এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > শহীদ পুলিশ অফিসার অমিতাভ মালিক স্মরণে অনন্য সম্মান তৃণমূল পরিচালিত পুরসভার

শহীদ পুলিশ অফিসার অমিতাভ মালিক স্মরণে অনন্য সম্মান তৃণমূল পরিচালিত পুরসভার

দার্জিলিংয়ের জঙ্গলে অপারেশন করতে বেরিয়ে মৃত্যু বরণ করে নেওয়া সৎ, নির্ভীক পুলিশ অফিসার অমিতাভ মালিকের স্মৃতি আজও তরতাজা। 26 বছর বয়সী এই যুবকের মৃত্যু এখনও মেনে নিতে পারেননা কেউই।

দিনটা ছিল 2017 র 13 ই অক্টোবর। ভোর পৌনে চার টা নাগাদ খবর পেয়ে দার্জিলিংয়ের জঙ্গলে অপারেশন করতে বেরিয়েছিলেন সাব-ইন্সপেক্টর অমিতাভ মালিক। কিন্তু গুলি পাল্টা গুলিতে সেই দিনই থেমে গিয়েছিল তার জীবনের হৃৎস্পন্দন।

আর এই তরুণ তরতাজা সাব ইন্সপেক্টরের মৃত্যুতে তখন শোকাহত হয়ে পড়েছিল গোটা বাংলা। আর এই পুলিশ অফিসারের মৃত্যুর পরই তার স্মৃতির উদ্দেশ্যে মধ্যমগ্রামে তার বাড়ির পাশে একটি পার্ক তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেয় মধ্যমগ্রাম পৌরসভা। অবশেষে আজ সেই পার্কের উদ্বোধন হতে চলেছে।

সূত্রের খবর, এই পার্কের নাম দেওয়া হয়েছে “শহীদ অমিতাভ মালিক স্মৃতিরক্ষা উদ্যান।” আজ সন্ধ্যা 6 টায় এই পার্কের উদ্বোধন করবেন মধ্যমগ্রামের বিধায়ক তথা চেয়ারম্যান রথীন ঘোষ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাংসদ ডাঃ কাকলি ঘোষ দস্তিদার ছাড়াও সেই নিহত পুলিশ অফিসার অমিতাভ মালিকের বাবা মা এবং ভাই। কিন্তু পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সেখানে আমন্ত্রিত জানালেও কেন সেখানে ব্রাত্য রয়ে গেলেন সেই অমিতাভ মালিকের স্ত্রী বিউটি মালিক?

এদিন এই প্রসঙ্গে সেই অনুষ্ঠানের অন্যতম উদ্যোক্তা তথা স্থানীয় কাউন্সিলর পংকজ কান্তি চন্দ্র বলেন, “বিউটি মালিক এখন অমিতাভর বাবা-মার সঙ্গে যোগাযোগই রাখেন’ না। অনেক খারাপ ব্যবহারও করেছেন। তাই তাকে আমন্ত্রণ করার কোনো প্রশ্নই নেই।”

সত্যিই কি তার বৌদি তাদের সাথে যোগাযোগ রাখেন না? এদিন এই প্রশ্নের উত্তরে অমিতাভ মালিকের ভাই অরুণাভ মালিক বলেন, “আমরা পুরসভার উদ্যোগে খুব খুশি। আমরা সকলেই সেখানে যাব। কিন্তু বৌদির সাথে আমাদের কোনো যোগাযোগ নেই।” তবে পারিবারিক বিবাদ যে পর্যায়ে পৌঁছক না কেন, নিহত পুলিশ অফিসার অমিতাভ মালিকের স্মৃতি রক্ষার্থে মধ্যমগ্রাম পুরসভার এহেন উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছেন সকলেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!