এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার দিদির সঙ্গ ছেড়ে বিজেপিতে ঝুঁকছেন এনারাও, চাপ বাড়লে তৃণমূলের

এবার দিদির সঙ্গ ছেড়ে বিজেপিতে ঝুঁকছেন এনারাও, চাপ বাড়লে তৃণমূলের



এবারের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল নেত্রী 42 টি আসনের মধ্যে 42 টি আসন দখলের জন্য স্লোগান দিলেও বাস্তবে তার সেই স্লোগান ঢোপে টেকেনি। উল্টে 34 থেকে 22 টিতে নেমে আসতে হয়েছে রাজ্যের শাসক দলকে। অন্যদিকে গতবার বিজেপি এই রাজ্য থেকে দুটি আসন পেলেও এবার তাদের দখলে এসেছে 18 টি আসন। আর রাজ্যে গেরুয়া শিবিরের উত্থানের পরই শাসকদলের অনেক নেতা, মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংসদেরা বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করছেন বলে গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে।

এমনকি কিছুদিনের মধ্যেই রাজ্যের বেশ কিছু জেলার তৃণমূলের নেতা এবং বেশকিছু বিধায়ক পদ্ম শিবিরে নাম লেখাতে পারেন বলেও জল্পনা চলছে। আর এরই মাঝে এবার রাজ্যের শাসক দল তথা মুখ্যমন্ত্রীর কোলের ছেলে বলে পরিচিত সেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দ্বারাই গঠিত সিভিক ভলেন্টিয়ারদের সংগঠনের রাজ্য সভাপতি সহ 400 জন বিজেপিতে নাম লেখাচ্ছেন বলে জানা গেছে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, সোমবার দুপুরে বিজেপির রাজ্য সদর দপ্তরে ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিক পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সঞ্জয় পোড়িয়ার নেতৃত্বে প্রায় 400 জন সিভিক পুলিশ বিজেপিতে যোগ দেবেন। কিন্তু রাজ্যের বর্তমান শাসকদল তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্যে যে সিভিক পুলিশ গঠন করলেন, সেই তারাই এখন বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় রাজ্যের শাসক দলের সংগঠনে যে ফের একপ্রকার বড়সড় ধাক্কা রাগতে চলেছে সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত ওয়াকিবহাল মহল। কিন্তু ঠিক কি কারণে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন তারা?

এদিন এই প্রসঙ্গে সংগঠনের রাজ্য সভাপতি সঞ্জয় পোড়িয়া বলেন, “বিভিন্ন দিন ধরে আমরা রাজ্যের কাছে দাবি করে আসছি যে আমাদের সামাজিক সুরক্ষা নেই, বেতন কম, কোনো ট্রেনিং নেই। কিন্তু এই ব্যাপারে বারবার ডেপুটেশন দিলেও কোনো সমস্যার সমাধান হয়নি। শুধুমাত্র লাঞ্ছনা জুটেছে। তাই ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখেই এই দলবদল।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের অনেকে বলছেন, রাজ্যের বর্তমান শাসকদল সিভিক পুলিশে বেকার যুবক-যুবতীদের চাকরির ব্যবস্থা করলেও তা তোষনের রাজনীতি হচ্ছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। আর এবার সেই একই অভিযোগ তুলে তাদের ভবিষ্যতের কোনো সুরক্ষা নেই বলে এবার গেরুয়া শিবিরে যোগদান করে রাজ্যের শাসকদলের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে দিতে চলেছে রাজ্যের প্রায় 400 জন সিভিক ভলেন্টিয়ার বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!