এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "tmc"

মিটছে দূরত্ব? ফিরছেন তৃণমূলে? ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে বয়ান দিয়ে জল্পনা তীব্র করলেন প্রাক্তন সাংসদ!

এনআরসি - র প্রতিবাদে মতুয়াদের ধরনায় দেখা মিলছে না মমতাবালা ঠাকুরের, আর এই নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক যা নিয়েই জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিলো রাজ্য জুড়ে। তিনি বলেছিলেন "কে এল, কে এল না, তাতে কিছু যায় আসে না। মতুয়া কোনও পরিবারের না। উনি আসবেন, আসবেন না, ওনার ব্যাপার। উনি

প্রাক্তন সাংসদ ও মন্ত্রীর চাপানউতোর, মমতার চিন্তা বাড়ছে

প্রাক্তন সাংসদ ও উত্তর চব্বিশ পরগনার তৃণমূলের জেলা সভাপতি ও রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের চাপানউতোর নিয়ে জোর শোরগোল রাজ্যে। ধর্ণা মঞ্চ থেকে ঠাকুরনগরের ঠাকুবাড়ির পরিচয়কে প্রশ্নের মুখে ফেলেছেন জ্যোতিপ্রিয়। এদিন ধর্নামঞ্চে তিনি বলেন, 'হরিচাঁদ-গুরুচাদ মৈথিলি ব্রাহ্মণ। মতুয়া না।' আর এই নিয়েই ঠাকুরবাড়ির মমতাবালা বলেন, 'আমাকে কারোর পছন্দ নাও হতে পারে কিন্তু

এবার কি এই প্রাক্তন সংসদ সম্পর্ক ছিন্ন করতে চলেছে তৃণমূলের সঙ্গে, জোর জল্পনা

এনআরসি - র প্রতিবাদে মতুয়াদের ধরনায় দেখা মিলছে না মমতাবালা ঠাকুরের, আর এই নিয়ে বিস্ফোরক জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক যা নিয়েই জল্পনা রাজ্য জুড়ে। এদিন তিনি বলেন "কে এল, কে এল না, তাতে কিছু যায় আসে না। মতুয়া কোনও পরিবারের না। উনি আসবেন, আসবেন না, ওনার ব্যাপার। উনি অসুস্থ আমায় বলেছেন। মমতা

হেরে গেলো তৃণমূল দাবি বিজেপি নেতার, কেন বললেন একথা জেনে নিন

বিরোধীদের হাজার আপত্তি স্বত্তেও এদিন রাতে রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেলো নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আর তারপরেই বিজেপির রাজ্য দফতর মুরলীধর সেন স্ট্রিটে উত্‍সবে মেতে ওঠেন নেতা ও কর্মীসমর্থকরা। কিন্তু তার পরেও তৃণমূলের মুখপত্র তথা রাজ্যসভার সদস্য ডেরেক ও ব্রায়েন বলেন, পশ্চিমবঙ্গে এই বিল লাগু হবে না। যদিও বিজেপির রাজ্যসভার সদস্য স্বপন দাশগুপ্ত

এনআরসি আতঙ্কে বড়সড় ধাক্কা গেরুয়া শিবিরে, ঘর গোছাচ্ছে তৃণমূল

ফের বিজেপির সঙ্গে ত্যাগ করে তৃণমূলে যোগ দিলেন পাঁচ শতাধিক কর্মী। পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহমুদ খানের হাত ধরে তাঁরা তৃণমূলে যোগদান করেন বলে জানা গেছে। তৃণমূলের দাবি এনআরসি লাগু করলে দেশ ছাড়া হতে হবে- এই আতঙ্কে বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছেন তাঁরা। সারা দেশেই

নেতা বিধায়কের ঘুম উড়য়ে ফের নয়া স্ট্রাটেজি নিলো প্রশান্ত কিশোর , জেনে নিন

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে 42 এ 42 এর স্লোগান তোলা তৃণমূলকে আটকে যেতে হয়েছে 22 টি আসনেই। যেখানে বিজেপি দুই থেকে তাদের 18 করে নিয়েছে। আর এই পরিস্থিতিতে তৃণমূলের ঘাড়ের ওপরে নিঃশ্বাস ফেলা গেরুয়া শিবির কিভাবে এতটা ভোট বৃদ্ধি করল, তা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছিল গোটা ঘাসফুল শিবির। আর দলের ভাবমূর্তি ফেরাতে

কামানোয় অভ্যস্ত নেতাদের সতর্ক! জোর করে পৌরসভা দখলের পরিকল্পনা বাদ দিতে বললেন ফিরহাদ হাকিম!

  কোনো দলের অন্দরে ক্ষমতার জাকিয়ে বসলে, তার পরিস্থিতি যে কতটা ভয়ানক হতে পারে, তা হয়ত লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের পর উপলব্ধি করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। একদিকে দলীয় নেতাদের দুর্নীতি আর অপরদিকে মানুষকে ভোট দিতে না দেওয়ার অভিযোগ শাসকদলের বিরুদ্ধে নতুন কিছু নয়। পঞ্চায়েত থেকে পৌরসভা, তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর মানুষের ভোটের

জানুয়ারিতেই মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণে বাংলা থেকে আরও মন্ত্রী? তালিকায় কাদের নাম? জল্পনা চরমে

  বাংলাকে কি এবার বেশি গুরুত্ব দিতে চলেছে ভারতীয় জনতা পার্টি! কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণ নিয়ে এই সমস্ত সংশয়, জল্পনাই উসকে উঠতে শুরু করেছে। বস্তুত, গত লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় ব্যাপক প্রচার করে বিজেপির পক্ষে হাওয়া তুলতে সক্ষম হয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। বাংলার 42 টি আসনের মধ্যে 18 টি আসন দখল করে তৃণমূল কংগ্রেসকে কার্যত

বিজেপিকে আটকাতে পিকের স্ট্র্যাটেজি তৈরি? তৃণমূলকে শুধু এই অস্ত্রে শান দিতে পরামর্শ!

  2011 সাল থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রবল জনপ্রিয়তার উপরে ভরসা করে বাংলায় ক্ষমতা বিস্তার করতে সক্ষম হয়েছিল শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু সাংগঠনিকভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের শক্তি কখনই রাজ্যের ভূতপূর্ব শাসকদল সিপিএমের মতো শক্তিশালী ছিল না। মূলত তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠনের সব থেকে বড় শক্তি ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনপ্রিয়তা। এই শক্তির উপর ভর করেই

বাঁকুড়ার গেরুয়া মাটিতে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে তৃণমূল! বিজেপি শিবিরে লাগল বড়সড় ভাঙন

  লোকসভা নির্বাচনে বাঁকুড়া জেলায় অত্যন্ত ভালো ফল করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। এই জেলার দুটি লোকসভা আসন বাঁকুড়া এবং বিষ্ণুপুরে পদ্ম ফুল ফুটেছে। শুধু তাই নয়, জেলার অধিকাংশ পৌরসভা আসন থেকে শুরু করে পঞ্চায়েত স্তরে প্রায় সবকটি জায়গাতেই শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের তুলনায় লোকসভা ভোটে এগিয়ে রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু

Top
error: Content is protected !!