এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > তৃণমূল ছেড়ে এবার বিপ্লবের কি বিজেপিতে অভিষেক পাকা ! জোর জল্পনা

তৃণমূল ছেড়ে এবার বিপ্লবের কি বিজেপিতে অভিষেক পাকা ! জোর জল্পনা

লোকসভা ভোটে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষকে নির্বাচনী বৈতরণী পার করার দায়িত্ব ছিল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি বিপ্লব মিত্রের কাঁধে।কিন্তু তিনি তার দায়িত্ব ঠিকমতো পালন না করায় বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্র তৃণমূলের হাতছাড়া হয়েছে অভিযোগ তুলে পরাজিত অর্পিতা ঘোষ সরব হয়েছিলেন। যার ফলে লোকসভা ভোটের ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে সেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা সভাপতি পদ থেকে বিপ্লব মিত্রকে সরিয়ে সেখানে দায়িত্ব দেওয়া হয় অর্পিতা ঘোষকে।

আর তারপরই জল্পনা তৈরি হয় যে, তাহলে কি এবার দক্ষিণ দিনাজপুরে তৃণমূলের ভিত শক্তিশালী করা বিপ্লব মিত্র শিবির বদলাতে চলেছেন! আর রাজনৈতিক মহলে যখন এই জল্পনা চলছে, ঠিক তখনই বিগত বেশ কয়েকদিন ধরে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বুথকর্মীদের চেনা বিপ্লব মিত্র নিজের বাড়িতে জেলা পরিষদ, পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলার দুটি পৌরসভার কাউন্সিলরদের সঙ্গে গোপনে বৈঠক করেন বলে জানা গেছে। যার ফলে সেই বিপ্লববাবুর বিজেপিতে নাম লেখানোর সম্ভাবনা আরও জোরালো হয়ে ওঠে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

ইতিমধ্যেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বিভিন্ন ঠেকে আলোচনার বিষয় একটাই যে, বিপ্লব মিত্র কি করবেন! কেননা এক সময় এই জেলায় তৃণমূলকে শক্তিশালী করেছিলেন তিনিই। ফলে এই পরাক্রমশালী নেতা যদি বিজেপিতে যোগ দেন, তাহলে দক্ষিণ দিনাজপুরে যে তৃণমূলকে একেবারে শূন্য থেকে শুরু করতে হবে সেই ব্যাপারে নিশ্চিত প্রায় প্রত্যেকেই।

এদিকে জোর জল্পনা ছড়িয়েছে যে বিজেপিতে নাম লেখানোর ব্যাপারে প্রায় পাকাপাকি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন বিপ্লব মিত্র। বর্তমানে তিনি দিল্লীতে রয়েছেন বলে খবর। এমনকি তার অনুগামী জেলাপরিষদের সিংহভাগ সদস্য এবং বুনিয়াদপুর ও গঙ্গারামপুর পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলররাও দিল্লি পাড়ি দিতে চলেছেন। সব ঠিকঠাক থাকলে ২-৪ দিনের মধ্যেই গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়ে দক্ষিণ দিনাজপুরে তৃণমূলকে ধুয়ে মুছে সাফ করে দিতে পারেন বিপ্লব মিত্র। অনেকে বলছেন আজকেই নাকি তিনি বিজেপিতে যাবেন।

তবে সেই সম্ভাবনা খুব একটা নেই কারণ তিনি মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত দলে মুকুল রায়ের হাত ধরেই বিজেপিতে যাবেন। কিন্তু মুকুলবাবু আজ কলকাতায়। ফলে আজকে বিপ্লববাবু বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন এমন সম্ভাবনা নেই বলেই মত রাজনৈতিকমহলের।

এদিকে তৃণমূলের একাংশের বক্তব্য, যিনি জেলায় নিজের হাতে সংগঠনটা সাজালেন, তাকেই সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে অপমানিত করা হল, আর কত অপমান তিনি সহ্য করবেন! তাই রাজনৈতিক বিপ্লববাবুর এখন বিজেপিতে যোগদান করা ছাড়া কোনো উপায় নেই।

তবে অনেকে আবার বলছেন, বিপ্লব মিত্র বিজেপিতে গেলে তৃণমূলের কোনো যায় আসে না। কারণ এখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই শেষ কথা। কিন্তু দলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অর্থ্যাৎ সিএম শেষ কথা হলেও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় বিএম অর্থাৎ বিপ্লব মিত্রই যে শেষ কথা তা অতীতে অনেক সময়ই প্রমাণিত হয়েছে। এখন ঠিক কবে এবং কখন “দিনাজপুরের চিত্র বিপ্লব মিত্র” বিজেপিতে যোগদান করেন, সেই দিকেই তাকিয়ে সকলে। ফলে এখন দিনাজপুরের সবচেয়ে আলোচ্য বিষয় বিপ্লববাবু ও তাঁর বিজেপিতে যোগদান।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!