এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "tmc leaders"

তৃণমূল নেতাদের দুর্নীতি আটকাতে এবার সাধারণের হাতে এফআইআর অস্ত্র তুলে দিলেন অনুব্রত মণ্ডল

  লোকসভা নির্বাচনে সারা রাজ্যে বিজেপি দাপট বাড়ালেও বীরভূম জেলার দুটি লোকসভা কেন্দ্রে তারা পদ্ম ফোটাতে পারেনি। তবে তৃণমূল বীরভূম বোলপুর লোকসভা কেন্দ্র দখল করলেও আশ্চর্যজনকভাবে তাদের ভোট অনেকটাই কমেছে। আর এই পরিস্থিতিতে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল মেটার সাথে সাথেই বিধানসভাভিত্তিক সম্মেলন করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। সংগঠন

দলীয় সহকর্মী খুনে আতঙ্কিত তৃণমূল নেতাদের ভয় কাটাতে সশস্ত্র পুলিশ পাহারার ব্যবস্থা!

  কিছুদিন আগেই খুন হয়েছেন তৃণমূলের কুরবান শা। আর তারপর থেকেই রীতিমত সন্ত্রস্ত হয়ে রয়েছে গোটা এলাকা। তৃণমূল নেতার এই খুনে যেমন এলাকাবাসীরা ভীত, ঠিক তেমনই ভীত হয়ে রয়েছেন তৃণমূল নেতৃত্বরাও। আর এই পরিস্থিতিতে এবার কুরবান শার খুনের ঘটনার পর পাঁশকুড়ার 5 তৃণমূল নেতাকে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে সশস্ত্র দেহরক্ষী দেওয়া

জল্পনা বাড়িয়ে তৃণমূলের “লোভী” নেতাদের ব্যবসা বন্ধ করে দেওয়ার চরম হুমকি দলেরই দাপুটে সাংসদের

  2011 সালে সুশাসনের স্বপ্ন দেখিয়ে ক্ষমতায় বসে ছিল তৃণমূল সরকার। তারপর অনেক জল গড়িয়ে গিয়েছে। কিন্তু মা-মাটি-মানুষের সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীদের তরফ থেকে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগ কিন্তু কমেনি। পঞ্চায়েত প্রধান থেকে জেলা পরিষদের কর্মাধক্ষ, পৌরসভার চেয়ারম্যান থেকে ওয়ার্ডের কাউন্সিলর, প্রায় তৃণমূলের সব স্তরেই দুর্নীতি বাসা বেধেছে বলে দাবি করতে দেখা গেছে

শীর্ষ নেতৃত্বের সিদ্ধান্তে থরহরিকম্প শাসক দলের নেতা-নেত্রীরা, কাটছে না আতঙ্ক

লোকসভা নির্বাচনে এবার তৃণমূলের ফলাফল অত্যন্ত খারাপ হয়েছে। জনসংযোগে সব সময় ভরসা রাখা তৃণমূল দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকলকে সাধারণ মানুষের সঙ্গে মেশবার পরামর্শ দিলেও ক্ষমতায় আসার পর তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যে দম্ভ অধিক পরিমাণে কায়েম করেছিল বলে মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। তবে ক্ষমতার স্বাদ বড়ই কঠিন। যে দল যখন ক্ষমতায় যায়, তখন

ভেঙে পড়া সংগঠনকে পুনরুজ্জীবিত করতে কোমর বেঁধে ময়দানে নামলেন হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা

কিছুদিন আগেই জেলা তৃণমূলের সভাপতি পদ থেকে গৌতম দেবের জায়গায় দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে শিলিগুড়ি পৌরসভার বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকারকে। আর দায়িত্ব নেওয়ার পরই তিনি জানিয়েছিলেন যে, দলীয় সংগঠনকে তিনি ঢেলে সাজাবেন। আর কথা দিয়ে এবার কথা রাখলেন রঞ্জনবাবু। সূত্রের খবর, তিনমাস পর এবার দলের শিলিগুড়ি টাউন 3 কমিটির সভাপতির পদে

একটি পঞ্চায়েতেই ৮০ লক্ষ টাকার দুর্নীতির অভিযোগ! এলাকা ছাড়া তৃণমূলের দাপুটে নেতারা!

