এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > একে অন্যকে উৎখাতের ডাক দিল তৃণমূল-বিজেপি, রাজনৈতিক মহলে চাপানউতোর

একে অন্যকে উৎখাতের ডাক দিল তৃণমূল-বিজেপি, রাজনৈতিক মহলে চাপানউতোর

২১ জুলাই শহীদ দিবসের মঞ্চ থেকে বিজেপি বিরোধীতায় সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সময় তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন গেরুয়া শিবিরের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।
এদিন মুর্শিদাবাদের রেজিনগর ফুটবল মাঠে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেছিল বিজেপি। প্রশাসনের পক্ষপাত মূলক কার্যকলাপের বিরোধীতা করাই ছিল এই সভার প্রধান লক্ষ্য। বিজেপি-র পক্ষ থেকে সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাজ্যস্তরের নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়, সদ্য বিজেপি-তে যোগ দেওয়া হুমায়ুন কবীর প্রমুখ। এদিনের সভা থেকে দিলীপ ঘোষ রাজ্যের শাসন ক্ষমতা থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে নিশ্চিহ্ন করার

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি রাজ্য থেকেই উৎখাতের ডাক দিয়েছেন। এই ব্যাপারে তিনি বলেন, “মানুষের প্রতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশ্বাস থাকলে পঞ্চায়েত নির্বাচন সুষ্ঠ ভাবে করতে দিতেন। মানুষ তাঁকে ভোট দেবে না জানতেন। তাই জোর করে ভোট নিচ্ছেন।” একই সঙ্গে সদ্য সমাপ্ত পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের ৩৪ শতাংশ আসনে বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পারেনি বলে অভিযোগ করেন দিলীপ ঘোষ। এবং ৪২ শতাংশ মানুষ নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন নি বলে তাঁর দাবি।

এই অবস্থায় রাজ্যের শাসক দলকে কার্যত হুমকি দিয়েই বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, “২০১৯ সালে পশ্চিমবঙ্গে ভোট হবে ত্রিপুরা মডেলে। ত্রিপুরায় সিপিএমের যা হাল হয়েছে সেটাই এখানে তৃণমূলের হবে।” আরও বলেন, “২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচন পরিচালনা করবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। মানুষ সুষ্ঠভাবে ভোট দিতে পারবেন। আর সুষ্ঠ ভোট হলেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্ন ছেড়ে কালীঘাটে চলে যাবেন।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!