এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মুকুল-শঙ্কুর হাত ধরে এবার খোদ কলকাতার বুকে তৃণমূলের যুব সংগঠনে বড়সড় ভাঙন ধরালো বিজেপি

মুকুল-শঙ্কুর হাত ধরে এবার খোদ কলকাতার বুকে তৃণমূলের যুব সংগঠনে বড়সড় ভাঙন ধরালো বিজেপি

লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে বিজেপি ১৮ টি আসন জেতার পরেই, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে শাসকদল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক লেগেছে। রাজনৈতিক গুরু মুকুল রায় যখন তৃণমূলের মাদার সংগঠনকে ভেঙে ছিন্নভিন্ন করে দিচ্ছেন, তখন প্রিয়তম শিষ্য শঙ্কুদেব পণ্ডা একই দায়িত্ব নিয়ে নিয়েছেন তৃণমূলের ছাত্র ও যুব সংগঠনে থাবা বসাতে। এতদিন, শঙ্কুদেব পণ্ডার হাত ধরে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছিলেন যুব ও ছাত্র নেতারা।

কিন্তু, এবার মুকুল-শঙ্কুর ম্যাজিক শুরু হয়ে গেল খোদ কলকাতার বুকে। শহর কলকাতায় তৃণমূলের গড় বলে পরিচিত এন্টালিতে এক বড়সড় সমাবেশ করে বিজেপি। সেখানে অন্তত হাজার দশেক বিজেপি সমর্থকের জমায়েত ছিল, যা রীতিমত চমকে দিয়েছে রাজনৈতিক মহলকে। এদিন, শঙ্কুদেব পণ্ডার নির্দেশিকায় মুকুল রায়ের হাত ধরে এন্টালি ও সংলগ্ন এলাকার, কলকাতা পুরসভার অন্তত ১০ টি ওয়ার্ড থেকে হাজার খানেক যুব নেতা ও কর্মী তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

খোদ কলকাতার বুকে, শাসকদলের যুব সংগঠনে ইদানিংকালে এতবড় ভাঙন দেখা যায় নি! ফলে রীতিমত চমকে গেছে রাজনৈতিক মহল। কেননা, সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে বিজেপির প্রবল ঝড় চললেও, কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকায় সেইভাবে দাঁত ফোটাতে পারেনি গেরুয়া শিবির। শহর কলকাতার দুটি লোকসভা আসনেই জিতেছেন তৃণমূল প্রার্থীরা। কিন্তু, বিজেপির পাখির চোখ বিধানসভা নির্বাচন – আর তাই, সেখানে ভালো ফল করতে গেলে কলকাতা পুর-এলাকায় সংগঠন বাড়াতেই হবে বলে অভিমত রাজননীতিক বিশেষজ্ঞদের।

আর তা উপলব্ধি করেই এবার শহর কলকাতায় যুব সংগঠনকে শক্তিশালী করতে আসরে অবতীর্ন হলেন শঙ্কুদেব পণ্ডা। এদিনের যোগদান অনুষ্ঠানের আগে, মঞ্চে নিজের বক্তব্য রাখেন শঙ্কুদেব পণ্ডা। বহুদিন বাদে প্রকাশ্য মঞ্চে বক্তব্য রাখতে শোনা গেল তাঁকে, তবে তিনি যে পুরোনো ছন্দেই আছেন – তা তাঁর প্রতিটা কথাতেই এদিন প্রমাণিত। একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ হানলেন শাসকদলের বিরুদ্ধে, কিন্তু একেবারেই স্বকীয় ভঙ্গিতে হাস্যরসে মুড়ে। যা কিনা তাঁর টিআরপি, একসময় যা মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখতে তৃণমূলের ছাত্র ও যুব সংগঠনকে।

সেই একই ছন্দে এদিন তিনি আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে ব্যাট করে গেলেন তাঁর নতুন দল বিজেপির হয়ে। নাম না করে তীব্র আক্রমনের জালে বিঁধলেন তৃণমূলের অঘোষিত দুনম্বর নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। প্রসঙ্গত, তাঁর অনুগামীরা দাবি করে থাকেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের ভাইপো অভিষেক বান্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক উত্থান ঘটাতে গিয়েই, শঙ্কুদেব পণ্ডার রাজনৈতিক ক্যারিয়ারকে নাকি ‘বলি’ দিয়েছিলেন! এদিন সেই অভিষেক ব্যানার্জি সম্পর্কেই নাম না করে শঙ্কুদেব জানান, যে দল চালায় দলের দুনম্বর সে দল কখনো এক নম্বর পরিষেবা দিতে পারে না! আর কি বললেন নিজের বক্তৃতায়? দেখে নিন নিচের ভিডিওতে –

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!