এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > অধ্যক্ষের ঘরের টেবিলে মদের বোতল, তাস এবং কন্ডোমের প্যাকেট – নতুন শিক্ষাব্যাবস্থা দেখছে বাংলা

অধ্যক্ষের ঘরের টেবিলে মদের বোতল, তাস এবং কন্ডোমের প্যাকেট – নতুন শিক্ষাব্যাবস্থা দেখছে বাংলা

শিক্ষকনিয়োগ থেকে শুরু করে শিক্ষাব্যবস্থা দুর্নীতির কোপে জর্জরিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্য। এমন অভিযোগে বিরোধীরা বারবারই সরব হয়েছেন। আন্দোলন, প্রতিবাদও কম হয়নি। তবে এবারে শিক্ষাঙ্গনের নতুন নজির দেখতে আৎকে উঠবেন আপনিও। অধ্যক্ষের ঘরের টেবিলে পড়ে রয়েছে খান কতোক মদের বোতল,কয়েক প্যাকেট তাস এবং কন্ডোমের প্যাকেটও। বোতল বেশিরভাগই খালি। কয়েকটা তলায় পড়ে রয়েছে সোমরস। লন্ডভন্ড অবস্থা অধ্যক্ষের ঘরের। এমন ভিডিওই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এদিন। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের তুফানগঞ্জ আইটিআই কলেজে। ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে কলেজ চত্বরে। চাঞ্চল্য ছড়ালো উত্তরবঙ্গেও। আর এবারও বিতর্কের মূলে রয়েছে সেই শিক্ষাঙ্গনই।

কলেজ সূত্রের খবর থেকে জানা গিয়েছে, তুফানগঞ্জ এমএনএন হাইস্কুলের তিন ছাত্র কারিগরি শিক্ষার ফর্ম নিতে আইটিআইতে আসে। তখনই তারা অধ্যক্ষের ঘরে ঢুকে দেখে, মদ,মাছভাজা সহযোগে রীতিমতো মোচ্ছবের আসর বসিয়েছে অধ্যক্ষ এবং সহকারী অধ্যক্ষ। ওই তিন ছাত্র আরো অভিযোগে জানায়, ঘরে ঢুকে তারা দেখে অধ্যক্ষের টেবিল-এর উপরে থরে থরে পড়ে রয়েছে মদের বোতল, প্যাকেট, কন্ডোমের প্যাকেট থেকে শুরু করে সিগারেটের প্যাকেটও। সময় নষ্ট না করে ছাত্ররা সঙ্গে সঙ্গেই মোবাইল ফোনে ছবি এবং ভিডিও করে নেয় এসবের। তারপর ভাইরাল করে দেয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

শুধু তাই নয়,কলেজের বাকি ছাত্রদেরও খবর দেয় তাঁরা। মুহূর্তেই কলেজে তুলকালাম কান্ড বেঁধে যায়। প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখায় ছাত্রেরা। বিক্ষোভের খবর পেয়ে কিছু স্থানীয় বাসিন্দারাও ছুটে আসেন। অধ্যক্ষের ঘরে ঢুকেই তাঁদের চোখ কপালে উঠে যায়। দিন-দুপুরে মদের আসর দেখে ক্ষেপে আগুন হয়ে যান স্থানীয়রা। রীতিমতো অধ্যক্ষ এবং সহকারী অধ্যক্ষকে মারধোর শুরু করে তাঁরা। আটক করে রাখা হয় তাদের। এরপর পরিস্থিতির সামাল দিতে ছুটে আসেন স্থানীয় তৃণমূল সদস্যরা। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। তাঁরা এসেই স্থানীয়দের কবল থেকে উদ্ধার করা হয় অভিযুক্ত দুজনকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

শিক্ষাঙ্গণকেই দিনে দুপুরে মদের ঠেক বানাচ্ছেন শিক্ষকরা। এটা কীভাবে সম্ভব? রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থা কোন তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে তাহলে? কাদের হাতে রয়েছে নবীন প্রজন্মের ভবিষ্যত গড়ার মতো মহান কাজ? এরকম গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু প্রশ্ন স্বাভাবিকভাবেই উঠে আসছে। তবে এসব প্রশ্নের কোনো উত্তরই পাওয়া যায়নি তুফানগঞ্জ আইটিআই কলেজের অধ্যক্ষ উইলিয়াম সোরেন এবং সহকারি অধ্যক্ষের কাছ থেকে। তাঁরা রীতিমতো মদ্যপানের কথা অস্বীকারই করলেন। তাদের মিথ্যা কথা শুনে ছাত্র সহ স্থানীয়দের বিক্ষোভের পারদ আরো মাথাচাড়া দিয়ে উঠল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!