এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > তিন তালাক বিল নিয়ে কেন্দ্রের প্রশংসা ও রাজ্যকে আক্রমন ইসরাত জাহানের

তিন তালাক বিল নিয়ে কেন্দ্রের প্রশংসা ও রাজ্যকে আক্রমন ইসরাত জাহানের

সম্প্রতি লোকসভার পর রাজ্যসভাতেও তিন তালাক বিল পাস হয়েছে। যাতে মুসলিম মহিলাদের যন্ত্রণা অনেকটাই ঘুচেছে। বস্তুত, দীর্ঘদিন আগে এই তিন তালাক নিয়মের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেন ইসরাত জাহান, শায়রা বানু, আতিয়া সাবরি, গুলসান পারভিন ও আরফির রহমান।

জানা যায়, গত 2015 সালে দুবাই থেকে হাওড়ার বাসিন্দা ইসরাত জাহানের স্বামী তাকে ফোনে তালাক দেন। আর তারপর থেকেই নানা ঝড় এবং প্রতিকূলতাকে সামলে লড়াই চালাতে থাকেন সেই ইসরাত জাহান। যেখানে তিন তালাকের বিরুদ্ধে সরব হন তিনি। আর এরপরই গত 2017 সালে সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে তিন তালাককে অসাংবিধানিক বলে রায় দেওয়া হয়।

তবে কেন্দ্রের দুই কক্ষে এই বিল পাস হওয়া নিয়ে অপেক্ষায় ছিলেন অনেকেই। অবশেষে লোকসভার পর সম্প্রতি রাজ্যসভাতেও এই তিন তালাক বিল পাস হয়েছে। যাতে প্রবল খুশি সেই ইসরাত জাহান। সূত্রের খবর, এদিন এই ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ধন্যবাদ জানান এই বিজেপি নেত্রী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিন ইসরাত জাহান এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমি এখনও দেখছি কখনও ফোনে, কখনও চিঠিতে, আবার কেউ হোয়াটসঅ্যাপে তার “বিবিকে” তিন তালাক দিয়েছেন। এতে ওই মহিলার জীবনে ভয়াবহ সময় নেমে এসেছে। এই মধ্যযুগীয় আইন বাতিল করে কেন্দ্রীয় সরকার মুসলিম মহিলাদের সম্মান দেওয়ায় আমি খুশি। আমি এর জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে শুভেচ্ছা এবং কৃতজ্ঞতা জানাই। এই তিন তালাক নিয়ে মুসলিম মহিলাদের মনে যে ভয় ছিল, এবার থেকে তা আর হবে না।”

অন্যদিকে এই ব্যাপারে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনাও করতে দেখা যায় ইসরাত জাহানকে। যেখানে তিনি বলেন, “আমাদের দিদি মুসলিম মহিলাদের দেখেননি। তিনি যদি দেখতেন তাহলে আমাকে বাংলা ছেড়ে সুপ্রিম কোর্টে যেতে হত না। উনি মহিলা হয়ে মহিলাদের কষ্ট বুঝলেন না। আমি দিদিকে বলতে চাই আপনি মহিলাদের পাশে দাঁড়ান। রাজনীতি রাজনীতির জায়গায় হোক। তালাকের জন্য অনেক মহিলার জীবন নষ্ট হয়েছে। তাই রাজ্যবাসীকে এই বিলের সমর্থন করার জন্য আমি আবেদন করছি। এটা থাকলে কেউ তাৎক্ষণিক তালাক দিয়ে একটি মহিলাকে অন্ধকারে ফেলবেন না।”

বস্তুত, কেন্দ্রের পক্ষ থেকে এই তিন তালাকের বিরুদ্ধে মুসলিম মহিলাদের স্বস্তি দেওয়ার জন্য বিল পাস করা হলে সেই সময় তার বিরোধিতা করতে দেখা গিয়েছে তৃণমূলকে। ফলে তা নিয়ে দিন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ এবং সংসদে মুসলিম সমাজের মহিলাদের নিষ্কৃতি দেওয়ায় কেন্দ্রকে ধন্যবাদ জানালেন এই ব্যাপারে মামলা করা ইসরাত জাহান।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!