এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > খড়গপুরে তৃণমূলে বড়সড় ভাঙ্গন, উচ্ছসিত গেরুয়া শিবির

খড়গপুরে তৃণমূলে বড়সড় ভাঙ্গন, উচ্ছসিত গেরুয়া শিবির

 

হাতে আর মাত্র কিছুদিন বাকি। তারপরেই অনুষ্ঠিত হবে রাজ্যের হেভিওয়েট কেন্দ্র খড়গপুর বিধানসভার উপনির্বাচন। ইতিমধ্যেই বিজেপির দখলে থাকা এই কেন্দ্র তৃণমূল নিজেদের দখলে রাখতে জোর প্রচার শুরু করে দিয়েছে। পাল্টা বিজেপির তরফে এতদিন দিলীপ ঘোষের কাজকর্মের কথা তুলে ধরে ভোট চাওয়া হচ্ছে। আর এই পরিস্থিতিতে বিজেপির কাছ থেকে এই কেন্দ্র নিজেদের দখলে নিতে যখন প্রতিমুহূর্তে চেষ্টা চালাচ্ছে ঘাসফুল শিবির, ঠিক তখনই তীব্র অস্বস্তিতে পড়ল তারা।

সূত্রের খবর, সোমবার খড়্গপুরের বিজেপির প্রার্থীর এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে দেখা যায় তৃণমূলের 25 নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বেলারানী অধিকারীকে। যে ঘটনা এখন প্রবল অস্বস্তিতে ফেলেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। জানা গেছে, একসময় এই বেলারানী অধিকারী বিজেপিতে ছিলেন। তবে মাঝে তৃণমূল তাঁকে নিজেদের দলে টেনে নিয়ে বিজেপির অস্বস্তি বাড়িয়ে দিয়েছিল। কিন্তু এবার খড়গপুর বিধানসভা উপনির্বাচনের আগে বিজেপি প্রার্থীর প্রচারে সেই বেলাদেবীকে দেখা যাওয়ায় তৃণমূল যে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে পড়ল, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত রাজনৈতিক মহল। কেন তিনি বিজেপির প্রার্থীর এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হলেন?

এদিন এই প্রসঙ্গে বেলারাবি অধিকারী বলেন, “বিজেপি থেকে আমি কোনদিনই তৃণমূলে যাইনি। আমাকে নিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু আমার মনটাকে নিয়ে যেতে পারেনি। তাই তৃণমূলের কোনো অনুষ্ঠানে আমাকে দেখা যায়নি। আমি আমার ঘরে ফিরে এসেছি। এটাই আমার কাছে সব থেকে বড় ব্যাপার। ফিরে এসে খুবই ভালো লাগছে। কারন আমার পুরনো কর্মীরা খুবই কষ্ট পাচ্ছিল। আজ ওদের মুখে হাসি দেখে খুব ভালো লাগছে। ওদের জন্যই আমার এখানে আবার আসা।” এদিকে তাদের দলের কাউন্সিলর আবার তাদের দলে ফিরে আসায় উজ্জীবিত গেরুয়া শিবির।

 

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

 

 

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দেগে জেলা বিজেপির সহ-সভাপতি গৌতম ভট্টাচার্য বলেন, “আমরা খুব খুশি। আমাদের ঘরের বোন আবার ঘরে ফিরে এসেছে। তৃণমূল কংগ্রেস ও প্রশাসনের লোকেরা জোর করে ওনাকে তৃণমূলের সঙ্গে কাজ করাতে বাধ্য করেছিলেন। আজ উনি আবার নিজের ঘরে ফিরে এসেছেন। আমরা দিদিকে দিদির মত সম্মান দিয়ে কাছে রাখতে চাই।” তবে বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে এই সমস্ত অভিযোগ করলেও তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছে ঘাসফুল শিবির।

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি নির্মল ঘোষ বলেন, “বেলারানী অধিকারী কোনদিনই মন থেকে তৃণমূলে যোগদান করেননি। সুযোগ সুবিধা নেওয়ার জন্য উনি তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। উন্নয়নমূলক কাজের নামে এলাকায় বদনাম করেছেন। তার হিসেব মানুষ চাইবে। সেই ভয়ে লোকসভা নির্বাচন থেকে গা ছাড়া ভাব দিতে শুরু করেন।”

তবে তৃণমূলের পক্ষ থেকে এখন এই সমস্ত দাবি করা হলেও বিশ্লেষকরা বলছেন, কেন বেলারানী অধিকারী তৃণমূলে থাকতে এই সমস্ত কিছু কথা তৃণমূলের মনে পড়েনি! এখন খড়গপুর বিধানসভা উপনির্বাচনের আগে সেই তিনি বিজেপিতে আশায় তৃণমূলের এই অভিযোগ কোনোভাবেই কাজে দেবে না বলে দাবি একাংশের। বরঞ্চ বেলারানী অধিকারীর তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ রাজ্যের শাসক দলকে অনেকটাই ব্যাকফুটে ফেলে দেবে বলে মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!