এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > তৃণমূল আর বিজেপি-র মধ্যে চলছে বোঝাপড়ার খেলা দাবি হেভিওয়েট নেতার

তৃণমূল আর বিজেপি-র মধ্যে চলছে বোঝাপড়ার খেলা দাবি হেভিওয়েট নেতার

লতি মাসের ১৬ তারিখ বঙ্গসফরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কৃষিমন্ত্রকের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মেদিনীপুরে যাবেন তিনি। জনসভা করার প্রোগ্রাম রয়েছে। এছাড়াও কেন্দ্রীয় সরকারের ন্যূনতম কৃষিপণ্যের সহায়ক মূল্য বাড়ানোর ব্যাপারেও আলোচনায় বসবেন তিনি কৃষকদের সঙ্গে। এদিকে মোদীজির রাজ্যে আসার খবর পাওয়া মাত্রই বিরোধীমহলে হইচই পড়ে গেছে।

কট্টর বিজেপি বিরোধী সিপিআইএম নেতা সুশান্ত ঘোষকে এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের তরফ থেকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান যে, বিজপি সরকার চার বছর ক্ষমতা থেকে কৃষকদের অবস্থা বেহাল করে দিয়েছে। এখন তিনি কৃষকদের বাড়ি বাড়ি ছুটলেও লোকসভা ভোটে পাশে পাবেন না তাঁদের। এর পাশাপাশি মোদীসরকারকে কটাক্ষকে জানান যে, ২০১৯ এর লোকসভা ভোটে বিজেপি যে ক্ষমতায় আসতে পারবে না তা মোদীজি-অমিত শাহরা জানেন। তাই দলের নেতারা যতই জনসভা করে বক্তব্যে মঞ্চ কাঁপাক না কেন, এবার প্রধানমন্ত্রী কু্র্সিতে মোদীজি আর বসতে পারবেনা। এই প্রসঙ্গেই তুলে ধরলেন বামজামানার নজির। জানালেন সেই আমলে রাজ্যে কৃষকদের অবস্থা ঢের ভালো ছিলো। আসলে যুগে যুগে কৃষকদের স্বার্থে আন্দোলন বামপন্থীরাই করেছেন। রাজস্থান,মহারাষ্ট্র,মধ্যপ্রদেশের কৃষক আন্দোলনই প্রমাণ করে দিয়েছে বামেরাই কৃষকদের প্রকৃত বন্ধু।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এর পাশাপাশি তিনি আরো জানালেন যে, ৩৪ বছর ক্ষমতায় থেকে বামফ্রন্ট যখন চলে গেলো তখন এক ধাক্কায় পতন হল। তারপর সেই অবস্থা থেকে সাংগঠিক শক্তি মজবুত করে ফিল্ডে আসতে সময় লাগছে। তবে সবটাই মানুষের চেতনার উপর নির্ভর করছে। আর এখন তো তৃণমূল আর বিজেপির বোঝাপড়ার খেলা চলছে। তবে যাঁরা সচেতন মানুষ তাঁরা জানেন সঠিক পথ কোনটি। এই টানাপোড়নের মাঝে মানুষকে সঠিক রাস্তায় ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব বামপন্থীদের। একথা জানানোর পর এদিন তিনি এটাও বললেন যে তাঁরা লাগাতার চেষ্টা করে যাচ্ছেন ঘুরে দাঁড়ানোর। তবে প্রচারের সুযোগ তেমন ভাবে পাচ্ছেন না।

উল্লেখ্য,কঙ্কাল মামলার জেরে বারাসাত আদালতে হাজিরা দিতে হয়েছিলো সুশান্তবাবুকে। আদালত চত্বরে দাঁড়িয়েই সাংবাদিকদের প্রশ্নের ভিত্তিতে উক্ত বক্তব্য রাখেন তিনি। প্রসঙ্গত,গত মাসপই মেদিনীপুর থেকে কঙ্কাল মামলা বারাসতা আদালতে স্থানান্তরিত হয়েছে। ২৭ আগষ্ট ফের তাকে বারাসতা আদালতে হাজিরা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!