এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কয়লার চোরা কারবারে শাসকদলের নাম সরাসরি জড়িয়ে দিলেন পড়শী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী

কয়লার চোরা কারবারে শাসকদলের নাম সরাসরি জড়িয়ে দিলেন পড়শী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী

কয়লার চোরা কারবারে মদত দিচ্ছেন-এমনই অভিযোগ এলো ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাসের তরফ থেকে, তাও এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। এই বিতর্কিত মন্তব্যে নড়পড়ে বসেছে শাসকশিবির। পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খন্ড পাশাপাশি অবস্থিত দুটি রাজ্য। আর এই রাজ্যের সিমানাতে রয়েছে  বাংলার অন্যতম খনিপ্রধান এলাকা পশ্চিম বর্ধমান ও ঝাড়খন্ডের জামতাড়া-ধানবাদ। তাই স্বাভাবকিভাবে সীমানাবর্তী এলাকা দিয়ে প্রতিনিয়ত কয়লা বোঝাই গাড়ির আসা যাওয়া লেগেই রয়েছে। এদিন প্রধানমন্ত্রীর সফর উপলক্ষে এলাকা খতিয়ে দেখতে ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস এসেছিলেন ধানবাদের বালিয়াতে। সেখানেই সাংবাদিকদের প্রশ্নের উওরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টার্গেট করে ছুঁড়ে দেন এই বিতর্কিত মন্তব্য। জানান যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মদতপুষ্ট হয়েই চোরা কারবারীরা সীমান্তবর্তী এলাকায় কয়লা পাচার করছে।  ঝাড়খন্ডের পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশও দেওয়া হয়েছে ইতিমধ্যে যে বাংলা থেকে আসা কয়লা বোঝাই ট্রাকগুলো যেনো ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করা হয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যের জেরে বিক্ষোভ ছড়িয়েছে ঝাড়খন্ডের বাংলাভাষী মানুষের ভিতর। বিশেষ করে সীমান্তবর্তী শহর চিত্তরঞ্জন এবং মিহিজামের লোকজন বেশী প্রভাবিত হয়েছে। বিক্ষোভ আরো মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে যখন তাঁরা দেখেছে হিন্দি দৈনিক পেপারে এই বিষয় নিয়ে খবর ছাপা হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে তাঁদের তরফ থেকে যে মুখ্যমন্ত্রীর সম্মানহানি করার চেষ্টা করছেন রঘুবর দাস। স্থানীয়রা অনেকেই স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছে যে,সীমান্তবর্তী এলাকায় কয়লা চোরাকারবারিদের ধরতে অসমর্থ দুই রাজ্য সরকারই। তাই পরিস্থিতি এড়াতে এরকম দোষারোপ উঠেছে। ওদিন পশ্চিম বর্ধমানের চিত্তরঞ্জনের অনেক এলাকাবাসী এটাও দাবী করছেন যে, সম্প্রতি কর্নাটকের বিধানসভার ভোটে বিজেপির হারকে মেনে নিতে পারেননি ঝাড়খন্ডের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে কর্নাটকের মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিজেপিবিরোধী জোট গঠনের ডাক দিয়েছেন তাতে ক্ষুব্ধই হয়েছেন একরকম ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী। এছাড়াও জানা যাচ্ছে যে সামনেই নাকি ঝাড়খন্ডেরও বিধানসভা নির্বাচন। তাই রাজনৈতিকমহলে বিজেপিঘাঁটিতে শক্তিশালী রাখতে তৃণমূলের তরফের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর কয়লা মাফিয়াদের সাহায্য করার দোষ চাপিয়েছেন। এরকমভাবে সরাসরি এ রাজ্যের নেত্রীর বিরুদ্ধে এইধরনের মানহানিকর অভি্যোগ আসায় রাজনৈতিক মহলে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!