এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "ssc"

চাকরিতে দুর্নীতি! হাইকোর্টে বড়সড় ধাক্কা খেল SSC – জানুন বিস্তারিত

রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বারংবার অভিযোগ করে এসেছেন, শিক্ষক নিয়োগের পথে সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা হলো একের পর এক স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিরুদ্ধে জমে ওঠা মামলা। শিক্ষামন্ত্রীর অভিযোগকে সত‍্যি করে এদিন কলকাতা হাইকোর্ট এবার নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষক নিয়োগের মামলায় দুর্নীতির অভিযোগে স্কুল সার্ভিস কমিশনের কাছে রিপোর্ট তলব করল। কলকাতা

রাজ্যের হবু শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়োগের নিয়মে বড়সড় নিয়ম পরিবর্তনের কথা জানাল পরিষদ

স্কুল সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের সম্ভাব্য নিয়মে বদল নিয়ে এবার শুরু হয়েছে নতুন জল্পনা। শোনা যাচ্ছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষা থেকে কাউন্সেলিং ও ইন্টারভিউ প্রক্রিয়াটি বরাবরের জন্য উঠে যেতে পারে। অর্থাৎ প্রার্থীকে এবার থেকে লিখিত পরীক্ষা ছাড়া অন্য কোন পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হবে না। সেক্ষেত্রে, লিখিত পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতেই

চাপে পড়ে এসএসসির তালিকা বের করেও অস্বস্তিতে স্কুল সার্ভিস কমিশন – সামনে আসছে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ

বাংলায় পুজোর আমেজ এখনও কাটেনি। পুজোর সময় যখন সকলে আনন্দে ব্যস্ত ছিল, ঠিক তখনই স্কুল সার্ভিস কমিশন উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগের যে পূর্ণাঙ্গ মেধাতালিকা প্রকাশ করেছিল, তা নিয়ে উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা গিয়েছিল সেই চাকরি প্রার্থীদের মধ্যে। কিন্তু এবার এসএসসি তালিকা বের হলেও তাতে বিপুল পরিমাণে ভুল থাকায় ব্যাপক অভিযোগ কমিশনের কাছে জমা

আদালতের নির্দেশ আসতেই শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বড়সড় পদক্ষেপ কমিশনের

রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীদের জন্য এবার পুজোর মরশুমে এলো খুশির খবর। সাথে আরো একবার রাজ্য সরকারকে বিপাকে ফেলল হাইকোর্ট। হাইকোর্টের নির্দেশে এবার স্কুলগুলিতে শিক্ষক নিয়োগ করতেই হবে। গত 2012 এবং 2015 সালে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের জন্য পরীক্ষা হয়। এরপর 2016 সালের নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়। কাউন্সেলিং এর জন্য বহু প্রার্থী গেলেও

পুজোর মুখেই রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বড়সড় নির্দেশিকা কলকাতা হাইকোর্টের

রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীদের জন্য এবার পুজোর মরশুমে এলো খুশির খবর। হাইকোর্টের নির্দেশে এবার স্কুলগুলিতে শিক্ষক নিয়োগ করতেই হবে। শিক্ষক পদপ্রার্থীদের করা মামলার রায় হিসাবে এদিন হাইকোর্ট এই উল্লেখযোগ্য অর্ডারটি দেয়, যা নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই খুশির হাওয়া চাকরিপ্রার্থীদের মনে। শিক্ষক নিয়োগে এবার হাইকোর্টের নির্দেশ - উচ্চমাধ্যমিকের ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণীর মধ্যে শিক্ষক নিয়োগ

বিদ্যালয়ে ইন্টার্নশিপের মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় ক্ষোভ বাড়ছে শিক্ষক সমাজের, বড়সড় আন্দোলনের ইঙ্গিত

গতকালই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন রাজ্যের শিক্ষক সমস্যার সমাধানে ও কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে রাজ্য সরকারের তরফে এক অভিনব পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এবার থেকে গ্র্যাজুয়েশন করলেই রাজ্যের ছাত্রছাত্রীদের কাছে খুলে যাবে স্কুলে স্কুলে ইন্টার্নশিপের দরজা। কিন্তু, এর পরিপ্রেক্ষিতে এবার রাজ্যের প্রাথমিক, উচ্চ প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলিতে স্থায়ী শিক্ষক

এবার কি তবে নবম এবং দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগ শুরু হতে চলেছে? স্কুল সার্ভিস কমিশনের তৎপরতায় জল্পনা

তাহলে কি অবশেষে নবম এবং দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগ শুরু হতে চলেছে রাজ্যে? সূত্রের খবর, স্কুল সার্ভিস কমিশনের বাংলা বিষয়ের সফল সমস্ত শিক্ষক প্রার্থীদের আজই কাউন্সেলিং শেষ হতে চলেছে। তবে কাউন্সেলিং হলেও এই শিক্ষক প্রার্থীদের নিজেদের নিয়োগপত্র পেতে আরও দুই মাস অপেক্ষা করতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে কমিশন। তবে বাংলা বাদ

হঠাৎ করে এসএসসির চেয়ারপার্সন বদলি নিয়ে শিক্ষা দপ্তরের নির্দেশিকা, শোরগোল রাজ্যে

হঠাৎই রাজ্য স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান পদে বদল নিয়ে তীব্র শোরগোল সৃষ্টি হল শিক্ষা মহলে। সূত্রের খবর, সম্প্রতি শিক্ষা দপ্তরের এক নির্দেশিকায় বলা হয়েছে যে এসএসসির বর্তমান চেয়ারপার্সন শর্মিলা মিত্রর জায়গায় উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুবীরেশ ভট্টাচার্যকে দায়িত্ব দেওয়া হল। আর এসএসসি কমিশনের মত শীর্ষস্তরের একটি পদে হঠাৎ এহেন বদলি দেখে হতবাক

মাথার উপরে মামলার খাঁড়া তবুও তড়িঘড়ি শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু, বাড়ছে জট

বহু আইনী জটিলতার পরে স্কুল সার্ভিস কমিশন (এসএসসি) উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগের জন্যে মেধা-তালিকা প্রকাশ করেছিল। কিন্তু তাতেও আদালতে আবার পালটা মামলা রুজু হয়। তবে এত কিছুর পরেও সোমবার স্কুল সার্ভিস কমিশন (এসএসসি) জানালো উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগের কাউন্সেলিং ২৬ জুলাই থেকে ২ রা অগষ্ট অবধি চলবে। সম্প্রতি কলকাতা

আদালতের গেরোয় ১০ লক্ষ চাকরিপ্রার্থীর ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন

এ রাজ্যে বেকারদের নিয়ে ছিনিমিনি খেলার যেন শেষ নেই। একদিকে এসএসসি সংক্রান্ত মামলায় দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে আছে রাজ্যের কয়েকলক্ষ চাকরিপ্রার্থীর ভবিষ্যৎ। তারই মাঝে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় এবং চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেখে আশায় বুক বেঁধে আবেদন করেছিলেন অনেকেই। এদিন সেই আশাতেও জল পড়লো। নিয়ম বহির্ভূত ভাবে নিয়োগের অভিযোগ জানিয়ে কলকাতা

Top
error: Content is protected !!