এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "tmc leader"

“বোকা বানিয়ে” তৃণমূলের বিলাসবহুল পার্টি অফিস! ক্ষুব্ধ আদিবাসী সমাজ ঝুলিয়ে দিল তালা

মানুষের মাথায় কোপ মেরে ভোটে জেতা নেতা-মন্ত্রীরা বিভিন্ন সময়ে সেই মানুষের সমস্ত সম্পত্তি হরণ করার চেষ্টা করেন বলে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ উঠতে দেখা যেত।এমনকি কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরও তার "দুই বিঘা জমি" কবিতায় সমাজের প্রভাবশালী ব্যক্তিদের দ্বারা সমাজের নিচু স্তরের মানুষরা কিভাবে শোষণের শিকার হতেন, তার কথা উল্লেখ করে দিয়েছিলেন। যেখানে একটি লাইনে

কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে এবার গণপিটুনির শিকার তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার ভাই, জোর চাঞ্চল্য

"জনতার মার কেওড়াতলা পার" - এই শব্দটা অনেক ক্ষেত্রেই নানা সিনেমার দৌলতে আমরা শুনেছি। কিন্তু কখনও তা পরখ করা হয়ে ওঠেনি। কিন্তু এবার কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে সেই জনতার হাতে বেধড়ক মার খেতে হল তৃণমূল নেতার ভাইকে। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই দুর্নীতিই যে এই খারাপ ফলাফলের পেছনে

চোলাই তৈরীর উপকরণ উদ্ধার হল তৃণমূল নেতার দোকান থেকে, জোর শোরগোল

দলের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি যখন সাধারন মানুষের সামনে উপস্থাপিত করতে মরিয়া তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঠিক তখনই নিয়ম বহির্ভূতভাবে প্রচুর পরিমাণে চিটেগুড় মজুতের পাশাপাশি চোলাই তৈরির উপকরণ উদ্ধার হল তৃণমূল নেতার দোকান থেকে। যে ঘটনায় এখন চরম চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে নন্দকুমার পঞ্চায়েত সমিতি এলাকায়। জানা যায়, এই পঞ্চায়েত সমিতির জনসাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ গৌতম সাহুর

নেত্রীর বিধান মেনে কাজ করতে গিয়ে বড়সড় বিপাকে তৃণমূল নেতা, জেনে নিন

দল শাসন ক্ষমতায় থাকলেও নিচুস্তরের কর্মীদের বা সাধারণ মানুষদের অভাব-অভিযোগ যে ঠিকমতো শোনা হয়নি তা লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পরেই টের পেয়েছে তৃণমূল। কেননা এবারের লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের লক্ষ্য পূর্ণ হয়নি। 42 এ 42 এর স্লোগান দিয়ে 22 এই আটকে যেতে হয়েছে তাদের। আর দলের প্রতি

বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য তৃণমূলের হেভিওয়েট মন্ত্রীর

অসহিষ্ণুতা ও গণপিটুনি ইস্যুতে বুদ্ধিজীবীরা এখন দ্বিধাবিভক্ত। এ বলে আমায় দেখ, তো ও বলে আমায় দেখ। লড়াই যেন থামতেই চাইছে না কিছুতেই। আর বুদ্ধিজীবীদের এই লড়াই এবার নেমে এসেছে রাজনীতির রণাঙ্গনেও। বস্তুত, সম্প্রতি গণপিটুনি এবং অসহিষ্ণুতা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন দেশের প্রায় 49 জন বুদ্ধিজীবী। যার মধ্যে

তোলাবাজির অভিযোগে গ্রেফতার তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা, জেনে নিন

অবশেষে এবার গ্রেপ্তার হলেন বাঁকুড়ার প্রাক্তন পৌরপ্রধান তথা তৃণমূল নেতা শান্তি সিংহ। বস্তুত, আদালতে হাজিরা না দেওয়ার অভিযোগে এই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে আগেই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছিল। সেইমত মঙ্গলবার তাঁকে গ্রেপ্তারের পর পুলিশের পক্ষ থেকে বাঁকুড়া আদালতে তোলা হলে বিচারক সেই শান্তি সিংহের 14 দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। কিন্তু ঠিক

এইবার কাটমানি ফেরতের দাবিতে এই তৃণমূল নেত্রীর বাড়ি ঘেরাও করল বিজেপি

কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ তুলে তৃণমূল নেত্রীর বাড়ি ঘেরাও। কাঁকসা গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য স্বপ্না বৈদ্যের বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাল স্থানীয় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা. বিক্ষোভ চলাকালীন স্লোগান ওঠে, পিসি চোর, ভাইপো চোর, তৃণমূলের সবাই চোর।পরে কাঁকসা থানার পুলিশ হয়ে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে তৃণমূল নেত্রীর বাড়ি ঘেরাওমুক্ত করে। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, কাঁকসায় বেসরকারি কারখানায় ঠিকা

এবার দুর্নীতির অভিযোগ উঠল তৃনমূল কাউন্সিলর, তার স্বামী ও দিব্যেন্দুর বিরুদ্ধে, চাঞ্চল্য শুভেন্দু গড়ে

লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবি পর ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে দুর্নীতিতে প্রধান ভাবে দায়ী তা বুঝতে পেরেছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাইতো দলকে স্বচ্ছভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে গত 18 জুন কলকাতার নজরুল মঞ্চে দলীয় কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে এই কাটমানি যাতে না নেওয়া হয়, তার ব্যাপারে সকলকে সতর্ক করে দিয়েছিলেন

বড়সড় জয় পেলেন তৃণমূল নেত্রী, খুশির হাওয়া ঘাসফুল শিবিরে

রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সাথে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির আদায়-কাঁচকলায় সম্পর্ক। নির্বাচনের অনেক আগে থেকেই তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রকাশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় বিষোদগার করেছেন। এমনকি লোকসভা নির্বাচনের পর বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার কেন্দ্রের ক্ষমতাতে আসলেও তার সাথে দূরত্ব

বিজেপি ছেড়ে ফের ঘরে ফিরেই দায়িত্ব কাঁধে তুলল কাউন্সিলররা, তাও পুরসভা নিয়ে বড়সড় দাবি মুকুল পুত্রের

এক সময় বঙ্গ রাজনীতির নজর কেড়েছিল সিঙ্গুর এবং নন্দীগ্রাম। কৃষিজমি বনাম শিল্পের দ্বন্দ্বে তখন উত্তাল বঙ্গসমাজ। রাজনীতির আনাচে-কানাচে কিংবা সুশীল সমাজের মধ্যে তখন ন্যায়-অন্যায়ের চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছে। আর এই সব কিছুর মধ্যেই সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম আন্দোলনের নেতৃত্ব দিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন তদানীন্তন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেত্রী সেইসময় নির্ভীকভাবে কৃষকদের পাশে

Top
error: Content is protected !!