এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "suvendu adhikari"

মন্ত্রীর সিদ্ধান্তে রূপনারায়ণের চরে এলাকাবাসীদের বাড়ছে ক্ষোভ, চাপানউতোর রাজ্যে

এবার এক অন্য রকম বিতর্ক তৈরি হয়েছে রাজ‍্যে। রাজ্যের শাসকদলের মন্ত্রীর বক্তব্যে এক অন্য রকম বিতর্ক তৈরি হয়েছে মায়াচরে। রাজনীতির টানাপোড়েন হামেশাই দেখতে পাই আমরা। কিন্তু মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনা নিয়েও যে বিতর্ক তৈরি হতে পারে, সে সম্পর্কে কোন ধারণাই ছিলনা রাজ্যবাসীর। আর এই ঘটনাই ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরে। এই

উদ্বাস্তুদের পাট্টা বিলি করে মমতার হাত শক্ত করার অনুরোধ শুভেন্দু অধিকারীর

বিগত 2016 বিধানসভা নির্বাচন থেকে শুরু করে সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচন, খড়্গপুরের মাটিতে কোনমতেই ঘাসফুল ফোটাতে পারছে না তৃণমূল কংগ্রেস। বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত এই খড়্গপুরে আর কিছুদিন পরেই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে খড়গপুর বিধানসভা উপনির্বাচন। আর তার জন্যই এবার সেখানে রীতিমত ঘাঁটি গেড়ে

এবার জেলাশাসকের কাজকর্মে তীব্র ক্ষোভে ফেটে পড়লেন শুভেন্দু অধিকারী!

সরকারি হাসপাতালে দুর্দশার খবর রাজ্যের সাধারণ মধ্যবিত্ত থেকে নিম্ন মধ্যবিত্ত প্রত্যেকেই জানে। হসপিটালে রোগীর ভীড়ে শোয়ার জায়গা থাকে না অনেক সময়। রোগীকে হাসপাতালের বারান্দাতেও রাত কাটাতে হয় অনেকসময়। হসপিটালে ভর্তি হয়ে শয্যার অধিকারী হওয়া এবং ভগবানের দর্শন পাওয়া প্রায় একই পর্যায়ে পড়ে। ডাক্তারি পরিষেবা অবশ্য এখন সরকারি হাসপাতালে আগের থেকে অনেক

শুভেন্দু পন্থী না অভিষেক পন্থী শাসক দলে আড়াআড়ি বিভাজন,চিন্তা বাড়াচ্ছে মমতার

শারদ উৎসবের দিনগুলোতে প্রত্যেক নেতাকর্মীরা তাদের নিজের নিজের এলাকায় জণসংযোগে ব্যস্ত থাকলেও বিজয়া দশমীর ঢাকের কাঠি পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই সেই ব্যর্থতা অনেকাংশেই দূর হয়েছে। পঞ্চমী থেকে শুরু করে দশমী পর্যন্ত ক্লাবে ক্লাবে প্রতিমা দর্শন, নিজেদের নিজেদের বুক স্টলে গিয়ে দলের ভাবাদর্শ মানুষের কাছে প্রচার, কোথাও বা দিদিকে বলো কর্মসূচীর মধ্যে

ভাতৃশোক ভুলে শুভেন্দু অধিকারীর অনুরোধে দলের কঠিন সময়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব এগিয়ে এলেন দাদা

পুরানে দাদা-ভাইয়ের নীতিকথা আমরা রামায়ণে পড়েছিলাম। দাদা রামের প্রতি ভাই ভরত কিংবা লক্ষণের নিবেদন প্রায় সকলেরই জানা। হয়ত বাস্তবেও এরকম কিছু দাদা ভাইয়ের সম্পর্ক রয়েছে। আর সেরকমই একটা আভাস পাওয়া গেল ভাই কুরবান শার মৃত্যুতে শোকসন্তপ্ত অবস্থাতেও সেই ভাইয়ের পূরণ না করা দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন তারই দাদা আফজল

পুজোর মধ্যেই শুভেন্দু-গড়ে পিটিয়ে খুন তৃণমূল কর্মী, অভিযোগের তীর বিজেপির দিকে

মহাষষ্ঠীর দিনে যখন মায়ের বোধনকে কেন্দ্র করে বাঙালির মনে-প্রাণে আনন্দের সঞ্চার সৃষ্টি হয়েছে, ঠিক তখনই পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুর রক্তে রঙিন হয়ে উঠল। মায়ের বোধনের দিনই তৃণমূলের এক সক্রিয় কর্মীকে খুন হতে হল। বস্তুত, গত শুক্রবার সকালে কেশপুরের একটা রাস্তাকে কেন্দ্র করে দুই দল তীব্র বচসায় জড়িয়ে পড়ে। আর সেই সময়ই

দিলীপ ঘোষ না শুভেন্দু অধিকারী? “পুজোর লড়াইয়ে” জিতলেন কে?

রাজ্যের রাজনৈতিক সমীকরণ অনেকটাই পাল্টে গিয়েছে 2019 সালের লোকসভা নির্বাচন ঘিরে। যে রাজ্যে ভারতীয় জনতা পার্টিকে একসময় আতস কাঁচ দিয়ে খুঁজতে হত, সেই রাজ্যে 18 টি আসন পেয়ে শাসকের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর বঙ্গ বিজেপির এই জয়যাত্রায় পদাধিকারের দিক থেকে ক্যাপ্টেনের ভূমিকা পালন করেছেন বঙ্গ বিজেপি রাজ্য

দিলীপ ঘোষের হাওয়া কাটতে দশেরাতেও খড়্গপুরে মাটি কামড়ে শুভেন্দু, তবুও সামনে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

আর কিছুদিন পরেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের বর্তমান বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষের ছেড়ে যাওয়া খড়গপুর আসনে বিধানসভা উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।অতীতে এই আসনটি বিজেপি দখল করলে এবার সেই আসনে ঘাসফুল ফোটাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে তৃণমূল। যার জন্য এখানকার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের নেতা তথা রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে। পুজো থেকে

তৃণমূল নেতা খুনে ক্ষুব্ধ শুভেন্দুর অঙ্গীকার – মুকুল-ঘনিষ্ঠকে বরাবরের জন্য জেলে ঢোকানোর!

বরাবরই শাসক বিরোধী দলের মধ্যে অভিযোগের তীর উঠতেই থাকে। লোকসভা ভোট পরবর্তী সময়ে এরাজ্যে ক্রমাগত বেড়েছে খুনোখুনির রাজনীতি। দুর্গাপূজার মধ্যেও সেই হানাহানি বন্ধ হলো না। হানাহানির জেরে প্রাণ গেলো তৃণমূলের দলীয় সমর্থকের। ঘটনাটি ঘটেছে পাঁশকুড়া এলাকায়। ঘটনার পর শাসক বিরোধী দল একে অন্যের ওপর দোষ চাপানো শুরু হয়ে গেছে। এই

শুভেন্দু গড়ে প্রবল মারধর বিজেপি- কর্মীদের, ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল পার্টি অফিস!

সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনে রাজ্যজুড়ে তৃণমূল কোণঠাসা হয়ে পড়েছে। অর্থাৎ যে শাসক দল 42 এ 42 দখল করার স্বপ্ন দেখেছিল, তাদের মোটে 22 টি আসন পেয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে। অপরদিকে প্রবণ উত্থান ঘটেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। দুটি আসন বিশিষ্ট ভারতীয় জনতা পার্টি 2019 সালের নির্বাচনে নিজেদের কলেবর বাড়িয়ে 18 টি আসনে এসে

Top
error: Content is protected !!