এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পরিবর্তনের সপ্তম বর্ষপূর্তিতে মা-মাটি-মানুষকে স্মরণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

পরিবর্তনের সপ্তম বর্ষপূর্তিতে মা-মাটি-মানুষকে স্মরণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

পরিবর্তনের সপ্তম বর্ষপূর্তিতে মা-মাটি-মানুষকে স্মরণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। মুখ্যমন্ত্রী মা-মাটি-মানুষকে সশ্রদ্ধভাবে স্মরণ করে এদিন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জানান, “৭ বছর আগে এই দিনে বাংলায় বামজমানার অবসান ঘটিয়ে মানুষ তৃণমূলকে বাংলার সরকার চালানোর দায়িত্ব দিয়েছিলেন। মা-মাটি-মানুষকে নতমস্তকে প্রণাম, সেলাম ও অভিনন্দন।” একই সাথে তিনি কবি সুকান্ত ভট্টাচার্যের মৃত্যু বার্ষিকীতে সশ্রদ্ধ প্রণাম জানিয়েছেন। এদিকে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘শুধু ২০১১ নয়, ২০১৬ সালেও মানুষ মমতাকে দ্বিতীয় বারের জন্য ক্ষমতায় এনেছে। মা-মাটি-মানুষ সরকার মানুষের স্বপ্নপূরণের কাজ করে চলেছে। ১০০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।’ এদিন তিনি আরও মন্তব্য করেন, ‘আগামী দিনে আরও কাজ হবে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

বিশ্ববাংলায় প্রথম স্থানে থাকবে বাংলা। তার জন্য আমাদের আরও লড়াই ও সংগ্রাম করতে হবে। মমতার সংগ্রাম-আন্দোলনের ইতিহাস বাংলার মানুষ জানে। ইতিহাস বিরোধীরা সেসব জানার চেষ্টা না করে মমতার বিরুদ্ধে কুত্‍সা ও অপপ্রচার করে চলেছে। বিজেপি নেতারা কুত্‍সিত মন্তব্য করছেন।’ তিনি দলের পক্ষে যুক্তি টেনে বলেন, ‘এই ৭ বছরে সবচেয়ে বড় সাফল্য সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করা। মমতা সবসময় সম্প্রীতির বার্তা দিচ্ছেন। এই আমলে সব ধর্মের মানুষ বাংলায় শান্তিতে দিন কাটাচ্ছেন। বিরোধীরা বাংলাকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে। সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে থাকার নেতৃত্ব দিচ্ছেন মমতা। রাজ্যে উন্নয়নের ছবি স্পষ্ট। কর্মসংস্থানের সুযোগ বেড়েছে। শিক্ষা-স্বাস্থ্যে বাংলা অনেক এগিয়েছে।’ এদিন তৃণমূলের ডেরেক ও ব্রায়েন সোশ্যাল মিডিয়াতে মন্তব্য করেন, ‘বিরোধীরা খুব ভাল করে জানে পঞ্চায়েতে তারা কোনও ভোট পাবে না। তারা শুধু ভুয়ো খবরের কারখানা তৈরি করে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করবে।’

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!