এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আন্দোলনের আবহে এক জায়গায় মিলে গেল তৃণমূল- বিজেপি-সিপিএম! কোথায় ঘটল, জানুন বিস্তারিত

আন্দোলনের আবহে এক জায়গায় মিলে গেল তৃণমূল- বিজেপি-সিপিএম! কোথায় ঘটল, জানুন বিস্তারিত

রাজ্য রাজনীতিতে তিন দলই পৃথক পৃথক অবস্থানে বিশ্বাসী। কিন্তু বঙ্গ রাজনীতিতে তারা একে অপরের বিপরীত মেরুতে অবস্থান করলেও শ্রমিকদের স্বার্থে কার্যত এক হতে দেখা গেল সেই তৃণমূল-বিজেপি এবং সিপিএমকে। সূত্রের খবর, ধুপগুড়ি ব্লকের চামুর্চি চা-বাগানে পাঁচজন চৌকিদারিকে ইতিমধ্যেই বিনা নোটিশে কাছ থেকে বসিয়ে দাওয়া হয়েছে।

আর তাদের কাজে ফিরিয়ে নেওয়া, শূন্য পদে নতুন করে শ্রমিক নিয়োগ, বকেয়া পিএফ গ্রাচুইটির টাকা দুটো মেটানো সহ মোট 12 দফা দাবিতে বৃহস্পতিবার সেই চা-বাগানে যৌথভাবে গেট মিটিং করতে দেখা গেল তৃণমূল-বিজেপি এবং সিপিএমকে। জানা গেছে, এদিনের এই কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন তৃণমূল নেতা গফর আনসারি, ধীরাজ রবিদাস, বিজেপির রাজু পন তাঁতি এবং সিপিএমের রশিদ আনসারী, রামলাল ওরাওরা।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন তারা বলেন, “বর্তমান বাগান ম্যানেজার শ্রমিকদের সঙ্গে ঠিকমতো ব্যবহার করছেন না। 2009 সাল থেকে যারা অবসর নিয়েছেন, তাদের বলা হয়েছিল 2012 সালের মধ্যে পিএফ গ্র্যাচুইটির টাকা দেওয়া হবে। কিন্তু তারা এখনও পর্যন্ত টাকা পাননি। সমস্ত পরিষেবা বেহাল। নানা সমস্যার মধ্যে দিয়ে চলতে হচ্ছে। বাধ্য হয়েই আমরা আজ থেকে আন্দোলনে নামলাম।”

আর রাজ্য রাজনীতিতে তিন রাজনৈতিক দল একে অপরের বিরুদ্ধাচরণ করলেও যেভাবে শ্রমিকদের স্বার্থে এই চামুর্চি চা-বাগানে তারা একসাথে আন্দোলনে নেমেছেন, তাতে কিছুটা হলেও বিপাকে পড়েছে মালিকপক্ষ। এদিন এই ব্যাপারে বাগানের ম্যানেজার সব্যসাচী রাহা কিছু না বললেও আইটিপিএর চেয়ারম্যান অমৃতাংশু চক্রবর্তী বলেন, “ওরা যেভাবে ভরা মরসুমে আন্দোলন করছে, তা ঠিক নয়। আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা মেটানোর যেতে পারে।”

আপনার মতামত জানান -
Top