এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "rural-party"

আজ তৃণমূলের কোর কমিটির বৈঠকে মমতা- পিকের দিকে তাকিয়ে ক্রমশ বাড়ছে শাসকদলের জল্পনা

পুজোর মরসুম শেষ। আর বিজয়া শেষ হওয়ার সাথে সাথেই রাজ্যের সমস্ত জেলার বিভিন্ন ব্লক, টাউন, জেলা সভাপতি সাংসদদের নিয়ে তৃণমূল ভবনে আজ বিশাল মাপের বৈঠক করতে চলেছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে বৈঠককে ঘিরে এখন রীতিমত তীব্র হচ্ছে জল্পনা। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির পর ভোটগুরু বলে পরিচিত প্রশান্ত

এবার রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী দলের সেকেন্ড কম্যান্ড! খুশির হাওয়া গেরুয়া শিবিরে?

লোকসভা নির্বাচনের পূর্বে বিজেপি শাসিত পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে ভালো ফল করেছিল জাতীয় কংগ্রেস। যেখানে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য ছিল মধ্যপ্রদেশ। সেইখানে প্রায় 15 বছরের শিবরাজ সিং চৌহানের সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতায় আসে কংগ্রেস সরকার। যদিও মুখ্যমন্ত্রীর নাম নিয়ে কংগ্রেসের মধ্যে ধোঁয়াশা ছিল। তবুও আগত লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে মুখ্যমন্ত্রী পদে

পুজোর মধ্যেই ধর্না নাটকের শাসক দলকে ব্যতিব্যস্ত করে তুললেন দলীয় বিধায়ক-কাউন্সিলর!

এমনি সময় প্রায় বিভিন্ন জায়গাতেই রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের অভ্যন্তরীণ গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে এসেছে। কিন্তু পুজোর সময় যেখানে সৌজন্যের বাতাবরণের মধ্যে দিয়ে শারদ উৎসব পালন করার নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী, সেখানে তা না করে ফের শাসকদলের কোন্দলের ছাপ পড়ল সেই দুর্গাপুজোতেও। মহা ষষ্ঠীর দিনে মায়ের বোধনে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলে

হেভিওয়েট নেতার ‘দুর্নীতি’ প্রমানে নথি সংগ্রহ শুরু দলের অন্দরেই! বাড়ছে শাসকদলের অস্বস্তি

প্রায় বেশ কিছুদিন আগে থেকেই ইংরেজবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান নীহাররঞ্জন ঘোষের বিরুদ্ধে অস্বচ্ছতা ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে অনাস্থা আনতে উদ্যোগী হয় সেই পৌরসভারই তৃণমূল কাউন্সিলররা। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে পুরবোর্ড ভেঙে যাওয়ার উপক্রম দেখা দিতে শুরু করে। কিন্তু তা সত্ত্বেও কোনোমতে দলীয় কাউন্সিলরদের ক্ষোভকে উপশম করতে মাঠে নামতে দেখা যায় তৃণমূলের

শাসকদলের অস্বস্তি তীব্র করে দলীয় নেতার বিরুদ্ধে কাটমানি নিয়ে একরাশ তৃণমূল বিধায়কের

অতীতে কাটমানি নিয়ে বিভিন্ন সময় দলীয় নেতাকর্মীদের একাংশের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের কেউ যাতে অনৈতিক কাজে জড়িত না-থাকেন সেই ব্যাপারেও সতর্ক করেছেন তিনি। চালু হয়েছে ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচিও। এরপরেও বাগনানের ওড়ফুলি এবং শরৎ পঞ্চায়েত এল‌াকায় এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে মুম্বই রোডের ধারের কারখানাগুলি থেকে তোলাবাজি এবং বেআইনি ভাবে

শাসকদলের নতুন পদক্ষেপে কার্যত দুভাগ দল, অস্বস্তি আরও বাড়ল ঘাসফুল শিবিরের

গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব কিছুতেই কমছে না তৃনমূলে। সূত্রের খবর, উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কের (আরসিসিবি) বোর্ড অফ ডিরেক্টরের চেয়ারম্যান মাসুদ মহম্মদ নাসিম এহসানকে দল থেকে বহিষ্কারের পর এবার জেলা তৃণমূল কার্যত দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়েছে। যেখানে একদিকে জেলার দলের একাধিক হেভিওয়েট নেতা বহিষ্কারের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আবার অন্যদিকে জেলা সভাপতি

দুই হেভিওয়েট নেতার দ্বন্দ্ব স্পষ্ট হয়ে গেল প্রকাশ্য মঞ্চেই, তীব্র অস্বস্তিতে শাসকদল

লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গ জুড়ে দলের খারাপ ফলাফলের পর বেশ কিছু জেলার সাংগঠনিক রদবদল করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেক্ষেত্রে ব্যতিক্রম নয় জলপাইগুড়ি জেলাও। এতদিন সেইখানে সৌরভ চক্রবর্তী দায়িত্বে থাকলেও তারই বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর নেতা হিসেবে পরিচিত কিষান কল্যানীকে লোকসভা নির্বাচনের পর দায়িত্ব দেয় তৃণমূল। যার ফলে সেই জলপাইগুড়ি জেলায় প্রাক্তন বনাম

দলে ফেরত এসেই তীব্র গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জড়ালেন প্রাক্তন মন্ত্রী, শাসকদলের অস্বস্তি ক্রমশ বাড়ছে

গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব যেন কিছুতেই কমছে না তৃনমূলে। এবার উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের করিম চৌধুরী বনাম কানয়াইয়ালাল আগরওয়ালের দ্বন্দ্ব চরমে উঠল। জানা গেছে, উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়ালের অনুগামী হিসেবে পরিচিত তৃণমূলের ইসলামপুর ব্লক সভাপতি জাকির হুসেনের নিযুক্ত অঞ্চল সভাপতিরা অবৈধ বলে দাবি করলেন তৃনমূল বিধায়ক আবদুল করিম চৌধুরী। বস্তুত,

একই দপ্তরের দুই মন্ত্রীর মধ্যে শুরু তীব্র চাপানউতোর! অস্বস্তি ক্রমশ বাড়ছে শাসকদলে

নির্বাচনে বিপর্যয় হলেও শাসকদলের অন্তর্দ্বন্দ্ব যেন কমছে না কিছুতেই। এবার দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটের মাঝিয়ানের কৃষি মহাবিদ্যালয়ের ভবন উদ্বোধনের আমন্ত্রণ নিয়ে তীব্র বিতর্ক সামনে আসতে শুরু করে। সূত্রের খবর, বুধবার ওই অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ সহ প্রশাসনিক আধিকারিকরা উপস্থিত থাকলেও মঞ্চে দেখা যায়নি জেলার রাষ্ট্রমন্ত্রী বাঁচ্চু হাসদা

সারদা কাণ্ডে তৃণমূলের অস্বস্তি ক্রমশ বাড়ছে, ফের হেভিওয়েট সাংসদকে জিজ্ঞাসাবাদ

চলতি বছরে শুরুতেই কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে নিয়ে সারদা কেলেঙ্কারির তদন্তে ব্যাপারে তৎপর হয়েছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। তাই মাঝে লোকসভা নির্বাচনের সময় এই সমস্ত ব্যাপারে কিছুটা হলেও ঢিল পড়ে। তবে নির্বাচন শেষ হওয়ার সাথে সাথেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার তরফে চিটফান্ড কেলেঙ্কারি ইস্যুতে তৃণমূলের একাধিক সাংসদকে জেরার জন্য তলব

Top
error: Content is protected !!