এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "tmc"

দলীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে একরাশ অভিযোগ জানাতে তৃণমূল নেত্রীর কাছে যাচ্ছেন প্রাক্তন মন্ত্রী

লোকসভা নির্বাচনে সারা উত্তরবঙ্গে কার্যত ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে গেছে তৃণমূল কংগ্রেস। রায়গঞ্জ লোকসভা দখলের ব্যাপারে তৃণমূল এবার আত্মপ্রত্যয়ী থাকলেও তাদের সেই আশা পূরণ হয়নি। এখানেও জয়লাভ করেছেন বিজেপির দেবশ্রী চৌধুরী। লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই "দিদিকে বলো" প্রকল্প করে সেই দলকে জনসংযোগে পাঠিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা

মন্ত্রীর সিদ্ধান্তে রূপনারায়ণের চরে এলাকাবাসীদের বাড়ছে ক্ষোভ, চাপানউতোর রাজ্যে

এবার এক অন্য রকম বিতর্ক তৈরি হয়েছে রাজ‍্যে। রাজ্যের শাসকদলের মন্ত্রীর বক্তব্যে এক অন্য রকম বিতর্ক তৈরি হয়েছে মায়াচরে। রাজনীতির টানাপোড়েন হামেশাই দেখতে পাই আমরা। কিন্তু মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনা নিয়েও যে বিতর্ক তৈরি হতে পারে, সে সম্পর্কে কোন ধারণাই ছিলনা রাজ্যবাসীর। আর এই ঘটনাই ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরে। এই

পুরসভা ধরে রাখতে নয়া উদ্যোগ নিল তৃণমূল, কটাক্ষ বিজেপির

লোকসভা ভোটে বিপর্যয়ের পর দলকে জনসংযোগে বাঁধতে মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। "দিদিকে বলো" প্রকল্প করে গোটা তৃণমূল দলকেই সাধারণ মানুষের সঙ্গে মেশবার পরামর্শ দিয়েছিলেন তিনি। সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে দেখা গেছে, তৃণমূল যে সমস্ত পুরসভা বা বিধানসভা দখল করেছে, সেই সমস্ত পৌরসভা বা বিধানসভাতেও তাদের হার হয়েছে। কিন্তু সামনে

রাজ্য বিজেপির দাবি মেনে নিলেন রাজ্যপাল, ফের সংঘাতের পথে কেন্দ্র-রাজ্য-রাজ্যপাল

দূরত্ব কি আরও বাড়ল! যত দিন যাচ্ছে, ততই যেন রাজ্য বনাম রাজ্যপালের সম্পর্কের তিক্ততা বেড়েই চলেছে। শুরুটা হয়েছিল, রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকারের মন্তব্যকে কেন্দ্র করে। পরবর্তীতে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্তার ঘটনায় রাজ্যপালের উপস্থিতি এবং তার পরিপ্রেক্ষিতে সরকারের কিছুটা সমালোচনা করে রাজভবনের প্রধান

ফের তৃণমূলের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেটের অভিযোগ- বাতিলই হয়ে গেল নির্বাচন!

মাঝে এক বছর নির্বাচন হয়নি। কথা ছিল 31 অক্টোবর তারকেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত মন্ডলীর কার্যকরী সমিতির সেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু প্রথম থেকেই এই নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অশনিসংকেত দেখতে পাওয়ায় অনেকের মনেই সেই নির্বাচন হওয়া নিয়ে তীব্র জল্পনার সৃষ্টি হয়। দেখা যায়, নির্বাচনে যে সমস্ত প্রার্থীরা অংশগ্রহণ করছেন, তাদের অনেকেই বিভিন্ন রকম কারণ

অর্জুন সিংকে ধাক্কা দিয়ে বড়সড় ঘোষণা তৃণমূলের মন্ত্রীর

2019 এর লোকসভা ভোটের পর থেকে দলবদল এর প্রবণতা অনেক বেশি করে লক্ষ্য করা যায়। এই দলবদল এর হাওয়ায় বিজেপির দিকেই ঝোঁক বাড়ে সবার। লোকসভা ভোটে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কোনরকমে নিজেদের গড় বাঁচিয়েছিলেন। পশ্চিমবঙ্গের 42 টি আসনের মধ্যে তাঁরা অধিকার করেছিলেন 22 টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি দল 2014 থেকে 2019

তৃণমূলের সুযোগ-সুবিধা নিয়ে “বহিরাগতকে” ভোট! অভিমান ঝরে পড়ছে হেভিওয়েট মন্ত্রীর গলায়!

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল 42 এ 42 স্লোগান দিলেও 22 টি আসনে নেমে আসতে হয়েছে তাদের। সারা রাজ্য থেকে প্রায় 18 টির মত আসন দখল করেছে গেরুয়া শিবির। তবে বিজেপি যে সমস্ত আসন দখল করেনি, সেখানেও বিজেপির ভোট প্রবলভাবে বৃদ্ধি হওয়ার ঘটনা লক্ষ্য করা গেছে। তৃণমূলের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর

তৃণমূল থেকে বিজেপিতে গিয়ে এবার কালিপূজোতেই নিজের “শক্তির” পরিচয় দিতে চান এই হেভিওয়েট নেতা

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের শেষ কথা বলে পরিচিত বিপ্লব মিত্র বেশ কিছুদিন হয়ে গেল বিজেপিতে যোগদান করেছেন। কিন্তু মিত্র পরিবারের মেজ ছেলে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় তৃণমূলে থাকার সময় শেষ কথা বলেও বিজেপিতে যোগদানের পর থেকে তার ক্যারিশ্মা দিনকে দিন কমে আসতে শুরু করেছে বলে দাবি তৃণমূলের। তবে নিজের ক্লাব বলে পরিচিত

নিজের গড়ে শব্দবাজি ফাটিয়ে এবার সিপিএমের হাতে বেধড়ক মার খেলেন তৃণমূল প্রধান!

রাজ্যে এখন প্রায় যতগুলো ঘটনাই ঘটে থাকে, আর সেগুলো যদি রাজনৈতিক ঘটনা হয়, তাহলে সেক্ষেত্রে সংঘর্ষ জড়াতে দেখা যায় শাসক দল তৃণমূল এবং বিরোধী দল বিজেপিকে। সেদিক থেকে একদা রাজ্যের দোর্দণ্ডপ্রতাপ শক্তিশালী দল বলে পরিচিত বামফ্রন্টকে সেভাবে আর খবরের শিরোনামে উঠে আসতে দেখা যায় না। কিন্তু এবার শব্দ বাজি ফাটানোর

দিনের বেলায় নৃশংসভাবে কুপিয়ে খুন দাপুটে তৃণমূল নেতাকে, জনরোষ নাকি রাজনৈতিক? বাড়ছে জল্পনা

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য জুড়ে রাজনৈতিক হানাহানির ঘটনা ক্রমশ বেড়ে চলেছে। নৃশংসতার বিচারে একে-অপরকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। উল্লেখ্য, 2019 এর লোকসভা ভোটের পরবর্তী সময় থেকেই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে খুনোখুনির রাজনীতি। এই খুনোখুনি কমার তো নাম নিচ্ছেই না বরং দিন দিন বেড়েই চলেছে। একের পর এক প্রাণের বলি হচ্ছে এই রাজনৈতিক

Top
error: Content is protected !!