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে তৃনমূলের ভরাডুবি হওয়ার পরই দলে দুর্নীতি বাসা বেঁধেছে, আর তার কারনেই যে ফলাফল খারাপ হয়েছে, তা বুঝতে পেরেই দুর্নীতি দমনে করতে ময়দানে নামতে দেখা যায় খোদ তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রীকে। সূত্রের খবর, এবার দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তপনের রামপাড়া চেঁচরা গ্রাম পঞ্চায়েতে ১০০ দিনের কাজ প্রকল্পে ৮০ লক্ষ

টীম পিকের ২৪ ঘন্টার নজরদারিতে তৃণমূল নেতারা! পান থেকে চুন খসলেই প্রশ্নবানে জেরবার!

লোকসভা ভোটে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের একটি আসনও না পাওয়া এবং সারা রাজ্যে 42 এ 42 এর স্লোগান তুলে বাইশটা আসন পাওয়া রাজ্যের শাসক দল বিমর্ষ হয়ে পড়েছিল। তারপরই দলকে জনসংযোগে পাঠাতে সারা রাজ্যের প্রতিটা জেলায় "দিদিকে বলো" কর্মসূচি গ্রহণ করে তৃণমূল। কর্মসূচির মধ্য দিয়ে প্রতিটা জেলার গুরুত্বপূর্ণ বাছাই করা নেতৃত্বদের সাধারণ মানুষের

নেতৃত্বে আসতে চলেছে বড়সড় বদল! বিশেষ মাপকাঠিতে কাটা যাচ্ছে বহু তৃণমূল নেতার নাম?

মুর্শিদাবাদ জেলার সংগঠন আরও মজবুত করতে আসরে নেমে পড়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। শুধু সাংগঠনিক বৃদ্ধি নয়, স্বচ্ছ ভাবমূর্তি ফেরাতে গ্রহণযোগ্য নেতাদের মূল সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত করতে তৎপর ঘাসফুল শিবির। যাদের রাজনৈতিক ছবিতে দাগ নেই, সেই সমস্ত নেতৃত্বকে জেলা কমিটিতে আনার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে মুর্শিদাবাদ তৃণমূল কংগ্রেস। গত রোববার মুর্শিদাবাদ জেলা

হেভিওয়েট মন্ত্রীর সামনেই দলের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ কর্মীরা, তীব্র অস্বস্তিতে শাসক দল

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান দিলেও তা পূর্ণ হয়নি। উল্টে বিজেপির এই রাজ্যে তড়িৎ গতিতে উত্থান ঘটেছে। যা নিয়ে প্রবল চিন্তায় পড়েছে শাসক দল। তবে কেন তাদের এই খারাপ ফলাফল হল, তা নিয়ে পর্যালোচনা বৈঠকে দলের নিচুতলার কর্মীদের দুর্নীতি এবং গোষ্ঠীদ্বন্দ্বই যে প্রধানভাবে দায়ী

নারদ কান্ডে নয়া মোড়, সিবিআই তলব করলেন এনাকে

প্রকাশ্যে একটি স্ট্রিং ভিডিওতে রাজ্যের শাসক দলের নেতাদের টাকা নিতে দেখা যাওয়ায় বেশ কিছুদিন আগে উত্তাল হয় রাজ্য রাজনীতি। এই ব্যাপারে সঠিক তদন্ত হওয়া উচিত এবং তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সরব হয় বিরোধীরা। মাঝে এই নারদ কান্ড নিয়ে তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে নানা উদ্যোগ নেওয়া হলেও পরে তা নিয়ে

Top
error: Content is protected !!