে এলেন।

সূত্রের খবর, রবিবারই সেই বিজেপিতে যোগ দেওয়া সিপিএমের কর্মী-সমর্থকরা ফের সিপিএমে যোগ দেন। যেখানে তারা সুকদেবপুরের বন্ধ পার্টি অফিস খুলে ফের সেই জায়গায় দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

যেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা দক্ষিন দিনাজপুর জেলা সিপিএমের সম্পাদক নারায়ণ বিশ্বাস, মানবেশ চৌধুরী, অচিন্ত্য চক্রবর্তী সহ গঙ্গারামপুরের নেতৃত্বরা। কিন্তু যেখানে তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা কর্মীরা বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় বিজেপি আরও শক্তিশালী হচ্ছে, সেখানে কেন বিপ্লব মিত্রের মত দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তৃণমূলের একদা প্রভাবশালী নেতা গেরুয়া শিবিরে যোগ দেয়ায় তাদের নেতাকর্মীরা বিজেপি থেকে বেরিয়ে আবার তাদের ছাতার তলায় এলেন!

এদিন এই প্রসঙ্গে সিপিএমের নারায়ণ বিশ্বাস বলেন, “যাদের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শুকদেবপুরের মানুষ বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন, সেই সন্ত্রাসীরাই বিজেপিতে যোগ দিয়েছে। বিপ্লব মিত্র এবং তার ভাইদের বিরুদ্ধে মানুষের প্রতিবাদ ছিল। তাই বিপ্লব মিত্র বিজেপিকে যেতেই সকলে আবার নিজেদের হাতে লাল ঝান্ডা তুলে নিয়েছে। এর ফলে আমাদের সংগঠনের আরও শ্রীবৃদ্ধি ঘটল।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, এই বিপ্লব মিত্র তৃণমূলে থাকার সময় তার বিরুদ্ধে ব্যাপক সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠেছিল। আর তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় গেরুয়া শিবিরের অনেক কর্মী সমর্থকও তা ভালো চোখে নেননি।

আর এবার সেই বিপ্লব মিত্রের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে গত লোকসভা নির্বাচনে বাম থেকে অনেক নেতাকর্মী গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলে বিপ্লববাবু বিজেপিতে নাম লেখানোয় সেই রাজনৈতিক কর্মীরা তাদের হাতে লাল ঝান্ডা তুলে নেওয়ায় বিজেপির সংগঠন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় অনেকটাই ধাক্কা খেল বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!