এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূল যেখানে হেরেছে, বন্ধ হয়েছে পরিষেবা, ব্যবস্থা নিতে মমতাকে চিঠি কংগ্রেস বিধায়কের

তৃণমূল যেখানে হেরেছে, বন্ধ হয়েছে পরিষেবা, ব্যবস্থা নিতে মমতাকে চিঠি কংগ্রেস বিধায়কের

কিছুদিন আগেই লোকসভা ভোটে ফল প্রকাশের পর উন্নয়ন করা সত্ত্বেও কেন তারা হারল এই অভিযোগ তুলে বারাসাত লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত একটি গ্রামের পাকা রাস্তা থেকে ইট তুলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল শাসক দলের কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে। যে ঘটনায় শাসকের ভূমিকায় সমালোচনার সুর শোনা গিয়েছিল সকলের গলাতেই।

আর এবার লোকসভা ভোটের পর বীরভূম জেলার যে সমস্ত পঞ্চায়েতে তৃণমূল হেরেছে, সেখানে সমস্ত উন্নয়নের প্রক্রিয়াকে স্তব্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তুললেন বীরভূমের হাসন বিধানসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদ।

প্রসঙ্গত, লোকসভা ভোটের দামামা বাজার পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় শাসক দল তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিরোধীদের প্রতি হামলা চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছিল বিরোধীদের পক্ষ থেকে। আর এবার ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর যে সমস্ত জায়গায় তৃণমূল হেরেছে, সেখানে উন্নয়ন সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে শাসক দলকে অনেকটাই চাপে ফেলে দিলেন বীরভূমের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদ।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তার অভিযোগ, বীরভূমের যে সমস্ত পঞ্চায়েত এবং জেলাপরিষদ এলাকায় তৃণমূল হেরে গিয়েছে, সেখানে কোথাও পানীয় জলের লাইন কেটে দেওয়া হচ্ছে, কোথাও টিউবওয়েল ভেঙে দেওয়া হয়েছে। ফলে সাধারণ মানুষকে নিত্যনৈমিত্তিক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। সাধারণ মানুষের উন্নয়ন ব্যাহত হওয়ায় এবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিলেন তিনি।

এদিন এই প্রসঙ্গে হাসন বিধানসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদ বলেন, “বীরভূমের মানুষকে তো বেঁচে থাকতে হবে। অনেকে এই গরমে খাবার জল পাচ্ছে না। বিজেপি বেশি ভোট পেয়েছে বলে সাধারণ মানুষ কেন সমস্ত সরকারি পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হবে! এখন তো মনে হচ্ছে বিজেপির থেকে তৃণমূলই বেশি অশান্তি পাকাচ্ছে।” সব মিলিয়ে এবার হাসনের কংগ্রেস বিধায়ক অনুন্নয়ন ইস্যুতে চিঠি পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রীকে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!