এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > তৃণমূলের প্রচারে একাধিক বাংলাদেশী অভিনেতা, কড়া পদক্ষেপের পথে কমিশন থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

তৃণমূলের প্রচারে একাধিক বাংলাদেশী অভিনেতা, কড়া পদক্ষেপের পথে কমিশন থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

এবার প্রচার পর্বে হেভিওয়েট অভিনেতাদের নিয়ে এসে বিপাকে জড়াল শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। সূত্রের খবর, বাংলাদেশের অত্যন্ত জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌসকে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের সমর্থনে প্রচারে নিয়ে এসে প্রশ্নের মুখে পড়ল রাজ্যের শাসক দল।

জানা গেছে, গত রবিবার বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া উত্তর দিনাজপুরের হেমতাবাদ এবং করণদিঘিতে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের সমর্থনে প্রচারে আসেন অভিনেতা অঙ্কুশ এবং বাংলাদেশের অভিনেতা ফেরদৌস। হুডখোলা জিপে চড়ে তারা গোটা এলাকায় প্রচার করেন।

আর এনআরসি নিয়ে যখন রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করছেন, ঠিক তখনই বাংলাদেশের এক নাগরিক কিভাবে এদেশে ভোট প্রচারে অংশ নিলেন তা খতিয়ে দেখার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি করা হল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

এদিকে এই ব্যাপারে তৃনলের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপিও। পাশাপাশি ফেরদৌসকে বাংলাদেশে ফিরে আসার জন্য নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ হাইকমিশনও। তবে শুধু রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে বাংলাদেশের অভিনেতার ভোট প্রচারই নয়, এদিন উত্তর 24 পরগনার দমদম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী সৌগত রায়ের সমর্থনে কামারহাটিতে ভোট প্রচারে দেখা গেল “রানী রাসমণি” খ্যাত বাংলাদেশী অভিনেতা গাজী আব্দুন নূরকে।

আর একের পর এক ভিনদেশের অভিনেতাদের নিয়ে এসে কিভাবে রাজ্যে প্রচার চালাতে শুরু করেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস, তা নিয়ে এবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে তদন্ত কমিটি তৈরি হওয়ায় এবং রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি এই ব্যাপারে নিজেদের হাতে নতুন অস্ত্র পেয়ে যাওয়ায় চরম বিপাকে পড়তে চলেছে যে রাজ্যের শাসক দল সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

 

Top
error: Content is protected !!