এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূল থেকে বিজেপিতে এসে গ্রেফতার – চাঞ্চল্য তৃণমূল,বিজেপিতে

তৃণমূল থেকে বিজেপিতে এসে গ্রেফতার – চাঞ্চল্য তৃণমূল,বিজেপিতে

লোকসভা ভোটের পর থেকেই বিজেপির পালে হাওয়া লাগার ফলে রীতিমত অস্বস্তিতে শাসকদল তৃণমূল।বিজেপির দাবি যারাই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি তে যাচ্ছে তাদের নামেই লাগছে অ্যালিগেশন। আর এই সব নিয়েই শুরু হয়েছে দুই দলের মধ্যেচাপানউতোর।

জানা যাচ্ছে যে, তৃণমূলের অ্যালিগেশনের লিষ্টে নবতম সংযোজন হালিশহরের প্রাক্তন উপ পুরপ্রধান রাজা দত্ত। অভিযোগ বিজেপির মিছিলে যোগ দেওয়ার অপরাধে গ্রেফতার হলেন তিনি। এর আগে রাজার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও পুলিশ তাকে ছুঁতে পারেনি । বেশ কিছুদিন এলাকায় ছিলেন না তিনি। ফিরে এসে পুরসভায় কাজে যোগ দিলেও খাতায় কলমে পুলিশের কাছে কিন্তু তিনি ছিলেন ফেরার। এরপর কিছুদিন আগে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন এবং গ্রেফতারও হন।

রাজার গ্রেফতারের পেছনে কিন্তু অন্য ঘটনা রয়েছে । গত শুক্রবার রাতে নৈহাটির তৃণমূল নেতা উমেশ সাউকে খুনের হামলার অভিযোগে গ্রেপ্তার হয় বিজেপির গণেশ দাস। এরপর থেকে বিজেপি সদস্যরা ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চল থেকে শুরু করে হালিশহর পর্যন্ত চারিদিকে অবরোধ কর্মসূচী শুরু করে। হালিশহরে বিজেপির আবরোধে পুলিশ বাধা দিতে গেলে তাকে বাধা দেয় বিজেপির রাজা দত্ত । পুলিশ তৎক্ষণাৎ তাকে গ্রেফতার করে । যদিও জামিনযোগ্য ধারায় বেল পেয়ে যান রাজা সেদিনই। ব্যারাকপুরের ডিসি (জোন-১) অজয় ঠাকুর বলেন, ‘‘অপরাধের ধরন অনুযায়ী নির্দিষ্ট ধারায় মামলা হয়েছিল রাজা দত্তর বিরুদ্ধে। তাঁর বিরুদ্ধে আরও যে সব অভিযোগ আছে, সেগুলির তদন্ত চলছে।’’

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে জখম তৃণমূল নেতা আশংকাজনক অবস্থায় কলকাতার এক নার্সিহোমে চিকিৎসাধীন । শুক্রবার রাতে দলীয় কার্যালয়ের সামনে উমেশ সাউকে আক্রমণ করে কয়েকজন দুষ্কৃতিসহ বিজেপির গনেশ দাস। উমেশ সাউ কে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে তার মাথায় বোতল ভেঙে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। রাতেই গনেশ দাসকে পুলিশ গ্রফতার করে থানায় নিয়ে যায়। বিজেপি সেই রাতেই থানা ঘেরাও করলে পুলিশ সেই ঘেরাটোপ ভেঙে দেয় । শনিবার সকাল থেকেই শুরু হয় গনেশের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ ।

বিজেপির অর্জুন সিং দাবি জানিয়েছেন গনেশের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ মিথ্যে। বরং উমেশই বিজেপির অভিষেক সাউ নামের এক কর্মীকে দলবল নিয়ে মারধোর করে। এদিন গনেশ তাকে হাসপাতালে দেখতে যাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে ।

তৃণমূল বিধায়ক পার্থ ভৌমিক এই অভিযোগ খারিজ করে অবশ্য বলেন, “গণেশ নিজে দাঁড়িয়ে থেকে হামলার নেতৃত্ব দিয়েছেন। এলাকায় অনেকে তা দেখেছেন।’’ ক্রমশ অবস্থা ঘোরালো হয়ে উঠছে ভাটপাড়া সহ নৈহাটি এলাকা। গন্ডগোল থামার কোনো লক্ষ্মণ নেই । প্রতিদিনই কিছু না কিছু হচ্ছে। এসব গন্ডগোলে সেখানকার জনজীবন দিনদিন বিপর্যস্ত হচ্ছে। এই অবস্থায় সরকার সেখানে কি ব্যবস্থা নিচ্ছে তা দেখার জন্য সবাই তাকিয়ে ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!