এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিপুল জয়ের পরেও তৃণমূলের চিন্তা বাড়াচ্ছে বিজেপি

বিপুল জয়ের পরেও তৃণমূলের চিন্তা বাড়াচ্ছে বিজেপি

বিপুল জয়ের পরেও তৃণমূলের চিন্তা বাড়াচ্ছে বিজেপি। বাংলায় ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রতিটি স্তরেই আসন জয় করে শীর্ষ স্থানে রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায়ের দল। বিজেপি রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে এবং অন্যান্য ছোটোখাটো দল ও নির্দল প্রার্থীরা রয়েছে তৃতীয় স্থানে। এর মধ্যে নির্দলের বেশির ভাগটাই তৃণমূলের বিক্ষুব্ধ অংশ। এদিকে বামফ্রন্ট ও কংগ্রেস পেয়েছে মাত্র কয়েকটি আসন। গ্রাম পঞ্চায়েত স্তরে প্রায় ৩০ হাজার ভোটে জিতেছে ঘাসফুল শিবির। বিজেপি দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও প্রায় ২৫ হাজার ভোটে তৃণমূলের থেকে পিছিয়ে রয়েছে। পঞ্চায়েত সমিতিতেও একই ছবি ফুটে উঠেছে। বিপুল আসনে জিতেছে তৃণমূল এবং বিজেপি দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও বেশ পিছিয়ে রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের থেকে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজ্যের প্রায় ১৩ টি জেলা পরিষদ দখল করে নিয়েছে রাজ্যের শাসকদল। বাকি জেলা পরিষদগুলিও তাদের দখলে আসতে চলেছে। কোচবিহারে ১২৮ টি গ্রাম পঞ্চায়েতের ১২৯৫ টি আসনে ভোট হয়েছে এবং প্রায় এক হাজারেরও বেশি আসন তৃণমূলের ঝুলিতে গেছে। বাকি ১০৮ টি আসন পেয়েছে নির্দল, ১০৭ টি বিজেপি ও বামদল পেয়েছে মাত্র ১২ টি এবং কংগ্রেস পেয়েছে ৭ টি আসন। জেলা পরিষদের ৩৩ টি আসনের মধ্যে বেশিরভাগটাই তৃণমূলের দখলে। বিজেপির দখলে রয়েছে কোচবিহার-১ ব্লকের জিরানপুর ও মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকের ঘোকসাডাঙ্গা গ্রামপঞ্চায়েত। এদিকে তৃণমূলের দখলে রয়েছে মেখলিগঞ্জ ব্লকের উছলপুখুরি, জামালদহ, চ্যাংরাবান্ধা, রানিরহাট গ্রামপঞ্চায়েত। ত্রিশঙ্কু হয়েছে ভোটবাড়ি, নিজতরফ, কুচলিবাড়ি বাগডোগড়া। পঞ্চায়েত সমিতির ২৬১ টি আসনের মধ্যে এখনও ৬৫ টি আসন তৃণমূলের ঝুলিতে গেছে। বিজেপির ১ টি ও নির্দলদের ২ টি আসন প্রাপ্তি ঘটেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!