এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > তৃণমূলের ভাঙ্গন রুখতে এবার নয়া পদক্ষেপ নিলেন রাজ্যের মন্ত্রী

তৃণমূলের ভাঙ্গন রুখতে এবার নয়া পদক্ষেপ নিলেন রাজ্যের মন্ত্রী

এবারের লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের ভরাডুবি হয়েছে। গেরুয়া শিবিরের প্রবল উত্থানে উত্তরবঙ্গ এখন কার্যত পদ্ম শিবিরের পতাকাতে মুড়ে গিয়েছে। আর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির এই ব্যাপক সাফল্যের পরই উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলা থেকে বিপুলসংখ্যক তৃনমূলের নেতাকর্মী বিজেপিতে যোগদান করতে শুরু করে।

যা কার্যত অস্বস্তি বাড়াতে শুরু করে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর উত্তরবঙ্গে দলের এই ভাঙ্গন রুখতে ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকেই সেই উত্তরবঙ্গের প্রতিটি জেলায় দলীয় নেতাদের বিশেষ নজরদারি রাখার পরামর্শ দেন তিনি। আর নেত্রীর নির্দেশ পালন করেই ময়নাগুড়িতে গেলেন জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

আর ময়নাগুড়িতে পৌছে জলপাইগুড়ির সমস্ত দলীয় নেতা এবং কর্মীদের নিয়ে একটি হোটেলে মিটিং করেন এই হেভিওয়েট মন্ত্রী। সূত্রের খবর, এই বৈঠকেই একাধিক কর্মী-সমর্থকরা জেলার দলীয় নেতাদের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ জানান।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে কর্মীদের এই ক্ষোভ শুনেই তা দ্রুত মেটানোর আশ্বাস দেন অরুপ বিশ্বাস। তবে বাইরে বেরিয়ে অবশ্য ভেতরে যে কোনোরূপ বিশৃংখলা হয়েছে তা মানতে রাজি হননি তিনি। তবে কর্মীদের যে ক্ষোভ রয়েছে, তা কার্যত এদিন স্বীকার করে নিয়েছেন জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জ বিধানসভার তৃনমূল বিধায়ক খগেশ্বর রায়।

এদিকে ঘরোয়া বৈঠক শেষ করেই বিজেপির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে দলীয় পতাকা কাঁধে নিয়ে জেলা নেতৃত্বদের সাথে ময়নাগুড়ি শহরে মিছিল করেন জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। আর সেখানেই বিজেপির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের রাজনীতি করার অভিযোগ তোলেন তিনি।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, রাজ্যে লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের এই ভরাডুবি পর সামনের বিধানসভা নির্বাচনে যাতে তারা ঘুরে দাঁড়াতে পারে, তার জন্য এখন থেকেই বিজেপির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ করে নিজেদের দিকে জনসমর্থন টানতে রাস্তায় নেমে মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছেন তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা, মন্ত্রীরা বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!