এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > লোকসভার আগে তৃণমূল নেত্রীর চিন্তা বাড়িয়ে এই দুই হেভিওয়েট নেতার গোষ্ঠীর দ্বন্দ্বে ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে পরিস্থিতি

লোকসভার আগে তৃণমূল নেত্রীর চিন্তা বাড়িয়ে এই দুই হেভিওয়েট নেতার গোষ্ঠীর দ্বন্দ্বে ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে পরিস্থিতি

যে ভাঙ্গড়ের গোষ্ঠী কাজিয়া বন্ধ করতে বারে বারে নবান্নতে সেখানকার দলীয় নেতাদের ডেকে ধমক দিয়েছেন দলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, এবার সেই ভাঙ্গরেই শাসক দলের দুই দাপুটে নেতার গন্ডগোলে উত্তপ্ত হয়ে উঠতে চলেছে এলাকা।

সূত্রের খবর, এবার দলীয় অফিস দখল কে কেন্দ্র করে ভাঙ্গড়ের বেওতা ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের আরাবুল ইসলাম গোষ্ঠীর সঙ্গে বিধায়ক রেজ্জাক মোল্লার গোষ্ঠীর তুমুল বিবাদ বাঁধে। আর রবিবার এই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

প্রসঙ্গত, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের পরেই এই বেওতা 2 গ্রাম পঞ্চায়েত শাসকদলের আরাবুল ইসলামের অনুগামীদের দখলে চলে আসায় ওইখানে তারা অনেকটাই এগিয়ে থাকে। এদিকে আরাবুল ইসলামের অনুগামীদের দাপটে বিভিন্ন সময় স্থানীয় তৃনমূল বিধায়ক রেজ্জাক মোল্লার অনুগামীদের সাথে তাদের তীব্র বিবাদ হয়। অভিযোগ গতকাল এই আরাবুল ইসলামের অনুগামী বলে পরিচিত বেওতা অঞ্চলের প্রধান ওয়ারিতে গিয়ে রেজ্জাক মোল্লার অনুগামীদের কার্যালয় দখল করে দরজায় তালা লাগিয়ে দেয়।

জানা যায়, এই কার্যালয়টিকে খুলেছিলেন রেজ্জাক মোল্লা অনুগামী ব্লক তৃণমূলের সভাপতি অহিদুল ইসলাম। এদিন এই প্রসঙ্গে রেজ্জাক অনুগামী মুন্নাফ মোল্লা বলেন, “আমাদের এই কার্যালয়ে দলনেত্রীর ছবি ও দলের ব্যানার লাগানো ছিল। কিন্তু আরাবুল ঘনিষ্ঠ প্রধানের লোকজন তা খুলে দিয়েছে। এটা ঘোরতর অন্যায়।” সত্যিই কি তারা সেই রেজ্জাক মোল্লা অনুগামী ব্লক সভাপতির অফিসে তালা লাগিয়েছেন?

এদিন এই প্রসঙ্গে অভিযুক্ত বেওতা পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী আবু সিদ্দিকি মোল্লা বলেন, “ঘটনাটি সত্যি। এখানে একটিই কার্যালয় থাকবে, এটাই উপরতলার নির্দেশ। লেদার কমপ্লেক্স থানায় বড়বাবুর সঙ্গে বৈঠকের পর আরাবুল ইসলামকেও ওই অফিস বন্ধ করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তাই আমরা ওই অফিস বন্ধ করে দিয়েছি। দল করতে হলে আমাদের সাথে মিলেমিশেই করতে হবে।”

রাজনৈতিক মহলের মতে, বেশ কিছুদিন এই ভাঙ্গরে শাসকদলের গোষ্ঠীসংঘর্ষ বন্ধ ছিল। আর তাতে হয়ত বেশ কিছুটা স্বস্তিতেও ছিল তৃণমূল শিবির। কিন্তু লোকসভা নির্বাচনের আগে ফের যেভাবে এই ভাঙ্গড় সেই গোষ্ঠী কোন্দলে উত্তপ্ত হতে চলেছে তাতে তোপসিয়ার তৃণমূল ভবনের কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও ক্রমশ চওড়া হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!