এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তিন তালাক সমর্থন না করে নুসরাতের বক্তব্য, ক্ষুব্ধ সংখ্যালঘুদের একাংশ, সামাল দিয়ে ক্ষোভ মোচনের চেষ্টায় মাঠে নামলেন খোদ নেত্রী

তিন তালাক সমর্থন না করে নুসরাতের বক্তব্য, ক্ষুব্ধ সংখ্যালঘুদের একাংশ, সামাল দিয়ে ক্ষোভ মোচনের চেষ্টায় মাঠে নামলেন খোদ নেত্রী

মুসলিম মহিলাদের আবেগের সঙ্গে জড়িত তিন তালাক সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে বেআইনি ঘোষণা করার পরই এই ব্যাপারে অর্ডিন্যান্স আনে কেন্দ্রের মোদি সরকার। লোকসভায় তা পাস হলেও বিরোধিতা এবং সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায় রাজ্যসভায় সেই বিলটি পাশ করতে পারেনি বিজেপি।

এদিকে তিন তালাক বিল কিন্তু সমর্থন করেননি তৃণমূল। তারা বার বার বুঝিয়েছে এটা ঠিক নয়, এই কাজ করে মোদী ঠিক করছেন না। অন্যদিকে বিজেপির দাবি ছিল এই তিনটি শব্দে একটা মেয়েকে হেনস্থা করা কোনো সঠিক কাজ নয় ,আর তাই তিন তালাক বিল বন্ধ করতে চেয়েছে বিজেপি।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এবার ভোটের মরসুমে ফের ভোটের প্রচারে চলে এলো তিন তালাক বিল। লোকসভা ভোটে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে যখন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বনাম বিজেপির হেভিওয়েট নেতা তথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তরজা চলছে, ঠিক তখনই এই তিন তালাক ইস্যুকে সমর্থন করে কার্যত গেরুয়া শিবিরের হাতে নতুন অস্ত্র তুলে দিলেন বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী তথা বিশিষ্ট অভিনেত্রী নুসরাত জাহান।

জানা গেছে, তিন তালাক বিরোধী আইনকে সমর্থন করে নুসরাত জাহান বলেন, “তিনটি শব্দে একটা মেয়ে হেনস্থা হতে পারে এটা অনুচিত। তাই আমি তালাক প্রথা বন্ধের আইনকে সমর্থন করি।” আর নুসরাতের এই বক্তব্যেও সংখ্যালঘু মানুষদের একাংশের মধ্যেও তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয় বলে খবর।

আর এবার অবশেষে সেই বসিরহাটের তৃণমূল প্রার্থী নুসরাত জাহানের সমর্থনে সভা করতে এসে সংখ্যালঘু মানুষদের ক্ষোভকেই প্রশমন করার চেষ্টা করলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন তিনি বলেন, “নুসরাত বাচ্চা মেয়ে, পলিটিক্স বোঝে না। ওর কথা নিয়ে কেউ দুঃখ পাবেন না। আমাদের দল ধর্মনিরপেক্ষ দল। ধর্মনিরপেক্ষতাকে বলি দিয়ে আমরা কিছু করব না। ও আমাদের পার্টির স্ট্যান্ড জানে না। দলের আদর্শ মেনে চলবে, কোনো চিন্তার কারন নেই। নিশ্চিন্তে থাকুন। পার্লামেন্টটা আমিই দেখি।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, তিন তালাক বিরোধী বিলের বিরুদ্ধে যখন বারে বারে সরব হতে দেখা গেছে তৃণমূলকে, ঠিক তখনই বসিরহাটের তৃণমূল প্রার্থী নুসরাত জাহানের সেই তিন তালাক বিরোধী বিল সমর্থন করার বক্তব্য ভোটের মরসুমে তৃণমূলকে অনেকটাই বিপাকে ফেলে দিল বলে আশঙ্কায় ভোগা তৃণমূল নেত্রী ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে “নুসরাত বাচ্চা মেয়ে, পলিটিক্স বোঝে না। আমিই সমস্ত কিছু দেখব” বলে সংখ্যালঘু মানুষদের ভোটব্যাংকে যাতে আর কেউ থাবা বসাতে না পারে, তার মরিয়া চেষ্টা করলেন বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ। যদিও এই নিয়ে বিজেপি কিছুটা বাড়তি সুবিধা পেলো বলেই মত রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top