এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > বড়মার সই জাল নিয়ে তীব্র চাপানউতোর শুরু ঠাকুরবাড়িতে, রহস্য সমাধানে সিআইডির “হ্যান্ড রাইটিং এক্সপার্ট”

বড়মার সই জাল নিয়ে তীব্র চাপানউতোর শুরু ঠাকুরবাড়িতে, রহস্য সমাধানে সিআইডির “হ্যান্ড রাইটিং এক্সপার্ট”

মতুয়া মহাসঙ্ঘে এখন বড়মা বীণাপাণি দেবীর সই আসল নাকি নকল তা নিয়ে শুরু হয়েছে শাসক বনাম বিরোধীর মধ্যে তীব্র টানাপোড়েন। বিজেপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে যে, বড়মা বীণাপাণি দেবী কেন্দ্রের পক্ষ থেকে আনা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে সমর্থন জানানোর জন্য তাঁর সই করা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একটি চিঠি দিয়েছেন।

অন্যদিকে বড়মার সই নকল করা হয়েছে বলে পাল্টা মাঠে নেমেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। আর দাবি পাল্টা দাবিকে নিয়েই এখন তীব্র সরগরম ঠাকুরবাড়ি। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 11 ই ফেব্রুয়ারি মতুয়া মহাসঙ্ঘের সঙ্ঘাধিপতি হিসেবে শান্তনু ঠাকুর একটি সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন “রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে যাতে তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থন করে, সেই ব্যাপারে বড়মা নিজের সই করা একটি চিঠি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাঠিয়েছেন।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

তবে বড়মার সই জাল করা হয়েছে বলে সেদিন রাতেই অভিযোগ করে গাইঘাটা থানায় সেই শান্তনু ঠাকুর এবং মঞ্জুলকৃষ্ণ ঠাকুরের বিরুদ্ধে এফআইআর করেন সেই ঠাকুর পরিবারেরই অন্যতম সদস্য তথা তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ মমতা বালা ঠাকুর। ইতিমধ্যেই তৃণমূল সাংসদ মমতা বালা ঠাকুরের এই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, এই ব্যাপারে গাইঘাটা থানার পুলিশের তরফে ইতিমধ্যেই শান্তনু ঠাকুরের কাছে একটি নোটিশও পাঠানো হয়েছে। তবে শান্তনুবাবুর তরফে অবশ্য সেই নোটিশ গ্রহণ করা হয়নি। অন্যদিকে ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ জানার জন্য শান্তনু ঠাকুরকে পুলিশের পক্ষ থেকে ডাকা হলেও তিনি না যাওয়ায় পুলিশ দিয়ে তাঁদের হেনস্থা করা হচ্ছে এই দাবি তুলে গাইঘাটা থানায় একটি অবস্থান করতেও দেখা যায় সেই মতুয়াদের একাংশকে।

আর বড়মার সই আসল নাকি নকল এই ঘটনা নিয়ে যখন শাসক বনাম বিরোধীর মধ্যে তীব্র উত্তেজনা চলছে, ঠিক তখনই সেই বীণাপাণি দেবীর সইয়ের যৌক্তিকতা জানবার জন্য সিআইডির হ্যান্ডরাইটিং এক্সপার্টদের কাছে সাহায্য নিতে পারে পুলিশ বলে জানা গেছে। জানা গেছে, ইতিমধ্যেই ব্যাপারে চূড়ান্ত প্রস্তুতিও শুরু করা হয়েছে। সব মিলিয়ে এখন সিআইডির হ্যান্ড রাইটিং এক্সপার্টরা বড়মার এই সই সম্পর্কে ঠিক কি বলে এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!