এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > “ড্যামেজড” চন্দননগরেও এবার “বেশি লিডের” জন্য নতুন পদক্ষেপ মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেনের

“ড্যামেজড” চন্দননগরেও এবার “বেশি লিডের” জন্য নতুন পদক্ষেপ মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেনের

বিগত বিধানসভা নির্বাচনে যেসব কেন্দ্রগুলিতে শাসকদলের লিড ছিল না, সেইখানে যাতে আরও বেশি করে লিড দেওয়া যায় তার জন্য এখন থেকেই দলীয় জনপ্রতিনিধিদের কড়া নির্দেশ দিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। এমনকি যে যার বুথে সময় দিয়ে সেইখানেই যাতে লিড দিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে স্থানীয় প্রার্থীকে জেতান এই ব্যাপারেও দলীয় নেতৃত্বকে জানিয়ে দিয়েছে শাসক দল। আর এই ব্যাপারে গতকাল চন্দননগরে গিয়ে স্থানীয় নেতৃত্বদের নিয়ে বৈঠক করে কড়া নির্দেশ বেঁধে দিলেন স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক তথা মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন।

সূত্রের খবর, এদিন সকাল 11 টার সময় চন্দননগরের একটি অনুষ্ঠান ভবনে প্রথমে এই বিধানসভার 92 টি ক্লাবের প্রধান এবং সদস্যদের নিয়ে বৈঠক করে চন্দননগর পুরসভার 27 থেকে 30 নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও কর্মীদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন ইন্দ্রনীলবাবু। পরে দ্বিতীয় দফায় 12 থেকে 26 নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার এবং সন্ধ্যায় চন্দননগর বিধানসভার মধ্যে থাকা ভদ্রেশ্বর পুরসভার সবকটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করেন তিনি।

আর সেখানেই দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে ইন্দ্রনীল সেন বলেন, “শহর বা বিধানসভা এলাকায় কোথায় কি হচ্ছে তা আপনাদের দেখতে হবে না। নির্বাচনের আগের কয়েকটা দিন নিজের বুথের ওপর নজর দিন। বড় বড় বুলি আউড়ে কেউ নেতা হলে চলবে না। কাদের সঙ্গে মানুষের জনসংযোগ রয়েছে আমি তার প্রমাণ চাই।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

আর এরপরই সকল নেতৃত্বদের নিজ নিজ বুথের কি পরিস্থিতি আছে সেই ব্যাপারে আগামী 31 শে মার্চের মধ্যে একটি পরিসংখ্যান জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন ইন্দ্রনীল সেন। আর তারপর সেই পিছিয়ে থাকা বুথগুলিতে 15 দিনের মধ্যে গোটা পরিস্থিতিকে কতটা দলীয় নেতৃত্বরা মেরামত করতে পারেন সেই ব্যাপারে আগামী 15 এপ্রিলের মধ্যে ফের একটি রিপোর্ট পেশের নির্দেশ দেন তিনি।

অন্যদিকে এদিনের এই অনুষ্ঠান থেকে সিপিএম ও বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া দুশোজন সমর্থকের হাতে দলীয় পতাকাও তুলে দেন ইন্দ্রনীল সেন। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের বেশিরভাগ কেন্দ্রেই বিজেপির উত্থান মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে শাসকদল তৃণমূলের ক্ষেত্রে। আর তাইতো সেই ভয় থেকেই নেতাদের বিভিন্ন জায়গায় না ঘুরে নিজের বুথ জেতানোর জন্য এবার কড়া নির্দেশ দিলেন তৃণমূল বিধায়ক তথা মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!