এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ৭০ বছরেও যা হয়নি দীর্ঘ আইনি জটিলতা কাটিয়ে তাই করে দেখালেন মুখ্যমন্ত্রী, খুলল “কিসমত কানেকশন”!

৭০ বছরেও যা হয়নি দীর্ঘ আইনি জটিলতা কাটিয়ে তাই করে দেখালেন মুখ্যমন্ত্রী, খুলল “কিসমত কানেকশন”!

ক্ষমতায় আসার পরই রাজ্যের সকল মানুষের অন্ন, বস্ত্র ও বাসস্থানকে নিশ্চিত করতে উদ্যোগী হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সরকারের পক্ষ থেকে চেষ্টা করা হলেও কিছু খামতি থেকেই গেছিল। কিন্তু এবারে দীর্ঘদিনের সেই খামতি পূরণ করে চমক দিল রাজ্যের মা মাটি মানুষের সরকার।

এবার হাওড়া পুরসভার আট নম্বর ওয়ার্ডের বেলগাছিয়ার কিসমত কলোনির 195 জন জমির মালিকের হাতে দলিল তুলে দেওয়া হল সরকারের পক্ষ থেকে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বাংলাদেশ থেকে আসার পর এই হাওড়ার আট নম্বর ওয়ার্ডের বেলগাছিয়ায় বেশ কিছু মানুষ বসবাস করতে শুরু করেন।

বাসস্থানের জন্য ভাগাড়ের পাশে একটি জায়গাকে বেঁছেও নেয় তারা। পরবর্তীকালে তাদের বাসস্থান নিশ্চিত করতে সরকারের পক্ষ থেকে একটি জমিও বরাদ্দ করা হয়। কিন্তু সেই জমির মালিকানা এতদিন সেই বাসিন্দাদের হাতে ছিল না। ফলে তারা সবরকম সরকারী সাহায্য থেকে বঞ্চিত ছিলেন।

আর এই জমির মালিকানার দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে বিগত বাম সরকারের আমলে বিভিন্ন মন্ত্রীর কাছে দাবি দাওয়া করলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। অবশেষে এই অসহায় মানুষগুলির ব্যথা অনুভব করলেন রাজ্যের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কয়েক বছর আগেই এখানকার বাসিন্দাদের মালিকানা যাতে সুনিশ্চিত করা যায় সেইজন্য রাজ্যের পুনর্বাসন দফতরকে নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর তারপরই আইনি জটিলতা কাটিয়ে যাতে এই সমস্ত মানুষ তাদের জমির মালিকানা নিজেদের হাতে পায়, সেই জন্য এক প্রক্রিয়া শুরু করে রাজ্যের পুনর্বাসন দপ্তর। অবশেষে সেই অসহায় মানুষগুলোর মুখে হাসি ফুটিয়ে এবার সেখানকার 195 জনের হাতে জমির মালিকানা ও দলিল তুলে দিল রাজ্যের পুনর্বাসন দপ্তর।

সূত্রের খবর, শুক্রবার বেলগাছিয়ার এক অনুষ্ঠানে প্রথম পর্যায়ে এখানকার 195 জনের হাতে সেই দলিল তুলে দেন রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায়। উপস্থিত ছিলেন, জেলা শাসক চৈতালি চক্রবর্তী সহ অন্যান্যরা। তবে এই 195 জনই নয়, পরবর্তীকালে বাকিদের হাতেও এই জমির দলিল তুলে দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন।

এদিন এই প্রসঙ্গে মন্ত্রী অরূপ রায় বলেন, “এই জমির মালিকানার জন্য উদ্বাস্তু পরিবারগুলি দীর্ঘদিন ধরে লড়াই চালিয়েছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই ব্যাপারে উদ্যোগ নিয়েছি আমরা। আর তাই আমরা প্রথম পর্যায়ে 195 জনকে জমির দলিল তুলে দিলাম। বাকিদেরও আগামী সপ্তাহের মধ্যে এই দলিল তুলে দেওয়া হবে।” সব মিলিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে নিজেদের জমির মালিকানা পেয়ে প্রবল খুশি বেলগাছিয়ার এই উদ্বাস্তু মানুষগুলো।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!