এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "tmc"

খুব শীঘ্রই ঢেলে সাজানো হবে তৃণমূলের সংগঠন? জল্পনা বাড়ালেন হেভিওয়েট মন্ত্রী- সাংসদ

লোকসভা নির্বাচনে যে সমস্ত জেলার তৃণমূলের ফলাফল খারাপ হয়েছিল, সেই সমস্ত জেলার সংগঠনে আমূল পরিবর্তন আনতে দেখা গেছে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। আর বিভিন্ন জেলায় দলের দায়িত্ব পাওয়া নেতানেত্রীরা এবার সেই জেলার সংগঠনকে চাঙ্গা করতে কি নতুন করে কমিটি তৈরি করতে চলেছেন! সূত্রের খবর, খুব শীঘ্রই কৃষ্ণনগর সাংগঠনিক জেলা

বাংলার বুকে জন্মাষ্টমীর পদযাত্রাই মিলিয়ে দিল বিজেপি-কংগ্রেসের তাবড় নেতাদের! জানুন বিস্তারিত

ভগবান কৃষ্ণই যেন মিলিয়ে দিলেন সকলকে। শুক্রবার পুরাতন মালদহে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে শোভাযাত্রাই যেন সব রাজনৈতিক দলকে একত্রিত করে দিল। যেখানে মিছিলে একসঙ্গে হাঁটতে দেখা যেত তৃণমূল, বিজেপি, কংগ্রেসের নেতাদের। সূত্রের খবর, এদিনের এই শোভাযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন উত্তর মালদহ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু, পুরাতন মালদহ পুরসভার চেয়ারম্যান তৃণমূল কংগ্রেসের

মা দুর্গার “পদ্মযোগ!” শারদোৎসব নিয়ে তুলকালাম মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ায়

সে ত্রেতা যুগের কথা। যখন রাবণকে বধ করার জন্য শ্রীরামচন্দ্র পদ্ম ফুল দিয়ে মাতা দুর্গার পুজো করেছিলেন। আজকালকার দিনে যেখানে আগের দিনের কথা পরের দিন কেউ মনে রাখেনা, সেখানে দুই যুগ আগের কথা কে মনে রাখবে! তার ওপরে এখন সবকিছুই রাজনীতির বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেখানে ছাড় পাননা দেবতাও। তাই এবার মা

বিজেপির সদস্য হতে উত্তরবঙ্গ জুড়ে তুমুল আগ্রহ, তৃণমূলের অভিযোগ, ভুল বোঝাচ্ছে গেরুয়া শিবির

লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গের আটটি লোকসভা আসনের মধ্যে প্রায় সাতটিতেই জয়লাভ করেছে বিজেপি। আর উত্তরবঙ্গে আটটি আসনের মধ্যে খাতায় খুলতে পারেনি রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। আর লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গ থেকে বিজেপির এই বিপুল জয়ের পরই সারাদেশের পাশাপাশি এই রাজ্যেও বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান প্রক্রিয়া শুরু হলে সেই উত্তরবঙ্গে ব্যাপক সাফল্য পেতে

সিঙ্গুরে তাপসী মালিকের মূর্তির জরাজীর্ণ অবস্থা, জোর বিতর্ক!

2011 সালে ক্ষমতায় আসার আগে সিঙ্গুরের আন্দোলন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ক্ষমতার অনেকটা কাছাকাছি পৌঁছে দিয়েছিল। সেদিনের সেই আন্দোলনে তাপসী মালিকের উনুনের ভেতরে থাকা দগ্ধ মৃতদেহ বেরিয়ে আসলে তাঁকে ইস্যু করে সেই সময়কার বাম সরকারের বিরুদ্ধে প্রবল আন্দোলন শুরু করেছিলেন আজকের মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু সময় থেমে থাকে না। আর তাইতো যে

অবৈধ নির্মাণে জড়িত হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা, আদিবাসী বিক্ষোভে উত্তাল মালদা

তিনি মালদা জেলা পরিষদের প্রাক্তন সভাধিপতি। বর্তমানে মৎস্য কর্মাধ্যক্ষও বটে। আর এহেন দাপুটে তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রীর বাড়ি তৈরিকে ঘিরে এবার তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হল। জানা যায়, শনিবার দুপুরে তৃণমূল নেত্রী সরলা মুর্মুর বাড়ি তৈরিকে ঘিরে 34 নম্বর জাতীয় সড়কের ওপর পুরাতন মালদহ ব্লকের আটমাইল আদিবাসী সংগঠন ঝাড়খণ্ড দিশম পার্টির পক্ষ

যারা করে কম্মে খাওয়ার জন্য দলকে ব্যবহার করছেন, এই দল তাদের জন্য আর নয়: রাজীব ব্যানার্জি

লোকসভা নির্বাচনে দলে দুর্নীতি এবং জনসংযোগের অভাবেই 34 থেকে 22 টি আসনে নেমে যেতে হয়েছে রাজ্যের শাসক দলকে। সাধারণ মানুষের সঙ্গে দলের জনপ্রতিনিধিদের যে সংযোগ অতটা ছিল না, তা দলের ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে উঠে এসেছে। যার পর লোকসভা নির্বাচন থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনের বিধানসভা নির্বাচনকে টার্গেট করে দলের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি

মিড ডে মিল পরিদর্শনে বিস্ফোরক তথ্য! খোদ তৃনমূল কাউন্সিলারের স্কুলেই একাধিক অনিয়ম!

সম্প্রতি রাজ্যের একটি স্কুলে মিড ডে মিলে নুন ভাত দেওয়ার ঘটনায় তীব্র আলোড়ন পড়ে যায়। আর তারপরই সরকারের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়। কিন্তু এবার মিড ডে মিলের বিতর্কের মাঝেই ফের আরও এক চাঞ্চল্যকর অভিযোগ আসতে শুরু করল। জানা যায়, বিভিন্ন এলাকার কাউন্সিলররা স্কুলের শিক্ষিকা হওয়া সত্ত্বেও খড়্গপুরের

দিদিকে বলো-তে গ্রামে গিয়ে স্থানীয়দের তাড়া খেয়ে পালিয়ে বাঁচলেন বিধায়ক, পুলিশ এসে করল উদ্ধার

নির্বাচনে কিছুটা বিপর্যস্ত হওয়ার পর দলকে জনসংযোগে পাঠিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। "দিদিকে বলো" প্রকল্প গড়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে দলের নেতা, বিধায়ক, মন্ত্রী, সাংসদদের অভাব অভিযোগ শোনার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের জনপ্রতিনিধিরা এই কর্মসূচি শুরু করে দিয়েছেন। কিন্তু এবার এই জনসংযোগ কর্মসূচিতে গিয়েই রীতিমতো

চাকরিপ্রার্থীই আবার ইন্টারভিউ বোর্ডে! এবিভিপির নেতাকে ঘিরে সরগরম রাজনীতি!

যিনি চাকরিপ্রার্থী তিনিই ইন্টারভিউবোর্ডে রয়েছেন।নেহেরু যুব কেন্দ্রের ভলান্টিয়ার নিয়োগের ইন্টারভিউ বোর্ডে এবিভিপির পুরুলিয়া জেলা প্রমুখের থাকা এবং সেই ইন্টারভিউয়ে সেই এবিভিপি জেলা প্রমুখের আবেদন ঘিরে এখন তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে। জানা গেছে, ঝালদার রাজেশ রায় নামে একজন তৃণমূল কর্মী তার ফেসবুকে একটি তালিকা এবং পুরুলিয়া জেলা এবিভিপির প্রমুখ রহিদাস মাহাতোর একটি

Top
error: Content is protected !!