এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "suvendu adhikari"

দিলীপ ঘোষের নামকরণ করলেন শুভেন্দু, জেনে নিন

  রাজ্য রাজনীতিতে তৃণমূল বনাম বিজেপির মধ্যেকার দ্বৈরথ কারোরই অজানা নয়। তবে তৃণমূল বনাম বিজেপির লড়াইয়ের থেকেও, বিজেপির দিলীপ ঘোষের সঙ্গে তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারীর লড়াই বেশ জমজমাটি। লোকসভা নির্বাচনের পর বিজেপি বাংলায় কিছুটা শক্তিশালী হলেও, সেই বিজেপিকে কুপোকাত করতে একাধিক জায়গায় দায়িত্ব শুভেন্দু অধিকারীকে দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার মধ্যে অন্যতম ছিল দিলীপ

প্রশান্ত কিশোরের পর এবার পুরভোটের জন্য দলকে ময়দানে নামতে বললেন শুভেন্দু, প্রস্তুতি শুরু!

  লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল সারা বাংলায় ভাল ফলাফল না করলেও, কংগ্রেস প্রভাবিত মুর্শিদাবাদ জেলায় ফুটে গিয়েছে ঘাসফুল। জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর লাগাতার পরিশ্রমেই তৃণমূল এই জেলায় কিছুটা হলেও ভালো ফল করেছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। তবে থেমে থাকার পাত্র নন শুভেন্দুবাবু। আর তাইতো লোকসভা নির্বাচনে সাফল্য

নন্দীগ্রামে সমর্থন কমছে তৃণমূলের! চিন্তার ভাঁজ শুভেন্দু অধিকারীর কপালে

2011 সালের আগে সিঙ্গুর যেমন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ক্ষমতার কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছিল, ঠিক তেমনই নন্দীগ্রামের ভূমিকাও এক্ষেত্রে অপরিহার্য। তৎকালীন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলন নিঃসন্দেহে শাসকদল বামফ্রন্টের গদি নাড়িয়ে দিয়েছিল। তারপর দীর্ঘ লড়াই আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে 2011 সালের রাজ্যের ক্ষমতায় বসেছে তৃণমূল কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

মন্তব্য করে রাজ্যর আইন-শৃঙ্খলাকে প্রশ্নের মুখে ফেলে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী জেনে নিন বিস্তারিত

  তৃণমূলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথম কথা হলে দ্বিতীয় কথা বলেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারীরা। প্রায় সকলেই একথা স্বীকার করে নেন। বিজেপি প্রভাবিত এলাকাগুলোতে ইতিমধ্যেই তৃণমূলের তরফে দায়িত্ব পেয়ে ঘাসফুল ফোটানো শুরু করে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। আর এবার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে যখন গোটা দলকে রাস্তায় নামিয়ে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঠিক তখনই

অধীরের সঙ্গে বিজেপির আঁতাত, তুলে ধরলেন শুভেন্দু অধিকারী

মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক হওয়ার পর থেকেই তার প্রথম এবং প্রধান টার্গেটে ছিলেন, মুর্শিদাবাদের শাহেনশা বলে পরিচিত কংগ্রেসের অধীর রঞ্জন চৌধুরী। বিভিন্ন জনসভা বা পথসভা থেকে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সেই অধীরবাবুর বিরুদ্ধেই সবথেকে বেশি সরব হতে দেখা গেছে তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারীকে। এমনকি লোকসভা নির্বাচনের আগে সেখানে ব্যাপক প্রচার করে অধীর চৌধুরীর

বিজেপির পাশাপাশি মিমও তৃণমূলের ঘুম ওড়াতে চলেছে! স্পষ্ট শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্যেই

  বিগত লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই পশ্চিমবঙ্গের প্রধান বিরোধী দলের জায়গা দখল করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তৃণমূল কংগ্রেসের আক্রমণের কেন্দ্রবিন্দু বিগত দিনে বামফ্রন্ট কংগ্রেস থাকলেও, বর্তমানে নীচুতলার তৃণমূল কর্মী থেকে শুরু করে শীর্ষ নেতৃত্ব পর্যন্ত কারোর মুখে আক্রমণের জায়গায় বাম বা কংগ্রেসের নাম থাকে না। এক্ষেত্রে ছোটো মেজো, বড় সকল নেতাদের

উপনির্বাচনে জয়ে আত্মতুষ্টি? এবার জিততে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ভুলে ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ের ডাক শুভেন্দুর

  খড়গপুর বিধানসভা নির্বাচনে জয় যুক্ত হয়েছিলেন ভারতীয় জনতা পার্টির প্রার্থী দিলীপ ঘোষ। পরবর্তীতে 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনে মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে ভোটে জিতে সাংসদ হয়েছেন দিলীপবাবু। খড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকেও লোকসভা ভোটের বিধানসভা ভিত্তিক ফলাফল অনুযায়ী, প্রায় 46 হাজার ভোটে এগিয়ে ছিল ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু দীলিপবাবুর খালি করা খড়গপুর

বড় ধাক্কা নিজের খাসতালুকেই! এবার তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিলেন শুভেন্দু অধিকারী

  ভালো কাজ না করলে যে তিনি রেয়াত করবেন না, তা ফের আরও একবার প্রশ্ন করে দিলেন তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা তথা রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ, একাধিক জেলার পর্যবেক্ষক হিসেবে যেখানেই তিনি দায়িত্ব পেয়েছেন, সেখানেই দলকে সাফল্যের মুখ দেখাতে সক্ষম হয়েছেন। তবে অন্য জেলাতে শুভেন্দুবাবু সাফল্যের সঙ্গে স্বীকৃতি পেলেও

শুভেন্দু-গড়েও গেরুয়া ঝড় সুনিশ্চিত করতে বড়সড় সাংগঠনিক পরিবর্তন বিজেপির

  রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বাধিনায়িকা হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শেষ কথা হলেও তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক দায়িত্ব সামলান রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যতম নেতা শুভেন্দু অধিকারী। একাধিক জেলার জেলা পর্যবেক্ষক সহ-সাংগঠনিক বিভিন্ন দায়িত্ব রয়েছে তার কাঁধে। তাই এবার রাজনৈতিকভাবে শুভেন্দু অধিকারীকে চ্যালেঞ্জ জানাতে তার খাস এলাকাকেই বেছে নিয়েছে

বিজেপি বেশি বাড়াবাড়ি করলে কিভাবে টাইট দিয়ে ওষুধ দিতে হয়, জানিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী!

  2011 সালের আগে রক্তক্ষয়ী সিঙ্গুর থেকে নন্দীগ্রাম আন্দোলনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অন্যতম সৈনিক ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তৎকালীন বাম সরকারের ঘুম উড়িয়ে দিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সৈনিকের অবদান ছিল যথেষ্ট। পরবর্তীতে গত 2011 সালে রাজ্যে ক্ষমতায় বসেছে তৃণমূল কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বর্তমানে সেই শুভেন্দু অধিকারী রাজ্যে পরিবহণ দপ্তরের মন্ত্রী। তৃণমূলের হেভিওয়েট

Top
error: Content is protected !!