এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "tmc bjp"

পার্শ্ব শিক্ষকদের পাশে দাঁড়িয়ে রাজ্য সরকারকে তীব্র আক্রমণ প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদের, জোর শোরগোল

  সল্টলেকে পার্শ্ব শিক্ষকদের অনশন এখন চরম আকার ধারণ করেছে। হাইকোর্টের অনুমতি নিয়ে গত সাতদিন ধরে 35 জন পার্শ্বশিক্ষক তাদের অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকজন অসুস্থ হয়ে গিয়েছেন। মারা গিয়েছেন রেবতী রাউত নামে এক শিক্ষিকা। আর এই পরিস্থিতিতে একমাত্র শাসক দল ছাড়া বিভিন্ন সংগঠন থেকে শুরু করে বিরোধী রাজনৈতিক দলের

জেনে শুনেই কি বিষ পান করতে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী, জেনে নিন বিস্তারিত

এই প্রথম রথের রশিতে টান দিতে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী, হিন্দু ভোটকে টানতেই এই কৌশল দাবি বিরোধীদের।এবারের লোকসভা ভোটে তৃণমূলকে কিছুটা চাপে ফেলে দিয়ে বিজেপি 18 টি আসন নিজেদের দখলে রেখে ঘাসফুল শিবিরের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। আর বাংলায় বিজেপির এই উত্থানের পরই জয় শ্রীরাম স্লোগানকে কেন্দ্র করে তীব্র রাজনৈতিক উত্তাপ

“অগ্রজ” বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সুরে সুর মিলিয়ে ফের জল্পনা বাড়াবেন সব্যসাচী

লোকসভা ভোটের আগে থেকেই দলের অন্দরে তার নানা মন্তব্যে জল্পনা ছড়িয়েছিল। কখনও বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের তার বাড়িতে এসে লুচি আলুর দম খাওয়ার ঘটনা, আবার কখনও বা প্রকাশ্যে গেরুয়া তিলক পড়ে ধনী দেওয়া - বিভিন্ন ঘটনায় তিনি দলকে অস্বস্তিতে ফেলেছেন বলে অভিযোগ তার বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর। হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন, তিনি বিধাননগর

কেন দল ছাড়ছে নেতাকর্মীরা, কারণ নিয়ে বড়সড় দাবি তৃণমূলের

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবি এবং বিজেপির প্রবল উত্থানের পরই শাসক দল ভেঙে একাধিক কাউন্সিলার এবং বিধায়করা বর্তমানে গেরুয়া শিবিরের নাম লিখিয়েছেন। আর একের পরে এক এই দলবদলে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে পড়েছে শাসক দল। কিছুদিন আগেই এই ব্যাপারে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "যারা দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত, তারাই দল ছাড়ছে।

অর্জুন সিং এর উপর ক্ষোভ, দল ছেড়ে তৃণমূলে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা

কিছুটা হলেও উলটপুরাণ। অর্জুন সিং দল ছাড়ার পরেই তাঁর হাত ধরে কে একে কোকিলর, নেতা কর্মীরা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন। কিন্তু এদিন উল্টো চিত্র দেখা গেসিলো। জানা যাচ্ছে এদিন বিজেপির সাংসদ অর্জুন সিংহের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ ও স্বজনপোষণের অভিযোগ বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা। এদিন বারাসাত রবীন্দ্র ভবনে

“বাবা নেতা, ছেলেকে টিকিট” প্রসঙ্গে মুখ খুলে অভিষেক প্রসঙ্গ টেনে কটাক্ষ মুকুলের

একসময় তৃণমূল নেত্রীর অত্যন্ত বিশ্বাসী এবং আস্থাভাজন ব্যক্তি ছিলেন তিনি। কিন্তু গত 2017 সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘুম কেড়ে নিয়ে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান বঙ্গ রাজনীতির চাণক্য মুকুল রায়। আর তারপর থেকেই তৃণমূল নেতারা তাকে কখনও "গদ্দার" আবার কখনও বা "বিশ্বাসঘাতক" শব্দ বন্ধনীতে আবদ্ধ করেছিল। তবে তিনি অবশ্য লক্ষ্যে অবিচল থেকে 2019

সুনীল সিংহের তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান প্রসঙ্গে মুখ খুলে মমতাকে কটাক্ষ অর্জুনের

লোকসভা নির্বাচনের দামামা বাজার পর ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের তরফে দীনেশ ত্রিবেদীকে প্রার্থী করা হলে তা নিয়ে দলের অন্দরেই অসন্তোষ প্রকাশ করেন ভাটপাড়ার প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন সিংহ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দীনেশ বাবুর নামেই প্রার্থী হিসেবে শীলমোহর দেওয়ায় দলের বিরুদ্ধে গিয়ে দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে বিজেপি নেতা মুকুল রায় ও

বর্ধমানে ভাঙছে তৃণমূল, বিজেপিতে যোগ তৃণমূল পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য-সহ পাঁচ শতাধিক কর্মীর

এককালের বামেদের গড় বর্ধমানে বামেদের নিশ্চিহ্ন করে নিজেদের আধিপত্য গড়ে তুলেছিল ঘাসফুল শিবির।আর এখন বলাই যায় যে বর্ধমানও তৃণমূলের অন্যতম শক্ত ঘাঁটি। আর এবার সেই শক্তঘাঁটিতেই থাবা বসলো গেরুয়া শিবির। জানা যাচ্ছে বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা এদিন বর্ধমানের কেতুগ্রামে সভা করতে যান আর সেখানেই তাঁর হাত ধরে তৃণমূল পঞ্চায়েত সমিতির

‘দিলীপ ঘোষকে ঘৃণা নয়, ভালোবাসা দিন’ – দলীয় প্রার্থীর প্রচারে প্রার্থীর সামনে দাঁড়িয়ে দাবি তৃণমূল নেতার

দাঁতনের পথসভা থেকে দিলিপ ঘোষকে আক্রমন করলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সভাপতি অজিত মাইতি। বললেন -কুকুর মানুষকে কামড়ালে খবর হয়না, মানুষ কুকুরকে কামড়ালে খবর হয়। আর দিলিপ ঘোষ কামড়াচ্ছে তাই খবর হচ্ছে। আজ দিলীপ ঘোষকে এই ভাষাতেই আক্রমণ করলেন কেশিয়াড়ির নেতা। সাথেই এদিন তিনি বলেন যে 'দিলীপ ঘোষ ছাড়তে খিস্তি মারলে খবর হয়,

ভোট শুরু হতেই রণক্ষেত্র দার্জিলিং কেন্দ্রের চোপড়া

আজ বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয় দফার লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সারা দেশের মোট ১২টি রাজ্যের ৯৫টি আসনে ভোটগ্রহণ হচ্ছে।কিন্তু ভোট শুরু হতেই রণক্ষেত্র দার্জিলিং কেন্দ্রের চোপড়া। সাধারণ মানুষের অভিযোগ যে তারা নিজেদের ভোট নিজেরা দিতে পারছে না। শুধু তাই নয় তাদের দাবি যে কাউকে কাউকে বলা হচ্ছে যে, তাদের ভোট

Top
error: Content is protected !!