এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েত ভোটে হারার ভয়েই বিজেপিকে আক্রমণ করছে শাসকদল দাবি দিলীপ ঘোষের

পঞ্চায়েত ভোটে হারার ভয়েই বিজেপিকে আক্রমণ করছে শাসকদল দাবি দিলীপ ঘোষের

আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনিতে হেরে যাবার ভয়েই তৃণমূলের কর্মীরা চালাচ্ছে বিজেপির নেতা-কর্মীদের উপর হামলা।দাবি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের।গত রবিবার ওন্দার রামসাগরের বিজেপির পার্টি অফিসের পরিদর্শনে এসে দিলীপবাবু বললেন,বিজেপি সভা-সমাবেশের বিশালতা দেখেই দিন দিন ভীত হয়ে পড়ছে রাজ্য শাসকদল।তার তার জেরেই পার্টি অফিসে ভাঙচুর সহ বিজেপির কর্মীদের উপর আক্রমণ চালাচ্ছে তৃণমূল।প্রসঙ্গত,গত শনিবার তৃণমূলের সমাবেশ শেষ হবার পরেই বিজেপির পার্টি অফিসে হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী।এই হামলায় আক্রান্ত হয় ওই পার্টি অফিসের নিরাপত্তায় থাকা একজন পলিসি কর্মী।পাশাপাশি তৃণমূলের অভিযোগের ভিত্তি গ্রেফতার করা হয় ওন্দা মণ্ডলের দুই সাধারণ সম্পাদক দেবনারায়ণ চক্রবর্তী, বিশ্বজিত্‍ শতপথী-সহ ১৩ জনকে।বিজেপির অভিযোগ সব তাই করেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা।

এদিন দিলীপবাবু বললেন,”সে দিনের আমাদের সমাবেশে ২০ হাজার লোকের জমায়েত দেখে তৃণমূল ভয় পেয়েছে। ভাবছে পঞ্চায়েতে সব পাল্টে যাবে, পরিবর্তন হয়ে যাবে। পার্টি অফিসের চেয়ার, টেবিল ভাঙচুর করল ওরা। মহিলাদেরও মারধর করা হল। আমরা যাতে পিছিয়ে যাই, সে জন্য ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি করেছে ওরা। কিন্তু সাধারণ মানুষ এ সব দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে যাচ্ছে।”পাশাপাশি তিনি শাসকদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বললেন,”যত দিন যাচ্ছে মানুষ তত ওদের বিপক্ষে চলে যাচ্ছে। ওরা বেপরোয়া হয়ে হিংসার কথা বলছে। এ ভাবে কেউ ক্ষমতায় থাকতে পারেনি, পারবেও না। পঞ্চায়েত ভোট যত এগোচ্ছে, তত ভয় দেখাচ্ছে, অত্যাচার করছে।”একই সাথে পুলিশের নিরপেক্ষতার অভিযোগ তুলে তিনি বললেন,”প্রশাসন নেই, পুলিশ নেই, কী ভাবে বাংলা চলবে? পুলিশ দর্শকের ভূমিকা নিচ্ছে। সাধারণ মানুষ এর প্রতিবাদ করবেন, পরিবর্তন করবেন, এটাই আমাদের আশা।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!